শনিবার ২৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

কক্সবাজারে ১৪৪ ধারা: অন্য জায়গায় বিএনপির সমাবেশের চেষ্টায় প্রশাসনের বাধা

তারেকুর রহমান   |   সোমবার, ০৩ জানুয়ারি ২০২২

কক্সবাজারে ১৪৪ ধারা: অন্য জায়গায় বিএনপির সমাবেশের চেষ্টায় প্রশাসনের বাধা

কক্সবাজারে একই স্থানে ডাকা বিএনপি ও যুবলীগের সমাবেশকে ঘিরে ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।

১৪৪ ধারা জারি করা এলাকার বাইরে গিয়ে বিএনপি সমাবেশ করতে চাইলে সেখানেও বাধা দেয় পুলিশ।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) ভোর ৬টা থেকে
১৪৪ ধারা বাস্তবায়নে হার্ডলাইনে রয়েছে
পুলিশ ও অনান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

এদিকে ১৪৪ ধারা জারি করা নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে গিয়ে সমাবেশ বাস্তবায়নের জন্য কক্সবাজার ঈদগাহ ময়দানে বিএনপির নেতাকর্মীরা জড়ো হয়। সেখানে ঘন্টা খানেক অবস্থান করে সমাবেশ করতে চাইলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গিয়ে গনজমায়েত ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

সমাবেশ করার জন্য ঈদগাহ ময়দানে উপস্থিত হন প্রধান অতিথি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুসহ অন্যান্য নেতারা। এসময় বক্তব্য রাখেন নেতারা। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের সেখান থেকে সরিয়ে দেন।
এসময় সড়কে নেমে বিচ্ছিন্ন বিক্ষোভ করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

সমাবেশের জন্য ঈদগাহ ময়দানে জড়ো হয় বিএনপি নেতৃবৃন্দ

জড়ো হয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘রাতের আঁধারে ভোট কারচুপি ক্ষমতায় আসায় জনগণের প্রতি সরকারের আস্থা নেই। তাই বিএনপির সাংবিধানিক অধিকারও হরণ করছে তারা।’

জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান বলেন, ‘সরকার মানুষের সব গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আমাদের পূর্ব নির্ধারিত জনসভাস্থলে যুবলীগের কর্মসূচি দেওয়া তাদের হীনমানসিকতার বহিঃপ্রকাশ। জনসভা করতে না পেরে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা শহরের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ মিছিল করছে। এছাড়া বিভিন্ন উপজেলা থেকে পথসভায় আসার পথে বাধাপ্রাপ্ত নেতা-কর্মীরা উপজেলা শহরেও বিক্ষোভ মিছিল করছে।
অন্যদিকে জেলা যুবলীগ পূর্ব নির্ধারিত সমাবেশ শহীদ দৌলত ময়দানে করবে জানিয়েছে।’

ঈদগাহ ময়দানে সমাবেশের জন্য বিএনপির প্রস্তুতি

জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর বলেন, ‘১৪৪ধারাকে মেনে নিয়ে আমরা পূর্বনির্ধারিত শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ থেকে সমাবেশ সরিয়ে নিয়েছি। আমরা অন্য স্থানে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সমাবেশ করার জন্য জড়ো হওয়ার চেষ্টা করে বিএনপি। থমথমে পরিস্থিতিতে বিএনপি নেতাকর্মীদের সরিয়ে দেয়া হয়েছে।’

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ান বলেন, ‘বিএনপির সমাবেশের জন্য কোনো স্থানের অনুমতি নেই। কিন্তু বিএনপি সমাবেশ করার চেষ্টা করছে। তাই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।’

Comments

comments

Posted ১:০৮ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৩ জানুয়ারি ২০২২

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

(411 বার পঠিত)

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com