• শিরোনাম

    করোনা ভাইরাস ঝুঁকি: শহর জুড়ে জনসমাগম

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২২ মার্চ ২০২০ | ১০:২১ অপরাহ্ণ

    করোনা ভাইরাস ঝুঁকি: শহর জুড়ে জনসমাগম

    শহরের আদালত চত্ত¡রে মানুষের সমাগম। ২২ মার্চ দুপুর ১২টায় ধারণ করা ছবি

    নভেল করেনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর ঝুঁকিতে রয়ে গেছে পর্যটন শহর কক্সবাজার। শহরের বিভিন্ন স্থানে মানুষের জটলা হয়ে থাকা এর অন্যতম কারণ। এই জটলার মধ্যে কেউ যদি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন। দ্রæত তা পুরো শহর এমনকি জেলাতে ছড়িয়ে পড়বে।
    গত কয়েকদিন ধরে শহরের বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে, অধিকাংশ মানুষ করোনা ভাইরাসের ব্যাপারে সচেতন হচ্ছে। তবে, স্বল্প সংখ্যক মানুষ রয়েছেন। যারা এই ভাইরাসের ভয়াবহতাকে তুচ্ছ মনে করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। অনেকেই দল বেঁধে আড্ডাও দিচ্ছেন। যাঁদের কেউ আক্রান্ত হলেই খুব দ্রæত নভেল করোনা ভাইরাস পুরো জেলায় মহামারির রূপ ধারণ করবে।
    শহরের অন্যান্য স্থানের তুলনায় বাস টার্মিনাল, হাসপাতাল সড়ক, বড় বাজার, পানবাজার, কোর্ট বিল্ডিং প্রাঙ্গন, ফিশারিঘাট, গোলদিঘির পাড়, বাহারছড়া বাজারের মতো এলাকাগুলো এখনো জনসমাগমপূর্ণ। শহরের গুরুত্বপূর্ণ এসব এলাকায় সকাল থেকে রাত পর্যন্ত এখনো জনসমাগম দেখা যায়। যদিও মানুষ বিশেষ প্রয়োজনে উল্লিখিত এলাকাগুলোতে আসেন। কিন্তু করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে যে সচেতন মেনে চলা প্রয়োজন তা মানছেন না।
    শুধু শহরের একাধিক এলাকা নয়। গণপরিহন হিসেবে বহুল ব্যবহৃত টমটমগুলোও করোনা ভাইরাসের নির্দেশনা অনুসরণ করছে না। প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক যাত্রী টমটমে চড়ে শহরের একস্থান থেকে অন্য স্থানে যাতায়াত করছেন। রীতিমতো একজনের শরীর ঘেঁষে অন্যজন বসেই তাঁরা টমটমযোগে যাতায়াত করছেন। বাস টার্মিনালে যাতায়াতকারী দূরপাল্লার যানবাহনগুলোর অবস্থাও একই।
    তবে, এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম শহরের কলাতলী এবং বার্মিজ মার্কেট এলাকা। প্রশাসনের কঠোর পদক্ষেপের কারণে ইতোমধ্যে পর্যটকরা কক্সবাজার ত্যাগ করেছেন। ফলে কলাতলীর হোটেল-মোটেল জোন এলাকা এখন প্রায় ফাঁকা। অন্যদিকে, পর্যটকদের নিয়েই ব্যবসা পরিচালনা করেন বার্মিজ মার্কেটের দোকানদাররা। পর্যটক নেই তাই গত কয়েকদিন ধরে বার্মিজ মার্কেটের অধিকাংশ দোকানদারই নিজেদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছেন।
    এদিকে, উদ্ভুত পরিস্থিতিতে গতকাল ২২ মার্চও শহরের বিভিন্নস্থানে সচেতনতামূলক মাইকিং করেছে কক্সবাজার পৌরসভা। পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও সচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করা হয়।
    এসব কর্মসূচিতে জরুরী প্রয়োজন ছাড়া মানুষকে ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। এমনকি হাঁচি, কাশি, জ¦র নিয়ে মসজিদসহ ধর্মীয় উপাসনালয়ে না যাওয়ারও আহবান জানানো হয়।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ