রবিবার ১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

পেচারদ্বীপ এলাকায় জেলা প্রশাসনের অভিযান

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি সোহাগের দখল করা ২০ একর খাস জমি পুনঃরুদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   শনিবার, ১২ জানুয়ারি ২০১৯

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি সোহাগের দখল করা ২০ একর খাস জমি পুনঃরুদ্ধার

কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ-এর পেঁচারদ্বীপ সংলগ্ন অবেধৈভাবে দখলকৃত সরকারি খাস জমি পুনরুদ্ধারে শুক্রবার সকালে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন। মারমেইড নামের একটি ইকোট্যুরিজম এর মালিক আনিসুল ইসলাম সোহাগ ২০ একর সরকারি খাস জমি জবর দখল করে রেখেছিলেন। এই ব্যক্তি এর আগেও একই এলাকায় আরো বিপুল পরিমান সরকারি সম্পত্তি জবর দখল করে হোটেল রেস্তোঁরা বসিয়েছিলেন। সে সময়ও মোবাইল কোর্টের অভিযান চালিয়ে তাকে উচ্ছেদ করা হয়েছিল।
অভিযোগ উঠেছে এই ব্যক্তি প্রভাব প্রতিপত্তি অর্জনের অপচেষ্টা করেছিলেন সদ্যসমাপ্ত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপত্র প্রত্যাশি ছিলেন। এমনকি প্রভাব প্রতিপত্তি জন্য এই ব্যক্তি সামপ্রতিক সময়ে ক্ষমতাসীন দলীয় নেতাকর্মীদের সাথেও সখ্যতা গড়ে তোলেন। এতসবের পরেও সরকারি সম্পদ দখল করে হোটেল স্থাপন তার ধুলিস্যাৎ হয়ে গেছে। গতকাল সকালে জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে তার কবল থেকে পুনরুদ্ধার করা হয় সরকারি জমি এবং জব্দ করা হয় কাঠ, টিন সহ বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী। সেই সাথে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে পরিবেশ অধিদপ্তরকে নিয়মিত মামলার নির্দেশ প্রদান করা হয়। মেরিন ড্রাইভ-এর দুপার্শ্বে বিভিন্ন সময়ে প্রশাসনের অগোচরে কতিপয় দখলবাজরা নানা উপায়ে সরকারি খাস জমি অবেধৈভাবে দখল করার চেষ্টা করে আসছে। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জাদুঘর সংলগ্ন পেঁচার দ্বীপ, মেরিন ড্রাইভ এর পশ্চিম পাশে প্রায় ২০ একর সরকারি খাস জমি মারমেইড নামে একটি প্রতিষ্ঠান অবৈধভাবে দখলের পায়তারা করছিল। সেখানে গড়ে তোলার চেষ্টা করছিল বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণের।
উক্ত এলাকায় সরকারি খাস জমি অবৈধভাবে দখলের সংবাদ পাওয়া মাত্রই তা উচ্ছেদে শুক্রবার সকালে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন।
জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট মো: সেলিম শেখের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় কাঠ, টিন সহ বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী জব্দ করা হয়। পরে দায়ী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে পরিবেশ অধিদপ্তরকে নিয়মিত মামলার নির্দেশ প্রদান করেন এবং প্রশাসনের এধরনের অবৈধ দখলকারীদের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট জানান। অভিযানকালে পরিবেশ অধিদপ্তর,আনসার,বনবিভাগসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

Posted ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১২ জানুয়ারি ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com