বৃহস্পতিবার ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

জুনে শেষ হচ্ছে শাহপরীর দ্বীপ সড়কের কাজ

জাকারিয়া আলফাজ, টেকনাফ   |   রবিবার, ০১ মে ২০২২

জুনে শেষ হচ্ছে শাহপরীর দ্বীপ সড়কের কাজ

দীর্ঘ প্রতিক্ষা শেষে আগামী জুন মাসে শেষ হচ্ছে টেকনাফ-শাহপরীর দ্বীপ সড়কের হারিয়াখালী থেকে শাহপরীর দ্বীপ জেটিঘাট পর্যন্ত বিলীন হয়ে যাওয়া প্রায় ৫ কিলোমিটার সড়কের কাজ। কাজ শেষ হলে দ্বীপের ৪০ হাজার মানুষের সড়কে যাতায়তে দশ বছরের কষ্টের অবসান ঘটবে। এমনটি জানিয়েছেন এ প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জে.কে এন্টারপ্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী ও চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার চৌধুরী। শনিবার সকাল এগারোটার দিকে তিনি সড়কের কাজ পরিদর্শন করতে আসেন। এসময় তিনি নির্ধারিত সময়ের আগে বাকি কাজ গুলো শেষ করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাস্টার জাহেদ হোসেন।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জে.কে এন্টারপ্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী ও চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার চৌধুরী বলেন, আমি নিজেই একজন জনপ্রতিনিধি। জনগণের দুঃখ দূর্দশা সবসময় আমাকে পীড়া দেয়। শাহপরীর দ্বীপের মানুষ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে বেড়িবাঁধ ভেঙে সড়ক বিলীন হয়ে প্রায় দশবছর কষ্ট পেয়েছে। তাই আমি অনেক প্রতিকূলতার মাঝেও দ্রুত সময়ে এ সড়কটির কাজ শেষ করতে আপ্রাণ চেষ্টা করছি। আশা করি এ বর্ষায় সড়ক দিয়ে দ্বীপবাসী যাতায়ত করতে পারবে।

তিনি আরো বলেন, শাহপরীর দ্বীপ সড়কের কাজ করা ছিল একটি চ্যালেঞ্জিং কাজ। কাজ শুরুর আগে পরিদর্শনে এসে এখানে শুধু বিলীন হয়ে যাওয়া সড়কের ধ্ধ্বংসস্তুপ দেখেছি। তারপরও একজন ঠিকাদার হিসেবে ঘাবড়ে যায়নি, চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছি। সবার আন্তরিক সহযোগীতায় কাজের মান অক্ষুন্ন রেখে সড়কের কাজ এখন প্রায় শেষ।

স্থানীয় বাসিন্দা ও টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাস্টার জাহেদ হোসেন বলেন, দ্বীপের মানুষ এ সরক নিয়ে অনেক কষ্ট পেয়েছে। এখন সড়কের কাজ দেখে ভালো লাগছে। সড়ক প্রায় প্রস্তুত, বড় খালের ব্রিজের ঢালাইও শেষ হয়েছে। এরপরও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এবং সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ)’র কাছে আমাদের দাবি থাকবে, বর্ষা শুরুর আগেইযেন সড়কের কাজ সমাপ্তি নিশ্চিত হয়।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ) কক্সবাজারের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শাহে আরেফিন জানান, ঈদের পরেই শাহপরীর দ্বীপ সড়কের কার্পেটিং শুরু হবে। সড়কের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে এবং কাজের মান সন্তোষজনক। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে বর্ষাকালে শাহপরীর দ্বীপের মানুষ এ সড়ক দিয়ে যাতায়ত করতে পারবে।

টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ সড়কের কাজ শেষ হলে সড়কটি একটি দৃষ্টিনন্দন সড়ক হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের জুন মাসে শাহপরীর দ্বীপের পশ্চিমের বেড়িবাঁধ বিলীন হয়ে গেলে জোয়ারের পানি ঢুকে সড়কটিও ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়। দ্বীপের ৪০ হাজার মানুষের যাতায়তে নেমে আসে সীমাহীন দূর্ভোগ । বিগত ২০১৮ সালের ৪ নভেম্বর সাবরাং ইউনিয়নের হারিয়াখালী থেকে শাহপরীর দ্বীপ জেটিঘাট পর্যন্ত ৫.১৫ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের জন্য একনেক সভায়৬৭.৭৮ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়।

/তারেকুর/আদেবি

Comments

comments

Posted ১:১৭ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ০১ মে ২০২২

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com