• শিরোনাম

    নাইক্ষ্যংছড়ি’র প্রাথমিক শিক্ষার আমূল পরিবর্তন

    এক যুগে ৫৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপন সম্পন্ন

    শফিক আজাদ,উখিয়া | ১৮ জুলাই ২০১৮ | ১১:১৯ অপরাহ্ণ

    এক যুগে ৫৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপন সম্পন্ন

    রেজুগর্জনবনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপন করছেন শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীরা।

    সারাদেশ ব্যাপী সরকার ঘোষিত জাতীয় বৃক্ষরোপন কর্মসূচী-২০১৮ এ ৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরনে ৩০ লক্ষ বৃক্ষরোপন কর্মসূচীর আওতায় এক যুগে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় ৫৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। সুযোগ্য উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবু আহমেদ এর সার্বিক মনিটরিংয়ের ফলে যথাযথ ভাবে এই জাতীয় কর্মসূচী পালিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষকেরা।

    জানা গেছে, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবু আহমেদ যোগদানের পূর্বে এখানকার শিক্ষা ব্যবস্থা অত্যান্ত নাজুক ছিল। পালাক্রমে স্কুল করত দুর্গম এলাকার শিক্ষকেরা। সমাপনী পরীক্ষায় পাশের হার ছিল জেলার সর্ব নিচে। কিন্তু তিনি যোগদানের পর থেকে বিগত ৩ বছর নাইক্ষ্যংছড়ির পিএসসির পাশের হার জেলার প্রথম। শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে এসেছে আমূল পরিবর্তন। যেকোন জাতীয় ও সরকার ঘোষিত কর্মসূচী যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয়ে থাকে নাইক্ষ্যংছড়িতে।

    নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষক বলেন, আমাদের শিক্ষা অফিসার আবু আহমেদ এ উপজেলায় যোগদানের পর থেকে উপজেলা ৫৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সার্বিক উন্নয়ন হয়েছে। নাইক্ষ্যংছড়ি শিক্ষা অফিস সংলগ্ন এলাকায় নবনির্মিত শিশু পার্ক তার সৃজনশীল মানষিকতার বর্হিপ্রকাশ। তিনি একজন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান হিসেবে তার দেশপ্রেম রয়েছে। যার ফলে স্কুল ভবন নির্মাণে কোন প্রকার অনিয়ম,দুর্নীতি ছাড় দিতে নারাজ। একই কথা নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার শিক্ষক,পেশাজীবি,সচেতনমহল ও সুশীল সমাজের।

    বৃক্ষরোপন কর্মসূচি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবু আহমেদ বলেন, বর্তমান সরকার পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ও দেশকে চির সবুজের দেশে রূপান্তরিত করতে এটি একটি যুগান্তকারী প্রদক্ষেপ। দেশে দিন দিন হারিয়ে যাচ্চে নানা প্রজাতির গাছ-পালা ও চির সবুজ বনায়ন। অবাধে গাছ কাটা ও পাহাড় নিধনের ফলে প্রাকৃতিক ভারসাম্য হারিয়ে যাওয়ায় বেড়ে যাচ্ছে পরিবেশ দূষণ, বাড়ছে ঘূর্ণিঝড় ও জ্বলোচ্ছাসের মতো প্রাকৃতিক দূর্যোগ। দেশকে চির সবুজের দেশ গড়তে জননেত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়।

    তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ৩০ লক্ষ শহীদের স্মৃতি চিরসবুজ করে রাখার জন্য দেশে ৩০ লক্ষ বৃক্ষরোপন করা বিরল দৃষ্টান্ত। এ কর্মসূচির মাধ্যমে নতুন প্রজন্ম দেশে স্বাধীনতার সংগ্রামে আত্মত্যাগকারী শহীদদের স্মরণ, দেশপ্রেম ও আত্মত্যাগে উদ্বুদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি পরিবেশ দূষণে বিপন্ন পৃথিবীকে রক্ষায় অংশ নেবে। জাতীয় ভাবে সারাদেশে একযুগে বৃক্ষরোপন পালনে সরকারের গৃহীত সিদ্ধান্তকে তিনি স্বাগত জানান

    দেশবিদেশ /১৮ জুলাই ২০১৮/নেছার

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ