• শিরোনাম

    আইবিপি রোড়ের দোকানে ভেজাল শিশু খাদ্য বিক্রির মহোৎসব

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ১৩ জুন ২০১৯ | ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

    আইবিপি রোড়ের দোকানে ভেজাল শিশু খাদ্য বিক্রির মহোৎসব

    ভেজাল রোধে মৃত্যুদন্ডের বিধান করে আইন প্রনয়ণের দাবী করেছেন দেশের খোদ মন্ত্রীরা। অথচ আগামীর প্রজন্ম শিশুদের কি খাওয়াচ্ছি! খেলনার চলে আমার- আপনার প্রিয় শিশুদের জীবন নাশক নি¤œ মানের ভেজাল পণ্য খাওয়াচ্ছি। খোদ হেলদি শহর খ্যাত কক্সবাজারের আইবিপি রোড়ের বেশ কয়েকটি দোকানে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে বিএসটিআই এর অনুমোদনহীন, কক্সবাজার শহর ও শহরতলিতে স্থানীয় ভাবে তৈরী এসব ভেজাল শিশু খাদ্য।
    শহরের আইবিপি রোড়ের দাশ মার্কেটের আমান উল্লাহ স্টোরে দৃষ্টি দিতেই চোখে পড়বে সারি সারি শিশুদের ভেজাল খাদ্য পণ্য। এসবের মধ্যে রয়েছে-শিশু স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর এক টাকা,দুই টাকা মূল্যের নি¤œ মানের পানির ট্যাংক পাইপ, ভেজাল আচার,চিপ্স ও কামরাঙ্গার আদলে তৈরী বিভিন্ন কালারের রং মিশ্রিত পণ্য। ব্যবসায়ীদের আস্কারায় দুই নম্বরী উৎপাদনকারীরা রমরমা প্যাকেটে প্যাকেটজাত করে শহরের প্রাণ কেন্দ্রে প্রকাশ্যে এই শিশু জীবন বিধ্বংসী ভেজাল পণ্য সরবরাহ করছে। আর অতি মুনাফার লোভে পাইকার ব্যবসায়ী নামধারী আমান উল্লাহরা এই অনৈতিক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। আর খুচরা ব্যবসায়ীরা এসব ভেজাল শিশু খাদ্য নিয়ে যাচ্ছে গ্রামের প্রত্যন্ত ছোট-বড় দোকান গুলোতে।
    একই দৃশ্য আইবিপি রোড়ের লাকি স্টোর, ভাই ভাই স্টোর, তানিয়া স্টোর ও গণি স্টোর নামের দোকান গুলোতে। আমান উল্লাহ স্টোরের মত এসব দোকান গুলো নি¤œ মানের ভেজাল শিশু খাদ্যের পসরা সাজিয়ে দিব্যি ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। সূত্র জানায়-শহরতলির আলির জাহান, লারপাড়ার অবৈধ আইস ফ্যাক্টরিতে এসব নি¤œ মানের প্লাস্টিক ট্যাংক পাইপ তৈরী করছে। যাতে ব্যবহার হচ্ছে শরীরের জন্য ক্ষতিকারক লাল-হলুদ রংয়ের সাথে সেকারিন। আর কক্সবাজার শহর ও শহরতলির বেশ কয়েকটি গোপন জায়গায় প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে কিংবা ম্যানেজ করে ভেজাল আচার,চিপ্স ও কামরাঙ্গা তৈরী করছে আইবিপি রোড়ের কিছু সংখ্যক অসাধু ব্যবসায়ীদের নিয়ে গঠিত একটি অসাধু চক্র।
    অভিযোগ রয়েছে-কক্সবাজার শহরে ভেজাল ও নি¤œ মানের পণ্য যাচাই-বাছাইয়ে বাজার মনিটরিং সেল থাকলেও আইবিপি রোড়ের এসব দোকানে কখনও অভিযান চালায়নি। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কক্সবাজারের ছিন্নমূল শিশু সংগঠক সাংবাদিক ওমর ফারুক হিরু আজকের দেশবিদেশকে জানান-অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে আইবিপি রোড়ের অসাধু ব্যবসায়ীরা শিশুদের উপর পরিকল্পিত ভাবে ফুড্ সন্ত্রাস চালাচ্ছে। এদের চিহ্নিত করে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে দ্রুত জেল-জরিমানার আওতায় আনা না গেলে আগামীর প্রজন্ম শিশুরাই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে।###

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ