শনিবার ২৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

চকরিয়ায় সাত ইউপি’র মধ্যে চার ইউপিতে পাশে নেই আ.লীগের কোন শীর্ষ নেতা

মুকুল কান্তি দাশ, চকরিয়া   |   বুধবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২১

চকরিয়ায় সাত ইউপি’র মধ্যে চার ইউপিতে পাশে নেই আ.লীগের কোন শীর্ষ নেতা

আগামী ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপে কক্সবাজারের চকরিয়ায় ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের নিবার্চন অনুষ্টিত হতে যাচ্ছে। এই নিবার্চনে ৮টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিক নিয়ে নিবার্চনে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। তবে, ৮ ইউনিয়নের মধ্যে সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম বিনা প্রতিদ্ধন্দ্ধীতায় চেয়ারম্যান নিবার্চিত হয়েছেন। বাকি ৭ ইউপির মধ্যে ৪ ইউপিতে পাশে নেই কোন আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতা!

অন্য ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে হারবাং, বরইতলী ও ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে নৌকার প্রতিকের প্রার্থীদের পক্ষে আওয়ামীলীগের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের শীর্ষ নেতৃবৃন্দরা বিভিন্ন সভা-সমাবেশে অংশ নিচ্ছেন। কিন্তু অন্য চারটি ইউনিয়ন খুটাখালী, ডুলাহাজারা, চিরিংগা এবং বমুবিলছড়িতে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কোন শীর্ষ নেতারা নিবার্চনী প্রচারণায় অংশ নেয়নি। যার কারণে স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে এই চার ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থীদের ভরাডুবির আশংকা দেখা দিয়েছে।

চকরিয়া উপজেলায় ১৮টি ইউনিয়ন রয়েছে। এরমধ্যে গত ১৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপের নিবার্চনে ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের নিবার্চন অনুষ্টিত হয়েছে। আগামী ২৬ ডিসেম্বর উপজেলা অন্য ৮টি ইউনিয়ন খুটাখালী, ডুলাহাজারা, ফাঁসিয়াখালী, চিরিংগা, সুরাজপুর-মানিকপুর, বমুবিলছড়ি, বরইতলী ও  হারবাং পরিষদের নিবার্চন অনুষ্টিত হতে যাচ্ছে। এসব ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের ৮জন প্রার্থী নিবার্চনে প্রতিদ্বন্দ্ধীতা করছেন। এরমধ্যে সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে কোন প্রতিদ্বন্দ্ধী প্রার্থী না থাকায় ওই ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ও নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আজিমুল হক আজিম বিনা প্রতিদ্বন্দ্ধীতায় চেয়ারম্যান নিবার্চিত হন। ফলে অপর ৭টি ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের প্রার্থীরা নিবার্চনী যুদ্ধে অবত্তীর্ণ হয়েছেন।

এই ৭টি ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী হারবাংয়ে মেহরাজ উদ্দিন মিরাজ, বরইতলীতে এটিএম জিয়া উদ্দিন জিয়া ও ফাঁসিয়াখালীতে হেলাল উদ্দিন হেলালী পক্ষে আওয়ামীলীগের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের শীর্ষ নেতৃবৃন্দরা বিভিন্ন সভা-সমাবেশে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখছেন। ভোটারদের দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। কিন্তু অন্য চারটি ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের খুটাখালীতে বেলাল, ডুলাহাজারায় শাওনেওয়াজ তালুকদার, বমুবিলছড়িতে মঞ্জুরুল কাদের ও চিরিংগায় শাহনেওয়াজ চৌধুরী রুমেলের পক্ষে জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের কোন নেতাদের অংশ নিতে না দেখায় স্থানীয় আওয়ামীলীগের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলা আওয়ামীলীগের বেশ কয়েকজন নেতা জানান, চকরিয়ায় আওয়ামীলীগের রাজনীতি দু’ধারায় বিভক্ত হয়ে পড়েছে। মুলত গত পৌরসভা নিবার্চনের পর থেকেই আওয়ামীলীগে বিভক্তির সৃষ্টি হয়েছে। যার কারণে নেতা-কর্মীরা দ্ধিধাদন্ধের মধ্যে পড়েছেন। কে কোন পক্ষে ভোট করবেন তা নিয়ে দ্ধন্ধে পড়েছেন।

এসব নেতারা অভিযোগ করে বলেন, জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতারা তাদের স্ব-স্ব বলয়ের নেতাদের মনোনয়ন পাইয়ে দিতে গিয়ে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন বোর্ডকে ভুল তথ্য দিয়ে নমিনেশন দেয়া হয়েছে। যার ফলস্বরুপ এসব ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা ড্যামি প্রার্থীর ভুমিকায় রয়েছে। এসব প্রার্থীরা নামে মাত্র নৌকা প্রতিকের প্রার্থী হলেও তাদের নিবার্চনী কোন কার্যক্রম নেই।

তারা আরও অভিযোগ করেন, জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগে দুটি বলয় সৃষ্টি হয়েছে। সেহেতু শীর্ষ নেতারা সব প্রার্থীকে প্রাধান্য না দিয়ে স্ব-স্ব বলয়ের প্রার্থীদের পক্ষে জোর প্রচারণা চালাচ্ছে। ফলে অন্য ইউনিয়নে নৌকার সলিল সমাধি হতে যাচ্ছে। যা শুধু সময়ের অপেক্ষা। এমনকি এসব ইউনিয়নগুলোতে অনেক নেতা পরোক্ষভাবে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করছেন।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজবাউল হক বলেন, মুলত উপজেলার ৮িিটি ইউনিয়নের  মধ্যে যেসব ইউনিয়নগগহুলো নৌকা বিজয়ের সম্ভাবনা রয়েছে আমরা সেসব ইউনিয়নগুলোতে সক্রিয়ভাবে কাজ করছি।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও চকরিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বলেন, একসময় চকরিয়ায় আওয়ামীলীগ ঐক্যবদ্ধ ছিলো। কিন্তু গত কয়েকবছর ধরে চকরিয়ায় আওয়ামীলীগে বলয় ভিত্তিক রাজনীতি সৃষ্টি হয়েছে।বলয ভিত্তিক রাজনীতির চর্চা করতে গিয়ে এই ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে বেশ কিছু ইউনিয়নে দলের জনপ্রিয় নেতাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের ভূল তথ্য দিয়ে অজনপ্রিয় নেতাদের নমিনেশন দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আসন্ন ্ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে নৌকার প্রতিকের প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করতে আমরা সদা প্রস্তুত।আমরা সেজন্য কাজও করছি। বিভিন্ন সভা-সমাবেশে অংশ নিচ্ছি। কিন্তু দেখা যাচ্ছে কয়েকটি ইউনিয়নে এমন কিছু নেতা নৌকার মনোনয়ন নিয়েছেন যারা নিবার্চনী মাঠেও নেই। তাদেরও নিবার্চনের প্রতি আগ্রহ নেই।

Comments

comments

Posted ৯:৩৭ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২১

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com