• শিরোনাম

    ইতিহাসের সাক্ষীর স্বীকৃতি

    আজকের দেশবিদেশ পত্রিকার নেছার পেলো সম্মাননা

    নিজস্ব প্রতিবেদক, মহেশখালী | ১০ জুন ২০১৮ | ১:৩৩ পূর্বাহ্ণ

    আজকের দেশবিদেশ পত্রিকার নেছার পেলো সম্মাননা

    বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপনের সঠিক সংবাদ দৈনিক আজকের দেশবিদেশ পত্রিকায় প্রকাশে যার অবদান ছিলো তিনি হলেন কম্পিউটার ইনচার্জ মোঃ নেছার । ইতিহাসের এই সাক্ষীকে অবশেষে সম্মাননা দিলেন মহেশখালি উপজেলা প্রশাসন। তবে জেলা প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের পক্ষ থেকেও তাকে সম্মানিত করার দাবী উঠেছে বিভিন্ন মহল থেকে।

    গত ৩ জুন সন্ধ্যায় মহেশখালি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে মোহাম্মদ নেছারের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন মহেশখালী কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক। এসময় উপস্থিত ছিলেন, মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল কালাম, সহকারী কমিশনার (ভুমি) হাসান মারুফ, মহেশখালী পৌরসভার মেয়র মকসুদ মিয়া, মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ, মহেশখালী প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিউল আলম সাকিব, দৈনিক আজকের দেশবিদেশ পত্রিকার নিজস্ব প্রতিবেদক মোহাম্মদ শাহাবউদ্দীন, মহেশখালী প্রেসক্লাব সভাপতি মাহবুব রোকন, প্রথম আলো প্রতিনিধি রুহুল বয়ান, এম বশির উল্লাহ, আবু তাহেরসহ সাংবাদিক, সরকারী কর্মকর্তা, রাজনৈতিক ব্যক্তি বর্গ উপস্থিত ছিলেন।

    বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উঃক্ষেপন নিয়ে সারা দেশ যখন মেতে উঠেছিল, সেই রাতে ইতিহাসের সাক্ষী হতে অন্যান্যদের মতো এই মোহাম্মদ নেছারও রাত জেগে ছিলেন। মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ঐতিহাসিক সংবাদটি জাতীয় দৈনিক ও কক্সবাজারের স্থানীয় এতগুলো দৈনিকের মধ্যে শুধুমাত্র কক্সবাজারের স্থানীয় একটি মাত্র প্রিন্ট মিডিয়া দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ পত্রিকায় সঠিক তথ্য নিয়ে যথাসময়ে প্রকাশিত হয়। এনিয়ে পুরো কক্সবাজার জেলা ও দেশব্যাপী আলোচিত হয়।

    এই আলোচনার প্রধান কেন্দ্র বিন্দুর মানুষটিই হচ্ছেন মোহাম্মদ নেছার। রাত জেগে তিনি সঠিক সময়ে সঠিত ও আলোচিত খবরটি প্রকাশ করেছেন। তার এ অকৃত্রিম সাফল্যের জন্য দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ পত্রিকা কর্তৃপক্ষ তাকে সংবর্ধিতও করেছে। পাশপাশি তাকে মহেশখালী উপজেলা প্রশাসনও সম্মাননা দিয়েছেন। স্বয়ং ইতিহাসের সাক্ষী এই আলোর মানুষটিকে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এবং জেলাবাসির পক্ষ থেকেও সম্মানিত করার দাবী রাখে।

    কারণ কক্সবাজার জেলা ও বাংলাদেশে এতগুলো পত্রিকা থাকলেও তারা সেভাবে কষ্ট করেনি বা কষ্ট করতে চাইনি এবং নিজেদের দায়িত্ববোধ থেকে সঠিক সময় সঠিক সংবাদটি প্রকাশ করেনি । তিনি কষ্ট করেছেন, হয়ে গেছেন একজন ইতিহাসের স্বাক্ষী। আরাম আয়েশ বির্সজন দিয়ে তিনি এ কাজকে আকঁড়ে ধরে রেখেছিলেন সেইদিন রাত ও মাহিন্দ্রক্ষণকে। কক্সবাজারে ছেলে থেকে বুড়ো, আবালবৃদ্ধবনিতা সবার কাছেই একনামে পরিচিত এই মোহাম্মদ নেছার।

    এই কাজের জন্য তিনি আরো ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছে। ১১ মে দিনগত রাতে ইতিহাসের স্বাক্ষী হতে হাজির ছিলেন দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ কার্যালয়ে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপনের প্রথমদিনও তিনি যথাযতভাবে পত্রিকা অফিসে দায়িত্ব পালন করেছেন। দ্বিতীয় দিন যখন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপন করা হয়, তখন রাতজেগে তিনিই ছিলেন, সংবাদটি গুরুত্ব সহকারে ছাপান দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ পত্রিকায় ।

    কক্সবাজার জেলায় এতোগুলো দৈনিক পত্রিকায় কেউ দায়িত্ববোধ থেকে রাত জেগে সঠিত তথ্য সম্বলিত সংবাদটি ছাপাতে পারেনি। মোঃ নেছার মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নের সন্তান। তাঁর এ কৃতিত্বের জন্য অভিনন্দন জানিয়েছেন, কক্স-মিডিয়া অপারেটর এসোসিয়েশনের সভাপতি বেলাল আহমদ, সহ সভাপতি মীর মোশারফ হোসেন, চিংশাউ মার্মা বাবু, মমতাজ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক লোকমান হাকিম, শীপন পাল, মংটিন রাখাইন, আবু ছুপিয়ান, ওমর ফারুক, মেমেছেন রাখাইন, জিয়াউল হক, মোবারক উদ্দিন নয়ন, শাহাব উদ্দিন, উক্যমং রাখাইন, মাহ্লমে মালা, হাবিসুল ইসলাম সুজন, সুজয় কান্তি পাল রুবেল, মংলাইন রাখাইন, হাসান মুরাদ, মোহাম্মদ আবু তাহের, মংছেন নাই, মংছেন লাইন, মোহাম্মদ আরমান, ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ ইমরান প্রমুখ।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ