সোমবার ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

ঈদগাঁওয়ে খেলার মাঠ দখল করে টমটমের গ্যারেজ

সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁও   |   রবিবার, ১৫ মে ২০২২

ঈদগাঁওয়ে খেলার মাঠ দখল করে টমটমের গ্যারেজ

কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের নতুন অফিস খেলার মাঠটি দখল করে দোকান আর টমটমের গ্যারেজ স্থাপন করেছে স্থানীয় এক নেতা। এছাড়া জনপ্রিয় এই খেলার মাঠটিতে এর আগেও অনেকে দখল করে গড়ে তুলেছে দোকাটপাটসহ নানা স্থাপনা।

স্থানীয়রা খেলার মাঠে ধান শুকানো থেকে শুরু করে সব কাজ করে তাই খেলার পরিবেশ পাচ্ছে না এলাকার ক্রীড়ামোদিরা।

বন বিভাগ এবং সদর ইউএনও অফিসে আবেদন করে অবৈধ টমটমের গ্যারেজ উচ্ছেদ করা হলেও আবারো বসিয়েছে সেই টমটমের গ্যারেজ। তাই দ্রুত খেলার মাঠটি রক্ষার দাবী জানান স্থানীয়রা।

দেখা গেছে, ঈদগাঁও উপজেলার ইসলাপুর এলাকার ফুটবল খেলার মাঠ হিসাবে পরিচিত মাঠে সম্প্রতি চায়ের দোকান এবং টমটমের গ্যারেজ স্থাপন করেছে ইসলামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন। মাঠ দখল করে তিনি দীর্ঘদিন ধরে দোকান ও টমটমের গ্যারেজ করায় সেই খেলার মাঠে আর ফুটবল খেলা হচ্ছে না বলে জানান স্থানীয়রা।

এছাড়া নুর জাহান নামের আরেক মহিলাও মাঠের পাশে দোকান করে সরকারি জমি দখল করেছে বলে জানান স্থানীয়রা। এছাড়া মাঠের উত্তর পাশে অনেকে সরকারি মাঠ দখল করেছে।

জানতে চাইলে স্থানীয় সাবেক খেলোয়াড় ও ক্রীড়া সংগঠক সরওয়ার কামাল বলেন, এই মাঠে আমি নিজেও খেলেছি, আমাদের এলাকার বড় ভাইরাও খেলেছে। এছাড়া জেলা এবং উপজেলা ফুটবল লীগের অনেক খেলাও এই মাঠে হয়েছে। সম্প্রতি মাঠের এক পাশে স্থানীয় এক যুবলীগ নেতা দোকানের সাথে টমটমের গ্যারেজ করেছে সেই কারনে মাঠের কর্ণারে ময়লা আবর্জনা আর নোংরা পরিবেশে ভরে থাকে।

তাছাড়া মাঠটি ছোট হয়ে যাওয়াতে এখন আর বড় ফুটবল খেলার আয়োজন করা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, এর আগেও মাঠের চার পাশে অনেকে দখল করে দোকান করেছে, ঘরবাড়ি করেছে ফলে আস্তে আস্তে মাঠ ছোট হয়ে গেছে।

সাবেক কৃতি ফুটবলার ছৈয়দ করিম বলেন, ইসলামপুর এলাকার নতুন অফিসের সেই মাঠটিতে আমাদের খেলাধুলার হাতেখড়ি হয়েছে। সেই মাঠ থেকে অনেক জাতীয় দলের ফুটবলার তৈরি হয়েছে। কিন্তু সেই মাঠে এখন আর ফুটবল খেলার পরিবেশ নেই। অনেকে মাঠ দখল করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছে। ফলে মাঠে আর খেলা হচ্ছে না। আমি ব্যক্তিগত ভাবে চাইবো যেন মাঠটিকে আগের পরিবেশে ফিরিয়ে এনে এলাকার যুব কিশোরদের খেলার পরিবেশ গড়ে তোলা হয়।

কক্সবাজার জেলা রেফারী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ঈদগাঁও রশিদ আহামদ কলেজের শিক্ষক আবদুল হামিদ বলেন, নতুন অফিসের সেই খেলার মাঠে আমি নিজে অনেক ম্যাচ খেলেছি। অনেক খেলা পরিচালনা করেছি। কয়েক বছর ধরে সেই মাঠে কোন খেলা হয়েছে বলে আমার জানা নেই। মূলত মাঠটি দখল হওয়ার কারণে আগের পরিবেশ নেই।

আমি যতুটুকু জানি মাঠটি বন বিভাগের জমিতে। এছাড়া প্রায় সময় সেখানে খেলার মাঠের উন্নয়নের জন্য সরকারি ভাবেও অনেক বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি স্থানীয় খেলোয়াড়রা মাঠ দখল মুক্ত করতে বন বিভাগ এবং ইউএনও অফিসে আবেদন করলে একবার উচ্ছেদ করা হয়। পরে আবারো সেই ব্যক্তি মাঠ দখল করেছে।

অভিযুক্ত ইসলামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো: জসিম উদ্দিন বলেন, আমি কোন সরকারি খেলার মাঠ দখল করিনি। মূলত আমি স্থানীয় মসজিদ কমিটি থেকে ভাড়া নিয়ে দোকান বা টমটমের গ্যারেজ করছি।

Comments

comments

Posted ৮:১৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৫ মে ২০২২

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com