• শিরোনাম

    সংবাদ সম্মেলনে জাতিসংঘের তিন কর্মকর্তা

    আনান কমিশনের সুপারিশ ছাড়া রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নয়

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৭ এপ্রিল ২০১৯ | ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ

    আনান কমিশনের সুপারিশ ছাড়া রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নয়

    বাংলাদেশ সফররত জাতিসংঘের উচ্চ পদস্থ তিন কর্মকর্তা গতকাল আবারো বললেন, কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন ছাড়া রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে রাজি নয় জাতিসংঘ। সেই কমিশনের সুপারিশে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের রোড ম্যাপ দেয়া আছে। রোহিঙ্গাদের মায়ানমারের নাগরিকত্ব প্রদানের বিষয়টি সেই রোড ম্যাপে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।
    প্রত্যেক মানুষেরই অবাধে চলাচলের স্বাধীনতা রয়েছে। আমরা রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলেছি, তাঁরা সেখানে নাগরিকত্ব, চলাচলের অবাধ স্বাধীনতা, চাকরি থেকে শুরু সর্বক্ষেত্রে নাগরিক অধিকার হিসেবে প্রাপ্ত সব অধিকার রোহিঙ্গাদের দেয়ার বিষয়টি মায়ানমারকে নিশ্চিত করতে হবে। আমরা সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি।
    গত বছরের জুন মাসে মায়ানমারের সাথে জাতিসংঘের সমঝোতা স্মারক বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মায়ানমারের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তাঁরা। ২৬ জুন বিকেলে কক্সবাজার শহরের একটি তারকা মানের হোটেলে আন্তর্জাতিক, জাতীয় ও স্থানীয় প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মাধ্যমের সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক ত্রাণ সহায়তা বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি ও জরুরী ত্রাণ সমন্বয়কারী মার্ক লোকক, জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক কমিশন (ইউএনএইচসিআর)’র ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি এবং আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম)’র ডিরেক্টর জেনারেল অ্যান্টোনিও ভিটোরিনো।
    সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয়দের চাকরি দেয়া প্রসঙ্গে জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি মার্ক লোকক বলেন, আমরা খুব সুন্দর একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছি। এ জন্য জাতিসংঘের কাছে ১ বিলিয়ন ডলার (প্রায় সাড়ে ৮’শ কোটি টাকা) সাহায্য চাওয়া হয়েছে। ১০ লাখ রোহিঙ্গা এবং ৩ লাখ স্থানীয় জনগোষ্ঠীর কথা বিবেচনা করেই প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়েছে।
    ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরের ব্যাপারে এক আন্তর্জাতিক সাংবাদিক জানতে চাইলে, আইওএম’র ডিরেক্টর জেনারেল বলেন, ভাসানচরে যাওয়া-না যাওয়া রোহিঙ্গাদের সদিচ্ছার উপর নির্ভর করে। বিষয়টি চিন্তার। আমাদের দেখতে হবে সেখানে আদৌ থাকার পরিবেশ আছে কিনা।
    এর আগে উল্লিখিত ৩ জাতিসংঘ কর্মকর্তা রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে গিয়ে সেখানে বসবাসরত রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেন। পাশাপাশি রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে জাতিসংঘ পরিচালিত বিভিন্ন প্রকল্পের কর্মকা- পরিদর্শন করেন।
    উল্লেখ্য, ২৪ এপ্রিল ঢাকা পৌঁছেই জাতিসংঘের এই তিন কর্মকর্তা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেনসহ রাষ্ট্রের উচ্চ পদস্থ সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে রোহিঙ্গা বিষয়ে আলোচনা করেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    মাতারবাড়ী ঘিরে মহাবন্দর

    ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ