• শিরোনাম

     ইয়াবা কারবারিরা গতকালও সাংবাদিকের ঘরে হামলার চেষ্টা করেছে

    উখিয়ায় সংবাদকর্মীর উপর হামলায় ইয়াবা কারবারীদের বিরুদ্ধে মামলা

    নিজস্ব প্রতিনিধি উখিয়া       | ২২ জুলাই ২০১৯ | ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ

    উখিয়ায় সংবাদকর্মীর উপর হামলায় ইয়াবা কারবারীদের বিরুদ্ধে মামলা

    উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের গয়ালমারা এলাকার বাসিন্দা ও জেলার শীর্ষ স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক আজকের দেশবিদেশের উখিয়াস্থ নিজস্ব প্রতিনিধি রফিক মাহামুদের উপর ইয়াবা কারবারিদের পরিকল্পিত হামলার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এদিকে শনিবার রাতের হামলার ঘটনার পর গয়ালমারা গ্রামের ইয়াবা ডন মিজান ও আতিক গতকাল রবিবার সকালেও তাদের লোকজন নিয়ে সাংবাদিক রফিক মাহামুদকে হত্যার উদ্দেশ্যে খোঁজাখুঁজি করেছে।
    সংঘবদ্ধ কারবারিরা সাংবাদিক রফিকের ঘরে গতকাল সকালে আরো এক দফা হামলার চেষ্টা করে। এসময় তিনি ঘরে ছিলেন না। ঘরে রফিকের মা একা ছিলেন। কারবারির দল ঘরে তাকে না পেয়ে তার মাকে অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করে এই বলে যে-‘শালার পুতের সাহসতো কম নয়, আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করার সাহস পেল কোথায় ? এমনকি ফেসবুকে  এবং পত্রিকায় তার মারধরের ছবি কেন প্রকাশ করা হল ? আমরা সাংবাদিক রফিককে দেখিয়ে ছাড়ব। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা করব।’ 
    পালংখালীর গয়ালমারা গ্রামের মৃত রুস্তম আলীর দুই স্ত্রীর ৮ জন সন্তান রয়েছে। তন্মধ্যে একজন প্রতিবন্ধি ছাড়া বাদবাকি পরিবারের সবাইর বিরুদ্ধে কারবারের অভিযোগ রয়েছে। মৃত রুস্তম আলীর পুত্র আতিকুর রহমান কয়েকমাস আগে বিশ হাজার ইয়াবা নিয়ে চট্টগ্রামে ধরা পড়ে। তাও কারবারি আতিক গিলে ফেলে পেটে নিয়েই একেবারে বিশ হাজার ইয়াবা চট্টগ্রাম নিয়ে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েন। বেশ কয়েকমাস কারাগারে থাকার পর গত এক মাস আগে কারবারি আতিক জামিনে বেরিয়ে আসে। জামিনে আসার পরই গয়লমারা এমএসএফ হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় নিজের দোকানে বসেও কারবার চালিয়ে যাচ্ছে।
    শনিবার সাংবাদিক রফিক ওই কারবারির দোকানে গেলে ইয়াবা কারবার না করার অনুরোধ জানান তিনি। এমন কথায় কারবারি আতিক ক্ষীপ্ত হয়ে তার অন্যান্য ইয়াবা কারবারি ভাইদের ডেকে রফিককে হত্যার উদ্দেশ্যে কিরিচ ও লোহার রড নিয়ে হামলে পড়েন। স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করে। শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার উপর এই হামলা চালায় ইয়াবা কারবারির দল। এই ঘটনায় রফিক মাহামুদ বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো বেশ কয়েক জনকে আসামী করে উখিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।  যার নং-৩৪, তাং-২১/০৭/২০১৯ইং।
    মামলার আসামীরা হলেন, গয়ালমারা এলাকার মৃত রুস্তম আলীর ছেলে পালংখালীর শীর্ষ ইয়াবা কারবারি মিজানুর রহমান (৩০), তার ছোট ভাই আতিকুর রহমান (২৮), তৌহিদুল ইসলাম (২২) মোঃ ইসমাইল (১৮) তাদের নিকট্মীয় তৈয়বা বেগম (৩০) সহ অন্যান্যরা।
    উখিয়ার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবুল মনসুর জানান, সংবাদকর্মীর উপর হামলার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে থানায় মামলার দায়ের করা হয়েছে। হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
    এদিকে সাংবাদিক রফিক মাহামুদ অভিযোগ করে বলেন, শনিবার রাতের পর থেকে তার উপর হামলাকারী ইয়াবা কারবারীরা তার পরিবারের লোকজনকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধমকি দিয়ে যাচ্ছে। এমনকি মামলায় যারা স্বাক্ষী দিয়েছেন তাদেরকেও হুমকি-ধমকি দিচ্ছে । যার ফলে তার পরিবার, স্বাক্ষী এবং তিনি নিজেই চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন বলে জানিয়েছেন।
    প্রসঙ্গত, নাফ নদীর তীরবর্তী ইয়াবার দ্বিতীয় প্রবেশপথ হিসাবে পরিচিত পালংখালী ইউনিয়নের সীমান্ত দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবার চালান ফ্রিষ্টাইলে পাচার হলেও আইন শৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত লোকজন কার্যকর পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হন বলে অভিযোগ রয়েছে। এমনকি ইউনিয়নটির ৯ জন মেম্বারের মধ্যে ৮ জনই কারবারে জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ