শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

ঝুঁকিপূর্ণ সমুদ্রস্নানঃ নিয়ম মানতে চায়না পর্যটকরা

দীপক শর্মা দীপু   |   শনিবার, ১৫ জুন ২০১৯

ঝুঁকিপূর্ণ সমুদ্রস্নানঃ নিয়ম মানতে চায়না পর্যটকরা

কক্সবাজারের বঙ্গোগসাগরে পর্যটকরা ঝুঁকি নিয়ে গোসল করে। কোন নিয়ম না মেনে সমদ্র¯œান করে পর্যটকরা। এমন কি পর্যটকরা রাতে গা ভিজাতে সমুদ্রের পানিতে নেমে পড়ে।
কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণি পয়েন্টে একটি নির্দিষ্ট জোনে গোসল করার সীমানা নির্ধারণ করা হয়েছে। কিন্তু নির্ধারিত জোনে গোসল না করে অধিকাংশ পর্যটক জোনের বাইরে গোসল করে। এতে করে লাইফগার্ড এর পর্যবেক্ষনের আওতার বাইরে চলে যাওয়া পর্যটকরা ঝুঁকিতে থাকলে তাদের উদ্ধার করা কঠিন হয়ে পড়ে। অনেক সময় সাগরে থলিয়ে গেলেও পর্যবেক্ষনে টাওয়ারে তাদের দেখা যায়না। অন্যদিকে জোয়ার ভাটার সময় না মেনে গোসল করে। সন্ধ্যার পর অনেকে সমুদ্রে নামে। রাতেও সমুদ্রের পানিতে গা ভিজাতে আনন্দ পায় পর্যটকরা। রাতের আঁধারে গোসল করতে নামায় সলিল সমাধি হওয়ার আশংকা রয়েছে।
রবি লাইফ গার্ডের দলনেতা সৈয়দ নুর জানান, গত ৩ বছর আগে প্রতিবছর গড়ে ১০ জন মানুষ সাগরে ভেসে গিয়ে মারা যেত। এখন সেটা অনেক কমে এসেছে। গত ৩ বছর থেকে গড়ে ২ থেকে ৪ জনের মৃত্যু হলেও মুমূর্ষ অবস্থায় সাগর থেকে উদ্ধার করা মানুষের সংখ্যা বেশি। তিনি জানান, পর্যটকরা খুশিতে আবেগের বসতি হয়ে গোসল করতে নামে সমুদ্রে। গোসল করতে নামার আগে কোন নিয়ম মানতে চাইনা। জোয়ার ভাটা না মেনে গোসল করতে নেমে গভীর সমুদ্রে চলে যায় পর্যটকরা। ফলে পর্যটকদের জন্য সমুদ্র ¯œান ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠে।
কক্সবাজার ট্যুরিষ্ট পুলিশের পুলিশ সুপার মো: জিল্লুর রহমান জানান, কক্সবাজারে বেড়াতে এসে সমুদ্রে গোসল করতে নেমে পর্যটকের প্রাণ যায়। আনন্দ তখন বিষাদে পরিণত হয়। যা কারো কাম্য নয়। পর্যটকদের অসচেতনতা, নিয়ম না মেনে গোসল করার কারনে অনেকটা তারা নিজেদের বিপদ নিজেরা ডেকে নিয়ে আসেন। নিরাপদ গোসলের জন্য ট্যুরিষ্ট পুলিশ নিয়মিত মাইকে ঘোষনা দিয়ে থাকেন, ট্যুরিষ্ট পুলিশের টহল থাকে এবং হ্যান্ড মাইকেও সচেতনতা করা হয়। এর পরও পর্যটকরা নির্ধারিত জায়গায় গোসল না করে অন্যত্র গোসল করে। এতে পর্যবেক্ষণ করা কঠিন হয়ে পড়ে। পর্যবেক্ষণ টাওয়ার ও লাইফ গার্ডের নিয়ন্ত্রনের বাইরে গিয়ে গোসল করায় তাদের জীবন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠে।
পুলিশ সুপার জিল্লুর রহমান আরো জানান, জোয়ার ভাটার জন্য পতাকা দিয়ে সংকেত দেয়া হয়।সমুদ্র ¯œানের জন্য নির্ধারিত জোন পতাকা দিয়ে সীমানা দেয়া হয়। এসব কিছু উপেক্ষা করে পর্যটকরা সমুদ্রে গোসল করতে গিয়ে বিপদে পড়ে। তাই তিনি সমুদ্রে গোসল করার আগে নিয়ম জেনে এবং মেনে গোসল করার জন্য পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

Comments

comments

Posted ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১৫ জুন ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com