রবিবার ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম
ভোটের প্রতি আগ্রহ নেই ভোটারদের

উখিয়ায় শুধু ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন

শফিক আজাদ,উখিয়া   |   রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯

উখিয়ায় শুধু ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন

আজ ২৪ মার্চ তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উখিয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচন। নানা নাটকীয়তায় প্রার্থীদের মাঝে যেমন হতাশা বিরাজ করছে, তেমনি ভোটাররা ভোট দেয়ার আমেজ নেই। আবার অনেক ভোটার যারা কোন তারিখ ও ঠিক ভাবে বলতে পারছেন না । বিশেষ করে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় উপজেলা চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এরই মধ্যে নির্বাচিত হয়েছেন। শুধুমাত্র পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আজ। এ লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসন ব্যাপক প্রস্তুতি হাতে নিয়ে শনিবার পুলিশ,আনসার,পোলিং, সহকারী প্রিজাইটিং এবং প্রিজাইটিংদের প্রতিটি কেন্দ্রে পৌছানো হয়েছে। এছাড়াও সার্বক্ষণিক আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে দুই প্লাটুন বিজিবি ও প্রতি ইউনিয়ন একজন করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রের্ট দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সহকারি রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরী।
এরই মধ্যে গত শুক্রবার কোটবাজার জনসভায় ঘোষণা দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাড়ালেন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল হুদা। তার আগে প্রশাসনের পক্ষপাত আচরণের আশঙ্কায় আরেক ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী রুহুল আমিন মেম্বার নির্বাচন থেকে সরে দাড়ান। এদিকে মাহবুব আলম মাহবুবও ভোট কারচুপির ও অনিয়মের আশঙ্কা করে নির্বাচন নিয়ে তার বাসভবনে এরই মধ্যে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন। মন্ত্রী পরিষদ সচিবের আতœীয়ের সুবাদে জাহাঙ্গীরের পক্ষে প্রশাসন পক্ষপাত মূলক আচরণ না করলে মাহবুব তার বিজয় সুনিশ্চিত বলে মনে করছেন। অপরদিকে অধ্যাপক এ, আর, জিহান চৌধুরী তার বিজয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশা প্রকাশ করছেন।
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে হাজির পাড়া এলাকার ভোটার মোস্তফা বেগম, জানে আলম ও খয়রাতি পাড়া এলাকার ভোটার শাহ আলমের সাথে কথা হলে তারা কয় তারিখে ভোট তাও জানেন না। বয়োবৃদ্ধ ও তরুণ ভোটারদের অনেকেই ভোট দেয়ার প্রয়োজন আছেন বলে মনে করছেন না। রতœা পালং ইউনিয়নের ভোটার মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, গত জাতীয় নির্বাচনে তারা ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারেন নি। তাই ভোট দিতে যাওয়ার প্রস্তুতি নেই। এবার উপজেলা নির্বাচনেও অনেকেই ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে এই প্রতিবেদককে একাধিক ভোটার জানিয়েছেন। গোরাইয়ারদ্বীপ এলাকার ভোটার জাহাঙ্গির, ইসমাঈল ও ছৈয়দ আলম বলেন, নির্বাচনের কিছু আমেজ ছিল ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল হুদা নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানোর কারনে সেই আমেজ নষ্ট করে ফেলেছে। স্থানীয় এবং জাতীয় নির্বাচনে ভোটারদের মাঝে যে আনন্দ উপলব্দি করা যেতো তা এখন হারিয়ে গেছে। প্রশাসন আন্তরিক না হলে এ ধরনের আগামীতেও কোনো ভোটার রোদ্রে পুড়ে আর বৃষ্টিতে ভিজে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে যে ভোট প্রদান করতো তা আর হবে না। ভোটার না গেলেও যেন নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয় এমনটায় প্রত্যাশা করছেন সাধারণ মানুষ।নির্বাচনের ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে সহকারি রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরী বলেন অবাধ, সুস্থু নির্বাচন উপহার দেওয়ার জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। উপজেলার ৫ ইউনিয়নের ৪৫টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে প্রতিটি কেন্দ্রে ২জন সশস্ত্র পুলিশ, ১২জন আনসার দেওয়া হয়েছে। বিজিবি ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রের্ট রয়েছে প্রতিটি ইউনিয়ন একজন করে। এছাড়াও স্ট্রাইকিং ফোর্স রাখা হয়েছে প্রতি ইউনিয়নে।

Comments

comments

Posted ২:০২ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com