বৃহস্পতিবার ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

উখিয়ার ৬ গ্রামের মানুষের ভরসা হিজলীয়া খালের বাঁেশর সাকো

রফিক উদ্দিন বাবুল, উখিয়া   |   মঙ্গলবার, ৩০ অক্টোবর ২০১৮

উখিয়ার ৬ গ্রামের মানুষের ভরসা হিজলীয়া খালের বাঁেশর সাকো

উখিয়ার প্রানকেন্দ্র রাজাপালং ইউনিয়নের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া হিজলীয়া খালের বাঁেশর সাকো দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে ৬ গ্রামের প্রায় ১২ হাজার মানুষ। খালের উপর একটি ব্রীজ নির্মানের জন্য এলাকাবাসী প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন নিবেদন করেও কোন কাজ হয়নি। অবশেষে স্থানীয়রা নিজস্ব উদ্যোগে এ বাঁশের সাকোটি তৈরি করে চলাচল করছে। গ্রামবাসী জানান, এ সাকোটি যে কোন সময়ে ভেঙ্গে পড়ে প্রানহানির মতো ঘটনা ঘটতে পারে। যেহেতু রেজু খালের সাথে সংযুক্ত এ খালটি বর্ষাকালে পাহাড় থেকে নেমে আসা পানির ঢলে নড়বড়ে হয়ে গেছে।
সরজমিন ঘটনাস্থল রাজাপালং উত্তর পুকুরিয়া বাইতুল মামুর জামে মসজিদ সংলগ্ন বাঁশের সাকো প্রত্যক্ষ করে স্থানীয় গ্রামবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, এ সাকোটি স্থানীয়রা নিজস্ব অর্থায়নে তৈরি করেছে। আসা যাওয়ার বিকল্প কোন পথ না থাকায় গ্রামবাসী ইতিপূর্বে সংসদ সদস্যসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করে একটি ফুটব্রীজ নির্মানের দাবী জানালেও কোন কাজ হয়নি। বাঁেশর সাকো সংলগ্ন এলাকার ব্যবসায়ী ছৈয়দ আকবর জানান, এ সাকোর উপর দিয়ে উত্তর পুকুরিয়া, দক্ষিন পুকুরিয়া,তেলী পাড়া, কামারিয়ারবিল, পূর্ব রতœাপালং ও ভালুকিয়াসহ ৬ টি গ্রামের স্কুল কলেজ মাদ্রাসা গামী শিক্ষার্থীসহ প্রায় ১৫ হাজার মানুষ যাতায়ত করছে। সুস্ক মৌসুমে সাকো পারাপারে তেমন কোন ঝুঁকি না থাকলেও বর্ষাকালে পাহাড়ি ঢলের ¯্রােতে শিক্ষার্থীদের সেতু পারাপারের বিপদজনক মনে করে অধিকাংশ অভিভাবক তাদের ছেলে মেয়েদের স্কুল কলেজে যাওয়া আসা বন্ধ করে দেয়। স্থানীয় ইউপি সদস্য সালাহ উদ্দিন জানান, বাশের সাকোর স্থলে একটি ফুটব্রীজ নির্মানের আবেদনের প্রেক্ষিতে উখিয়া উপজেলা প্রকৌশলীর দায়িত্বরত ৩ জন উপসহকারী প্রকৌশলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিমাপ করে যাওয়ার পর আর দেখা মেলেনি। এব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে উপসহকারী প্রকৌশলী সোহরাব হোসেন জানান, হিজলীয়া খালের উপর একটি ফুটব্রীজ নির্মানের প্রাককলন তৈরি করে উর্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে প্রেরন করা হয়েছে। বরাদ্ধ আসলে টেন্ডার আহবানের মাধ্যমে ঠিকাদার নিয়োগ করে কাজ শুরু করা হবে।

Comments

comments

Posted ২:০১ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ৩০ অক্টোবর ২০১৮

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com