• শিরোনাম

    জোয়ার ঠেকাতে সেচ্ছাশ্রমে বেড়িবাঁধ নির্মাণ

    লিটন কুতুবী, কুতুবদিয়া | ১৯ আগস্ট ২০১৯ | ১:৫১ পূর্বাহ্ণ

    জোয়ার ঠেকাতে সেচ্ছাশ্রমে বেড়িবাঁধ নির্মাণ

    নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের লক্ষে কুতুবদিয়া মুরালিয়া গ্রামের ভাঙ্গণ বেড়িবাঁধ এলাকায় জোয়ার ঠেকাতে সেচ্ছাশ্রমে বড়ঘোপ ইউপির নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান আ,ন,ম শহীদ উদ্দিন ছোটন এলাকার যুবকদের নিয়ে বেড়িবাঁধ নির্মাণ করছে। এ রির্পোট লিখা পর্যন্ত প্রায় ১৩ চেইন বাঁধ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করেছে। আগামী ২ দিনের মধ্যে বিলীন বাকি ৪ চেইন বাঁধ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করতে সক্ষম হবে বলে চেয়ারম্যান ছোটন নিশ্চিত করেন।
    মগড়েইল এলাকার কৃষক আমির হোসেন জানান, মুরালিয়া এলাকায় বেড়িবাঁধ ভাঙ্গা থাকায় জোয়ারের নোনা পানিতে লোকালয় প্লাবিত হয়। এতে মগড়েইল এলাকা ডুবে যায়। যার ফলে মুরালিয়া,মগড়েইল,অমজাখালী এলাকার শতশত একর আউশ,আমনের ফসলি জমি অনাবাদি হয়ে পড়েছে। মুরালিয়া এলাকায় জোয়ার ঠেকানোর বাঁধ দেওয়ায় কৃষকরা চাষাবাদের প্রস্তুুতি নিচ্ছে।
    বিগত ৬/৭ বছর পূর্বে প্রাকৃতিক দূর্যোগে বেড়িবাঁধ বিধ্বস্ত হলে মুরালিয়া গ্রামের উপর দিয়ে প্রতিনিয়তই জোয়ার ভাটা বসে। বেড়িবাঁধ নির্মাণে পাউবোর ব্যর্থতার কারণে কুতুবদিয়া দ্বীপের বেড়িবাঁেধর পাশে মুরালিয়া গ্রামের জোয়ারে নোনা জল লোকালয়ে ডুকে প্রায় ১৫শ পরিবার প্লাবিত হয়। এ সব পরিবারের হাজার হাজার মানুষ খোলা আকাশের নীচে বসবাস করে মানবেতর জীবন যাপন করছে। সাগরের জোয়ার ভাটায় মানুষের জীবন মরণ নিয়ে খেলছে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড।
    গত ২৫ জুলাই (২০১৯) বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে শহীদ উদ্দিন ছোটন নির্বাচনে ঐ এলাকায় জোয়ার ঠেকানোর বাঁধ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। বড়ঘোপবাসী ভোটে ছোটনকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করলে ঐ প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করার জন্য গত দুই সপ্তাহ ধরে বাঁেশর বেড়ায় মাটি ও বস্তা দিয়ে জোয়ার ঠেকানোর বাঁধ দিচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় বড়ঘোপ ইউনিয়নের মগডেইল ও মুরালিয়া এলাকার শতাধিক যুবক নিয়ে বড়ঘোপ ইউপির নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছোটন নিজের অর্থায়নে মুরালিয়া গ্রামের ১৭ চেইন ভাঙ্গন বেড়িবাঁধ এলাকায় জোয়ার ঠেকানোর বেড়িবাঁধ নির্মাণ করে যাচ্ছে।
    এ ব্যাপারে বড়ঘোপ ইউপির নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান আ,ন,ম শহীদ উদ্দিন ছোটন সাথে কথা হলে তিনি বলেন, প্রকৃতিক দূর্যোগে মুরালিয়া উপকূলে ১৭ চেইন বেড়িবাঁধ ভাঙ্গা থাকায় এলাকায় জোয়ার ভাটা বসে। জোয়ার ঠেকানোর বাঁধ নির্মানের উদ্যোগ নিয়ে কাজ শুরু করে। অবস্থানরত বাঁধ নিমার্ণ কাজ শেষ করতে প্রায় ১৮ লাখ টাকা ব্যয় হবে বলে জানান।
    কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলহাজ ফরিদুল ইসলাম চৌধূরী বলেন, বিগত কয়েক বছর ধরে বঙ্গোপসাগরের জোয়ারে কক্সবাজার জেলার পাউবোর উপকূলের ৭১ পোল্ডারের কুতুবদিয়া দ্বীপের ৪০ কিলোমিটার বেড়িবাঁেধর মধ্যে ২০ কিলোমিটার বাঁধ ভাঙ্গা থাকায় ঐ সব এলাকায় প্রতিদিন জোয়ার ভাটা বসছে। প্রতি অমাবশ্যা ও পূর্ণিমার জোয়ারের স্্েরাতের সাথে ভেসে যাচ্ছে শতাধিক পরিবার।
    এসব ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে দ্বীপের মানুষ পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষের প্রতি আস্থাহীন হয়ে বড়ঘোপ ইউনিয়নের মুরালিয়া গ্রামের ১৭ চেইন জোয়ার ঠেকানো বাঁধ নির্মাণ কাজ করার উদ্যোগ হাতে নিয়েছে চেয়ারম্যান ছোটনসহ মগড়েইল, মিয়ার পাড়া ও মুরালিয়া এলাকার যুবকরা।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ