মঙ্গলবার ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

কক্সবাজারে আক্রান্ত ৫৮ জন লকডাউনের তৃতীয় দিনে আগের চেহারায় শহর

তারেকুর রহমান   |   বৃহস্পতিবার, ০৮ এপ্রিল ২০২১

কক্সবাজারে আক্রান্ত ৫৮ জন লকডাউনের তৃতীয় দিনে আগের চেহারায় শহর

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সতর্কতা হিসেবে সোমবার (০৫ এপ্রিল) থেকে শহরে লকডাউন কার্যকরের পর প্রথম দিন থেকে প্রশাসনের কড়াকড়ি থাকলেও লকডাউন মানার ক্ষেত্রে লোকজনের মধ্যে অনিহা ও স্বাভাবিকতা দেখা গেছে। ফলে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ।

কক্সবাজার পরীক্ষা ল্যাবে গতকাল মোট ৬৩৮ জনের করোনা পরীক্ষায় ৫৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে সদরে ২৬ জন, রামুতে ৩জন, উখিয়ায় ১৪ জন, টেকনাফে ৪ জন, চকরিয়ায় ৬ জন, কুতুবদিয়ায় ১ এবং মহেশখালীতে ৩ জন। এছাড়া ৩ এপ্রিল ছিল ৫৯ জন, ৪ এপ্রিল ৬২ জন, ৫ এপ্রিল ৮২ জন, ৬ এপ্রিল ৮১ জন আর ৭ এপ্রিল ৫৮ জন। এ তথ্য নিশ্চিত করেন কক্সবাজার মেডিকেলে কলেজের ট্রপিক্যাল মেডিসিন ও সংক্রমক ব্যাধী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শাহজাহান নাজির।

প্রথম দিন দোকানপাট বন্ধ থাকলেও লোকজনের চলাফেরা স্বাভাবিক ছিল। দ্বিতীয় দিনে সীমিত পরিসরে দোকানপাট খুলে বেচা বিক্রি হয়েছে। লকডাউনের তৃতীয় দিনে এসে ঠিক আগের চেহারায় দেখা গেল পর্যটন নগরী কক্সবাজার শহরকে।

সাত দিন লকডাউনের প্রথম দুদিনের দিনের চেয়ে তৃতীয় দিন মোটরচালিত গাড়ি ও মানুষ চলাচল বেড়েছে। দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকলেও সিএনজি, ইজিবাইক (টমটম), ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা ও ব্যক্তিগত মোটর যান অবাধে চলছেই।

বুধবার (৭ এপ্রিল) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন অলিগলি ঘুরে এমন দৃশ্য চোখে পড়েছে। অনেকেই জড়ো হয়ে আড্ডা দিচ্ছে, কুলিং কর্ণার ও টং গুলোতে চায়ের চুমুক তুলছে। তবে শহরের শপিং মলগুলো শাটার অর্ধেক খোলা বেচা বিক্রি করছে। স্বাস্থ্যবিধির দিকে নজর না দিয়েই সেসব শপিং সেন্টারে পণ্য কিনছেন লোকজন। ওষুধের দোকান, ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান খোলা রয়েছে।

এদিকে সমুদ্রসৈকতের কবিতা চত্বর, লাবণী পয়েন্ট, সী-গাল পয়েন্ট, সুগন্ধা পয়েন্ট ও কলাতলী পয়েন্ট বন্ধ রয়েছে। পর্যটকশূন্য সমুদ্রসৈকতে টহল দিচ্ছে ট্যুরিস্ট পুলিশ। হোটেল-মোটেল এলাকায় তেমন ভিড় চোখে পড়েনি। তবে কিছু সংখ্যক দোকানপাট খোলা রয়েছে।

লকডাউন কার্যকর করতে মাঠে রয়েছে জেলা প্রশাসনের নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ। জনসমাগম ঠেকাতে তাদের চেষ্টা অব্যাহত। সংক্রমণের উর্ধ্বগতি কমাতে সাত দিনের লকডাউন কার্যকরে জেলা প্রশাসনের চারটি টিম ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

অপ্রয়োজনে ঘরের বাইরে অবস্থানরতদের ঘরে ফিরে যেতে মাইকিং হচ্ছে প্রতিদিন।

Comments

comments

Posted ১১:১৫ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৮ এপ্রিল ২০২১

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com