• শিরোনাম

    নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা

    আজ কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন

    শহীদুল্লাহ্ কায়সার | ৩১ মার্চ ২০১৯ | ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

    আজ কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন

    আজ ৩১ মার্চ কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন। উপজেলার ১টি পৌরসভা এবং ১০টি ইউনিয়নের ভোটাররা নিব্র্াচিত করবেন তাঁদের প্রতিনিধি। সকাল ৮ টায় শুরু হওয়া নির্বাচন শেষ হবে বিকেল ৪ টায়। চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যান এবং সংরক্ষিত ভাইস চেয়ারম্যান এই ৩টি পদে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন। নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করবেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা।
    নির্বাচন উপলক্ষে কক্সবাজার সদর উপজেলায় ঘোষণা করা হয়েছে সাধারণ ছুটি। পাশাপাশি যানবাহন চলাচলে জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। ব্যাটারি চালিত টমটম থেকে শুরু করে ট্রাক পর্যন্ত রয়েছে নিষেধাজ্ঞার আওতায়। মহাসড়ক ছাড়া উপজেলার কোথাও অনুমতিবিহীন যানবাহন চলাচল করলেই এর চালকদের পড়ত হবে শাস্তির আওতায়।
    এবারই প্রথম এই উপজেলায় কাগজের ব্যালটের পরিবর্তে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এ ভোট প্রদান করবেন। ্ নির্বাচনে ৩ পদের বিপরীতে ৩টি ইলেকট্রনিক ব্যালট মেশিনে ভোট দেয়া হবে। ভোটাররা যাতে নির্বিঘেœ ইভিএম এ ভোট দিতে পারেন সেজন্য কেন্দ্র সংলগ্ন এলাকায় প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। ইভিএম এ সমস্যা দেখা দিলে তাৎক্ষণিক কারিগরি ত্রুটির সমাধান করতে প্রতি কেন্দ্রে ৪ জনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ২ জন সেনাবাহিনীর সদস্য এবং অন্য ২জন নির্বাচন কমিশন নিয়োগকৃত।
    নির্বাচনে এবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৭ প্রার্থী। তাঁদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫ প্রার্থী রয়েছেন। চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত কায়সারুল হক জুয়েল, জাতীয় পার্টি মনোনীত আতিকুর রহমান এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুল আবছার, সেলিম আকবার এবং আব্দুল্লাহ্ আল মোর্শেদ। ইতিপূর্বে আব্দুল্লাহ আল মোর্শেদ নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেও নির্ধারিত সময়ের পর হওয়ায় তাঁর নাম ও প্রতীক ব্যালটে স্থান পেয়েছে। এ ছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৯ প্রার্থী এবং সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ প্রার্থিনী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।
    নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন করতে নেয়া হয়েছে ব্যাপক পদক্ষেপ। কক্সবাজারের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজিব কুমার বিশ্বাসকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে পাঁচ দিনের জন্য। নির্বাচন পূর্ব, নির্বাচনকালীন এবং নির্বাচনোত্তর নির্বাচনী সহিংসতা রোধ করতেই তাঁকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়াও নিয়োগ দেয়া হয়েছে ১৪ জন সিনিয়র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। তাঁদের মধ্যে ৪ জন কক্সবাজার পৌরসভায় এবং অন্য ১০ জনকে ১০ ইউনিয়নে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে কোথাও নির্বাচনী সহিংসতা দেখা দিলে ঘটনাস্থলে আদালত পরিচালনার মাধ্যমে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করবেন তাঁরা।
    জুডিশিয়াল এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণের পাশাপাশি মোতায়েন করা হচ্ছে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব এবং আনসার বাহিনীর সশস্ত্র সদস্যদের। কক্সবাজার পৌরসভাসহ ১০ ইউনিয়নে মোতায়েন করা হবে ৬৪৮ জন পুলিশ সদস্য। ১৫০ জন বিজিবি সদস্য, র‌্যাবের ৩টি পেট্রোল টিম এবং আনসার বাহিনীর পর্যাপ্ত সংখ্যক সদস্য।
    এবারের নির্বাচনে সদর উপজেলায় ভোটার রয়েছেন ২ লাখ ৫৬ হাজার ৬৪৪ জন। তাঁদের জন্য স্থাপন করা হবে ১০৮ টি কেন্দ্র। যাতে কক্ষ থাকবে ৬৪৮ টি। ১০৮ জন প্রিসাইডিং অফিসারের পাশাপাশি ৬৪৮ জন সহকারি প্রিসাইডিং অফিসার এবং ১২’শ ৯৬ জন পোলিং অফিসার পালন করবেন নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব।
    এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকতা ও সহকারি রিটার্নিং অফিসার শীমুল শর্মা বলেন, নির্বাচনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। কেন্দ্রে কেন্দ্রে ইভিএমসহ সব নির্বাচনী সামগ্রী পৌঁছে গেছে। আগামিকাল (আজ) সকালে প্রিসাইডিং অফিসাররা এই মেশিন খুলে ভোট গ্রহণ করবেন। মেশিনে গ-গোল দেখা দিলে কেন্দ্রে থাকা অতিরিক্ত মেশিন দিয়ে ভোট নেয়া হবে। আশাকরি সন্ধ্যা ৬ টার মধ্যে ফলাফল ঘোষণা করা যাবে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ