• শিরোনাম

    সদর থানা পুলিশের পৃথক অভিযান

    ইয়াবা কারবারি ভুইল্যা,আব্বাস ও লিয়াকত আটক

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ১৪ মে ২০১৯ | ১:৪৯ পূর্বাহ্ণ

    ইয়াবা কারবারি ভুইল্যা,আব্বাস ও লিয়াকত আটক

    কক্সবাজার মডেল থানা পুলিশ গত এক দিনেই পৃথক অভিযান চালিয়ে তিন চিহ্নিত ইয়াবা ডনকে আটক করেছে। এদের মধ্যে শহরের পাহাড়তলির কুখ্যাত ইয়াবাকারবারি সৈয়দুল মোস্তফা ভুইল্যাও (৩৪) রয়েছে। ভুইল্যা পাহাড়তলির বার্মাইয়া হাজি জহির আহমদের পুত্র। গতকাল ১৩ মে সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় ইয়াবার দীর্ঘ দিনের পাইকার ও খুচরা বিক্রেতা, দীর্ঘ দিন আতœগোপনে থাকা কুখ্যাত ভুইল্যা পুলিশের জালে ধরা পড়ে। এক সময়ের টোকাই ভুইল্যা বিগত কয়েক বছরে ইয়াবা বিক্রি করে তিন তলা আলিশান বাড়ি ছাড়াও কয়েক কোটি টাকার মালিক বনে যান।
    এদিকে কক্সবাজার সদর উপজেলা গেইটস্থ দক্ষিন হাজিপাড়া গ্রামের কুখ্যাত ইয়াবা সুন্দরী, পলাতক মাহমুদা বেগমের পুত্র, ইয়াবা কারবারি মোহাম্মদ আব্বাসকে (২২) কে আটক করেছে কক্সবাজার মডেল থানা পুলিশের এএসআই ইমামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ। গতকাল ১৩ মে রাত ১০ টায় সদর উপজেলা গেইট থেকে ইয়াবা ডন আব্বাসকে আটক করা হয়। মাত্র এক সপ্তাহ আগে ইয়াবা কারবারি আব্বাসের সহযোগী বার্মাইয়া সেলিমের পুত্র ফয়সালকে (২১) ইয়াবাসহ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আটক করে এসআই সুজন মজুমদারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ। এসময় অভিযানের খবর টের পেয়ে ইয়াবার একটি বড় চালান নিয়ে সটকে পড়ে আব্বাস। তবে আব্বাসের বাড়ি থেকে কয়েক হাজার ইয়াবা, ইয়াবার প্রচুর খালি প্যাকেট ও ইয়াবা সেবনের সরঞ্জাম উদ্ধার করে পুলিশ। ইয়াবা সুন্দরী মাহমুদা এবং স্থানীয় কবির আহমদের কু-সন্তান আব্বাসের নেতৃত্বে একটি অস্ত্রধারী ইয়াবা চক্র দীর্ঘদিন ধরে সদর উপজেলা কম্পাউন্ডের পরিত্যক্ত ভবন ও ঝিলংজার খাদ্য গুদামের পরিত্যক্ত ভবন দখলে নিয়ে পাইকার ও খুচরা ইয়াবা বিক্রি করে আসছিল আব্বাস সিন্ডিকেট।
    অন্যদিকে মডেল থানা পুলিশ ঝিলংজার খরুলিয়ায় পৃথক অভিযান চালিয়ে চিহ্নিত ইয়াবা কারবারি লিয়াকতকে পুলিশ আটক করে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ