• শিরোনাম

    জেলাব্যাপী মশক নিধন অভিযান

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৯ আগস্ট ২০১৯ | ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ

    জেলাব্যাপী মশক নিধন অভিযান

    গতকাল ৮ আগস্ট জেলাব্যাপী চালানো হলো মশক নিধন অভিযান। দেশব্যাপী ডেঙ্গু ভাইরাস আতঙ্কের পরই এমন অভিযান পরিচালনা করা হলো। জেলাকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার প্রত্যয় নিয়েই গতকালের অভিযান পরিচালনা করা হয়।

    অভিযান থেকে জেলার সরকারিপ্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে পৌরসভা, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ, স্কুল, কলেজ, মসজিদ, মাদ্রাসা এমনকি বাড়ির আঙিনাও বাদ যায়নি।
    কক্সবাজারের জেলাপ্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের নির্দেশের প্রেক্ষিতেই এমন অভিযান পরিচালনা করা হলো। গতকাল অভিযান উপলক্ষে জেলার জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে সরকারি কর্মকর্তারাও ক্ষণিকের জন্য হাতে তুলে নিয়েছিলেন ঝাড়–।

    কক্সবাজার শহরসহ জেলার প্রত্যেক উপজেলায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান উপলক্ষ্যে বিরাজ করেছে অন্য রকম পরিবেশ। বিশেষ করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে এই অভিযান বাস্তবায়িত হয়। প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকা থেকে শুরু করে ছাত্রছাত্রি পর্যন্ত সবাই নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানকে পরিচ্ছন্ন রাখার কাজে নিজেদের নিয়োজিত রাখেন। কেউ যাতে অদূর ভবিষ্যতে মশার কামড়ে আক্রান্ত হয়ে মারা না যায় সেই লক্ষ্যেই ছিলো তাঁদের এই অংশগ্রহণ।
    কক্সবাজার পৌরসভা

    কক্সবাজার পৌর ভবনের আঙ্গিনাসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকা নিজেই পরিস্কার করেছেন মেয়র মুজিবুর রহমান। ডেঙ্গু প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে কাউন্সিলর ও পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে এ অভিযান পরিচালনা করেন মেয়র।
    এছাড়া পরবর্তীতে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনসহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের আশপাশ ও পাবলিক লাইব্রেরীর শহীদ দৌলত ময়দান পরিস্কার করেন তিনি।
    সরকারের পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী জেলার সকল সরকারি, আধা সরকারি, বেসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, গৃহস্থালি বাড়ির আঙ্গিনা, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলোতে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান পালন করা হয়েছে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে বাসা-বাড়ি পরিস্কার করার কার্যক্রম সরূপ এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান মেয়র মুজিবুর রহমান।
    উখিয়া উপজেলা প্রশাসন
    উখিয়া থেকে  শফিক আজাদ জানান,
    “ডেঙ্গু মুক্ত দেশ চাই,পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার বিকল্প নাই” শ্লোগানে উখিয়া উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে পরিস্কার অপরিচ্ছন্নতা অভিযান ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে উপজেলা ব্যাপী ক্রাশ প্রোগ্রাম শুধু হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় দিনব্যাপী এই ক্রাশ প্রোগ্রাম চলবে বলে উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে।

    বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় উখিয়া উপজেলা চত্বর থেকে একটি বিশাল র‌্যালির মাধ্যমে উক্ত প্রোগ্রামের সুচনা করা হয়। র‌্যালি উখিয়া ষ্টেশন প্রদক্ষিণ করে পুনরায় উপজেলা চত্বর গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালি পরবর্তী একটি সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উখিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী,উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিকারুজ্জামান চৌধুরী,উখিয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফখরুল ইসলাম ও উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল মনসুর।

    সমাবেশে বক্তরা বলেন,যার যার অবস্থান থেকে ডেঙ্গু প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন করতে হবে,বাড়ীর আঙ্গিনা পরিস্কার রাখার পাশাপাশি পাশ্ববর্তী প্রতিবেশীকে সচেতন করতে হবে। কারন পরিস্কার পানি থেকেই ডেঙ্গু মশার উৎপত্তি। তাই সচেতনতার কোন বিকল্প নেই।

    পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানঃ
    উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় অনুষ্টিত হয়েছে। এতে কমিউনিটি পুলিশ, গ্রাম পুলিশ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক সহ গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালী পরবর্তী থাইংখালী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে অনুষ্টিত পথসভায় সচেতনামুলক বক্তব্য রাখেন উখিয়া পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী। তিনি এ সময় বলেন আগামীতে পালংখালী, থাইংখালী, বালুখালী তিনটি ময়লা-আর্বজনা রাখার জন্য ডাস্টবিন করে দেওয়া হবে। সেখানে বাজারের এসব ময়লা আবর্জনা ফেলার পাশাপাশি বাড়ী, ঘর, আঙ্গিনা পরিস্কার রাখার অনুরোধ জানান তিনি। উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য মোজাফফর আহমদ, নুরুল আবছার চৌধুরী, নুরুল হক মেম্বার, সুলতান আহমদ, তোফায়েল আহমেদ, মহিলা ইউপি সদস্য রাশেদা বেগম, পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আবু সোফিয়ানসহ গণ্যমান্য নেতৃবৃন্দ।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ