শুক্রবার ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম
আন্তর্জাতিক তিন গণমাধ্যমের পূর্বাভাস

আবার প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন শেখ হাসিনাই

দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক   |   শনিবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০১৮

আবার প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন শেখ হাসিনাই

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে জিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাই চতুর্থ মেয়াদে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন বলে পূর্বাভাস দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের টাইম ম্যাগাজিন ও যুক্তরাজ্যের দ্য গার্ডিয়ান এবং ব্লুমবার্গ। গতকাল শুক্রবার প্রভাবশালী এ তিন গণমাধ্যম এ নিয়ে খবর প্রকাশ করে।
শেখ হাসিনাকে ‘বাংলাদেশের লৌহ মানবী’ আখ্যায়িত করে টাইম ম্যাগাজিনের খবরে বলা হয়, আগামী রবিবারের নির্বাচনে জিতে রেকর্ড চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন শেখ হাসিনা। কারণ গত দুই মেয়াদে তার সরকারের ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকা- এবারও শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগকেই বেছে নিতে ভোটারদের উৎসাহিত করবে। যদিও বাংলাদেশের অসাধারণ অর্থনৈতিক সফলতা নিয়ে শেখ হাসিনার সমালোচকদের মধ্যে প্রশ্ন রয়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।
অন্যদিকে গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনেও শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগের জয়ের ব্যাপারে ইঙ্গিত দেওয়া হয়। এতে বলা হয়, রক্তক্ষয়ী নির্বাচনী প্রচারের পরও শেখ হাসিনার প্রধানমন্ত্রী থাকার পক্ষে পরিস্থিতি অনুকূল রয়েছে। বাংলাদেশকে বিশ্বের অন্যতম দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ হিসেবে তুলে এনেছে শেখ হাসিনার সরকার।
শেখ হাসিনা আশা করছেন, ১০ কোটি ভোটার সহিংসতাকে ঘৃণা করে দেশের অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক উন্নতির দিকে গুরুত্ব দেবেন। এর মধ্যে ২০০৯ সাল থেকে মাথাপিছু আয় তিনগুণ বেড়ে যাওয়া ও গত এক দশকে বার্ষিক প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের বেশি হয়েছে। এ প্রবৃদ্ধির বেশিরভাগই এসেছে দেশের ২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের গার্মেন্টস ব্যবসা থেকে। যেখানে ৪৫ লাখ মানুষ কাজ করেন। এ খাতে নারীদের অংশগ্রহণ দ্বিগুণ বেড়েছে। মাতৃ ও শিশুস্বাস্থ্যের সুবিধা বাড়ায় গড় আয়ু ৭২ বছর হয়েছে, যা ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে বেশি।
ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশে অর্থনীতির উচ্চ প্রবৃদ্ধি ও আর্থিক চাঙাভাব সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে সুবিধাজনক অবস্থানে রেখেছে। যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসা বেগবান করতে পারে। শেখ হাসিনা ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ক্রমান্বয়ে বেড়েছে। দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলো আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে। বাংলাদেশের ভিয়েলাটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান ডেভিড হাসানাত বলেন, বর্তমানে দেশে রাজনৈতিক স্থিরতা রয়েছে এবং এটি বজায় রাখতে হবে। রাজনৈতিক স্থিরতা আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্যের উন্নতিতে সাহায্য করে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশের উচ্চ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির বিষয়টি বছরের পর বছর ধরে করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। শেখ হাসিনার সরকার প্রায় সাড়ে সাত লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়েছে। আশা করা হচ্ছে, এবারের নির্বাচনেও ক্ষমতায় আসবেন শেখ হাসিনা। ফলে অর্থনৈতিক নীতির ধারাবাহিকতা রক্ষা করা সম্ভব হবে এবং বিদেশি বিনিয়োগের প্রবাহ বাড়বে।
তিন প্রতিবেদনেই নানা বিষয়ে শেখ হাসিনা সরকারের সমালোচনাও করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে বিরোধী রাজনীতিকদের বেশ কয়েকজনের বক্তব্য তুলে ধরা হয়।

Comments

comments

Posted ৬:০২ অপরাহ্ণ | শনিবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০১৮

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com