শনিবার ২৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

একটি ফোন কলেই কাল হলো ব্যবসায়ী লতিফের

মুকুল কান্তি দাশ, চকরিয়া   |   মঙ্গলবার, ০৪ জানুয়ারি ২০২২

একটি ফোন কলেই কাল হলো ব্যবসায়ী লতিফের

মো. লতিফ উল্লাহ। বয়স ৩৬। চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার আধুনগর ইউনিয়নের সুফি মিয়াজী পাড়ার মৃত মোহাম্মদ ইলিয়াছ সওদাগরের ছেলে। তিনি চকরিয়া পৌরশহরের চুনতি ষ্টোরের মালিক মো.শরাফত উল্লাহর ছোট ভাই।

ব্যবসায়ীক সুত্রে দীর্ঘদিন ধরে তিনি কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরশহরে সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় সড়কে বসবাস করে আসছিলেন। ওই সড়কেই দোকান ঘর ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন কোম্পানীর এজেন্টের পাশাপাশি বিকাশের ব্যবসাও করতেন।

আচার-ব্যবহারে খুবই অমায়ক বলে জানিয়েছেন তার সাথে ব্যবসায় সম্পৃক্ত এমন লোকজন। তবে এতকিছুর পরও দুর্বৃত্তরা তাকে বাঁচতে দেয়নি।
নিহত লতিফের ভাগিনা মো. মারুফুল ইসলাম জানান, প্রতিদিনের মতো গতকাল সোমবার রাত ৯টার দিকে দোকান বন্ধ করে মামা আর আমি বাসায় চলে আসি। এদিন আনুমানিক রাত ১০ টার দিকে আমার মামা বাসায় ভাত খাচ্ছিলেন। এসময় তার মোবাইলে একটি কল আসে। এই কল পেয়েই মামা দ্রæত খাওয়া শেষ করে বাসা থেকে বের হয়ে দোকানে যান। ঘটনার পর পার্শ্ববর্তী দোকানদারের মাধ্যমে জানতে পারি মামাকে কুপিয়ে পালিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত। পরে তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তবে দুর্বৃত্তরা মামার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারটি কৌশলে নিয়ে যায়।

কান্না জড়িত কন্ঠে তিনি আরও বলেন, দোকানে টাকাও ছিলো। ওইসময় দুর্বৃত্তরা দোকানের ক্যাশবাক্স থেকে টাকা লুট করে পালিয়ে যায় বলেও তিনি জানান। গতকাল মঙ্গলবার বাদে আছর নিজ এলাকার ছোট ও বড় মিয়াজী পাড়া জামে মসজিদের মাঠে লতিফের জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

মঙ্গলবার ৪ ডিসেম্বর বিকালে ব্যবসায়ী লতিফের লাশ নিজ বাড়িতে নিয়ে গেলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। এসময় তার আত্মীয় স্বজন, বন্ধু-বান্ধবরা কান্নায় ভেঙে পড়েন। বাবাকে কফিনবন্দি দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন দুই মেয়ে লাবিবা ও রাকিকাত। তাদের আহাজারিতে চারপাশ শোকে ভারি হয়ে ওঠে।

চকরিয়া ওয়েষ্টার্ন প্লাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি যুবনেতা আজিজুল হক বলেন, লতিফের সাথে কারো পূর্ব শ্রত্রæতা ছিল না। কি কারণে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে বুঝে উঠতে পারছেন না কেউ। এ ধরনের হত্যাকান্ড কিছুতেই মেনে নেয়া যায়না। আমরা দ্রুত আসামীদের গ্রেপ্তার দাবি করছি।

তিনি আরও বলেন, চকরিয়ার ব্যবসায়ী সমিতির সিদ্ধান্তক্রমে ব্যবসায়ী লতিফ উল্লাহ হত্যার প্রতিবাদে আগামীকাল বুধবার সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পৌরশহরে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়েছে। মানববন্ধন শেষে প্রশাসনের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, মঙ্গলবার দুপুরে ব্যবসায়ী মো.লতিফ উল্লাহ হত্যাকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.রফিকুল ইসলাম। এসময় সাথে ছিলেন চকরিয়া-পেকুয়া সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার (এএসপি) তফিকুল আলম, চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনিসহ পুলিশের কর্মকর্তারা।

এসময় কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.রফিকুল ইসলাম বলেন, এই হত্যাকান্ডের সাথে যারাই জড়িত থাকুকনা কেন তাদের দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় আনা হবে। আসামী গ্রেপ্তারে পুলিশের পাশাপাশি অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও কাজ করছে।

Comments

comments

Posted ১০:০১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৪ জানুয়ারি ২০২২

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com