রবিবার ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

দোহাজারী -কক্সবাজার রেললাইন দৃশ্যমানে অনিশ্চয়তা

ঈদগাঁও খালের ইজারাদারকে বালি উত্তোলন ও পরিবহনে বাধা!

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঈদগাঁও   |   শনিবার, ১০ নভেম্বর ২০১৮

ঈদগাঁও খালের ইজারাদারকে বালি উত্তোলন ও পরিবহনে বাধা!

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও খালের ইজারাদারকে বালি উত্তোলন ও পরিবহনে বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। যে কারনে প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার ভিত্তিক দোহাজারী-কক্সবাজার রেললাইন প্রকল্প সহসায় দৃশ্যমানে অনিশ্চয়তার আশংকা দেখা দিয়েছে। খালের ইজারাদার কাজী মোরশেদ আহমদ বাবু বলেন, উনু¥ক্ত ও প্রতিযোগিতামুলক দরপত্রের মাধ্যমে ঈদগাঁও খাল ইজারা নিয়েছি এবং সরকারী নিয়ম মেনে বেঁড়িবাধের যাতে কোনরুপ ক্ষতি না হয় সেভাবে বালু উত্তোলন ও পরিবহন করে আসছি। খাল থেকে বালু উত্তোলন ও পরিবহনের বিষয়টি ম্যানেজার আরিফুল ইসলাম দেখাশুনা করে আসছিলেন। উত্তোলিত বালির সবটুকুই প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রকল্প দোহাজারী-কক্সবাজার রেললাইন প্রকল্পে যাচ্ছে এবং কার্যাদেশপ্রাপ্ত চায়না সিভিল  ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড কন্সট্রাকশন কর্পোরেশন তাদের নিজস্ব ট্রাকে করে পরিবহন করে আসছে।
তিনি আরো জানান, বর্তমান সরকারের প্রত্যাশা অনুযায়ী এবং সরকারের মেয়াদকালের শেষ সময়ে হলেও যাতে প্রকল্পটি জনসমক্ষে দৃশ্যমান হয় সেলক্ষে আমরা রেল লাইনের রাস্তা নির্মাণ কাজ যাতে গতি পায় সেলক্ষে প্রকল্পে দ্রুত বালি সরবরাহ করে আসছি। এতে কু-দৃষ্টি পড়ে এলাকার একটি চাঁদাবাজ চক্র ও স্বার্থান্বেষী মহলের। তারা বিভিন্ন অজুহাতে ঈদগাঁও খাল থেকে বালি উত্তোলন ও পরিবহনে বারংবার বাধার সৃষ্টি এবং মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে আসছে। ইজারাদারের ম্যানেজার আরিফুল ইসলাম জানান, ২ ব্যক্তি তার নিকট হতে ঈদগাঁও খাল থেকে বালু উত্তোলন ও পরিবহন কাজের জন্য দীর্ঘদিন ধরে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে আসছে।
তিনি আরো জানান, তাদের কথামত চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে গত ৮ নভেম্বর বিকেলে ঐ ২ ব্যক্তির নেতৃত্বে অজ্ঞাতনামা আরো ১০/১২ জন বালু উত্তোলনে বাধা দেন, শ্রমিকদের অশ্রাব্য ভাষায় গালমন্দ করেন এবং বালির ট্রাক আটকে দেয়। পরে ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশের সহায়তায় বালির গাড়িগুলো মুক্ত করা হয়। খাল ইজারাদার কাজী মোরশেদ আহমদ বাবু চাঁদাবাজদের হাত থেকে নিষ্কৃতি পেতে এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। অপর একটি সূত্রে জানা গেছে, ঈদগাঁও নদী থেকে বালি উত্তোলনের উম্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে ইজারা হলেও ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালি উত্তোলনের কোন অনুমতি নেই।

Comments

comments

Posted ১:২২ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১০ নভেম্বর ২০১৮

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com