রবিবার ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

‘আমার বা আপনার নয়, আমেরিকা সবার’

দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক   |   শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯

‘আমার বা আপনার নয়, আমেরিকা সবার’

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা বলেছেন, ‘এটি আমার বা আপনার নয়, আমাদের সবার আমেরিকা।’ ছবি: বিবিসির ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা বলেছেন, ‘আমেরিকায় আমাদের সবার জন্য জায়গা আছে।’ যুক্তরাষ্ট্রের চার নারী ও অশ্বেতাঙ্গ কংগ্রেস সদস্যকে ‘যাঁর যাঁর দেশে ফিরে যাওয়ার’ পরামর্শ দিয়ে করা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বর্ণবিদ্বেষী বক্তব্যের বিরুদ্ধে গতকাল শুক্রবার অবস্থান নেন মিশেল।

ট্রাম্পের নাম উল্লেখ না করে মিশেল ওবামা এক টুইটবার্তায় বলেছেন, ‘সত্যিকার অর্থে আমাদের দেশকে মহান করে তোলে এর বৈচিত্র্য। আমরা এখানে জন্মগ্রহণ করি বা এখানে আশ্রয় চাই, আমাদের সবার জন্য একটি জায়গা আছে। আমাদের অবশ্যই মনে রাখতে হবে, এটি আমার বা আপনার নয়, আমাদের সবার আমেরিকা।’

গত মঙ্গলবার মার্কিন কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এই বক্তব্যকে নিন্দনীয় অভিহিত করে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে।

২৪০-১৮৭ ভোটে গৃহীত এই প্রস্তাবের পক্ষে সব ডেমোক্রেটিক কংগ্রেস সদস্য ভোট দিলেও মাত্র চারজন রিপাবলিকান ও একজন স্বতন্ত্র সদস্য সমর্থন করেন। এটি একটি প্রতীকী প্রস্তাব। এর কোনো আইনগত ভিত্তি নেই। এরপরও গত ১০০ বছরে এই প্রথম একজন ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে এ রকম নিন্দাসূচক প্রস্তাব গ্রহণ প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের চরিত্রে কালিমা লেপে দিল।

এই চার নারী কংগ্রেস সদস্য হলেন আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিও-করতেস, রাশিদা তালিব, আইয়ানা প্রেসলি ও ইলহান ওমর। তাঁদের মধ্যে প্রথম তিনজনের জন্ম যুক্তরাষ্ট্রে। আর ওমর ছোটবেলায় সোমালিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছেন। ডেমোক্রেটিক পার্টির এই চার নারী কংগ্রেস সদস্য প্রগতিশীল হিসেবে পরিচিত। গত রোববার একাধিক টুইটে এই চার নারীকে নিজ নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার পরামর্শ দেন ট্রাম্প। টুইটে ট্রাম্প চার নারীর উদ্দেশে বলেন, এই নারীরা এমন সব দেশ থেকে এসেছেন, যাদের সরকার পুরোটাই ব্যর্থ। যুক্তরাষ্ট্রের সরকার কীভাবে পরিচালনা করতে হবে, সে পরামর্শ দেওয়ার বদলে তাঁদের উচিত যাঁর যাঁর দেশে ফিরে যাওয়া। সেখানে অবস্থা বদলানোর পর তাঁরা ফিরে এসে বলুন, কীভাবে যুক্তরাষ্ট্রের সমস্যার সমাধান করতে হবে।

বুধবার রাতে উত্তর ক্যারোলাইনার গ্রিনভ্যালিতে ট্রাম্পের ‘মেক আমেরিকা গ্রেট অ্যাগেইন’ মিছিলে কংগ্রেস সদস্য ইলহান ওমরকে বাড়ি ফিরে যেতে স্লোগান দেয় উপস্থিত জনতা। এ ঘটনার পরদিন ট্রাম্প ওভাল কার্যালয়ে সাংবাদিকদের জানান, এই বিদ্রূপ করতে তাঁর ভালো লাগছে না। এগুলো তাড়াতাড়ি বন্ধ করার চেষ্টা করছেন তিনি। তবে টেলিভিশন ফুটেজ অনুযায়ী, কথা শেষ করার আগে ১০ সেকেন্ড বিরতি দিয়ে ওমরকে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়ার মন্ত্র আওড়ানোর সুযোগ করে দেন তিনি।

গতকাল শুক্রবার হোয়াইট হাউসের বাইরে দাঁড়িয়ে মন্ত্র জপা লোকদের উদ্দেশে ট্রাম্প বলেন, ‘অসাধারণ মানুষ তারা। ভীষণ দেশপ্রেমিক।’ আর ওমর সম্পর্কে বলেন, ‘একটা কথা পরিষ্কার করে জানিয়ে দিচ্ছি, উনি ভাগ্যবান যে এখানে আসতে পেরেছেন।’

ওমর ছাড়া বাকি তিন নারী কংগ্রেস সদস্য স্পেন, আরব ও আফ্রিকান-আমেরিকান গোত্রীয়।

Comments

comments

Posted ৯:১৭ অপরাহ্ণ | শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com