• শিরোনাম

    সদর-রামু আসনের সংসদ সদস্য কমলের নির্দেশ উপেক্ষিত

    গোমাতলী বেইলি ব্রিজের বেহাল দশা,ঘটছে দুর্ঘটনা

    সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁহ | ০৬ আগস্ট ২০১৯ | ১২:৪৪ পূর্বাহ্ণ

    গোমাতলী বেইলি ব্রিজের বেহাল দশা,ঘটছে দুর্ঘটনা

    কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁহ-গোমাতলী সড়কের স্টিলের বেইলি ব্রিজ দীর্ঘদিন সংস্কারবিহীন অবস্থায় পড়ে রয়েছে। প্রতিদিনই ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। এতে করে পোকখালী ইউনিয়নের গোমাতলী এলাকার মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।
    জানা যায়, কক্সবাজার জেলা শহরে যাতায়াতের সহজ মাধ্যম হচ্ছে এই সড়ক। জেলা সদরে প্রতিদিন যাত্রীবাহী ও মালবাহী যানবাহন চলাচল করে সড়কে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ছাড়াও ব্যবসায়ীরা এ সড়কের বেইলি ব্রিজ দিয়ে যাতায়াত করেন। কিন্তু হালকা ও ভারী যানবাহন চলাচল করায় বেইলি ব্রিজটি দিনদিন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ছে। যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কাকে উড়িয়ে দিচ্ছেন না এলাকাবাসী।

    সম্প্রতি কক্সবাজার সদর-রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল বেইলি ব্রিজটি পরিদর্শন শেষে দ্রুত ব্রিজটি সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। কিন্তু সেই নির্দেশ উপেক্ষিত। এ পর্যন্ত কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি কর্তৃপক্ষ। প্রতিদিনই বেইলি ব্রিজের স্টিলের ভাঙা পাটাতন দিয়ে সিএনজি, অটোরিকশা, ইজিবাইক, মোটরসাইকেল ও হালকা যানবাহন চলাচল করছে। যেকোনো সময় বড় দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। সরেজমিন দেখা গেছে, বেইলি ব্রিজটি বর্তমানে যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় ব্রিজটি মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিনই পথচারীসহ বিভিন্ন যানবাহন ও যাত্রীরা চলাচল করছে। জরাজীর্ণ বেইলি ব্রিজের লোহার পাটাতন (স্লিপার ) ভেঙে যাত্রী ও পণ্যবাহী গাড়ি আটকে গিয়ে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। ব্রিজের উপর অধিকাংশ সময় বিকল হচ্ছে ছোট-বড় অনেক যানবাহন।

    পোকখালী ইউপির ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার কলিম উল্লাহ বলেন, জনস্বার্থে ঈদগাঁহ-গোমাতলী সড়কটি সংস্কার করা হয়েছে। কিন্তু বেইলি ব্রিজটি নির্মাণে আশ্বাস ছাড়া কিছুই মিলছে না। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কক্সবাজারের অধীনে অন্তত ২৪ বছর পূর্বে বেইলি ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছিল। প্রায় দুই যুগ পেরিয়ে গেলেও এটি সংস্কার বা পুননির্মানের কোনো উদ্যোগ এ পর্যন্ত কেউ নেয়নি।
    এ ব্যাপারে পোকখালী ইউপি চেয়ারম্যান রফিক আহমদ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এই বেইলি ব্রিজটির বেহাল দশা। জনগুরুত্বপূর্ণ সমস্যা দ্রুত নিরসনে ব্রীজটি সংস্কারে জন্য এলজিইডি কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিয়েছিলেন এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল।
    তিনি আরো বলেন, বেইলি ব্রিজটি সংস্কারে দ্রুত উদ্যোগ না নিলে সাধারণ মানুষ, ছাত্রছাত্রী ও ব্যবসায়ীরা চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবেন।

    স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কক্সবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী মাকসুদুল আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বেইলি ব্রিজের অবস্থা অত্যন্ত করুণ, এটা অস্বীকার করার উপায় নেই। বরাদ্দ পেলেই বেইলি ব্রিজের সংস্কার কাজ শুরু করা হবে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ