মঙ্গলবার ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

অবসরে যাওয়া ৬৫ হাজার চিকিৎসক-নার্সকে কাজে ফেরার অনুরোধ ব্রিটেনের

দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক   |   শুক্রবার, ২০ মার্চ ২০২০

অবসরে যাওয়া ৬৫ হাজার চিকিৎসক-নার্সকে কাজে ফেরার অনুরোধ ব্রিটেনের

প্রাণঘাতী করোনা মোকাবিলায় ৬৫ হাজার অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসক এবং নার্সকে কাজে ফেরার অনুরোধ জানিয়েছে ব্রিটেন। একই সঙ্গে করোনার এই লড়াইয়ে দেশটির মেডিক্যাল কলেজের শেষ-বর্ষের শিক্ষার্থীদের মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের জেরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার, কোম্পানি ও বিনিয়োগকারীরা বড় ধরনের সঙ্কটের মুখে পড়েছেন। ১৯১৮ থেকে ১৯২০- এই দুই বছরের স্প্যানিশ ফ্লু মহামারিতে বিশ্বের ৫০ কোটি মানুষ সংক্রমিত হয়েছিলেন; প্রাণ হারান ৫ কোটি। সেই সময়ের পর শতাব্দির অন্যতম ভয়াবহ স্বাস্থ্যসঙ্কটের মুখোমুখি হয়েছে পুরো বিশ্ব।
করোনা সঙ্কট মোকাবেলায় ব্রিটেনের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস দেশটির মেডিকেলের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী এবং নার্সদের অস্থায়ী দায়িত্ব পালনের প্রস্তাব দিয়েছে।
ইংল্যান্ডের প্রধান নার্স কর্মকর্তা রুথ মে বলেছেন, আমরা একাই এই ভাইরাসের মোকাবিলা করতে পারবো না। যে কারণে আমি এই মহামারির সময় সাবেক সকল নার্সকে তাদের অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতাকে কাজে লাগানোর অনুরোধ জানিয়েছি। কারণ জীবন বাঁচাতে আপনারাই সহায়তা করতে পারেন; যা নিয়ে আমার কোনও সন্দেহ নাই।
গত তিন বছরে নিবন্ধনের মেয়াদ শেষ হয়েছে এমন ৫০ হাজারের বেশি নার্সের কাছে চিঠি লিখেছে ব্রিটেনের নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কাউন্সিল। এছাড়া ২০১৭ সালের আগে নিবন্ধনের মেয়াদ শেষ হওয়া ১৫ হাজার ৫০০ চিকিৎসকের কাছে চিঠি লিখবে ব্রিটেনের জেনারেল মেডিক্যাল কাউন্সিল।
ব্রিটেনের হেলথ সার্ভিস অপারেশন জরুরি নয় এমন ৩০ হাজার শয্যা খালি করেছে এবং হাসপাতাল থেকে বাসায় গেলেও সমস্যা নেই এমন রোগীদের কমিউনিটি সেবা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন কমিউনিটি এবং বেসরকারি হাসপাতালে আরও ১০ হাজার শয্যা খুঁজছে।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বিস্তারের লাগাম টানতে নানা ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হলেও বিশ্বজুড়ে সংক্রমণ এবং প্রাণহানি লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথম এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পরার পর দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজার ৯৬৭ এবং মারা গেছেন ৩ হাজার ২৪৮ জন। দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বের ১৭৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস।
চীনের পর মৃত্যুপুরিতে পরিণত হয়েছে ইউরোপের দেশ ইতালি। দেশটিতে করোনায় প্রাণহানি উৎপত্তিস্থল চীনের রেকর্ডকেও ছাড়িয়ে গেছে। ইতালিতে এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ৪০৫ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৪১ হাজার ৩৫ জন। অন্যদিকে, বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৫৫ হাজার ৮১১, মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৪৯৫ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৯ হাজার ৯১৮ জন।
সূত্র : রয়টার্স, ওয়ার্ল্ডমিটার।

দেশবিদেশ/নেছার

Comments

comments

Posted ৯:১৯ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২০ মার্চ ২০২০

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com