• শিরোনাম

    টেকনাফে ঢাকা ব্যাংকের নৈশ প্রহরীকে ছুরিকাঘাত, আটক-১

    টেকনাফ অফিস | ৩০ জুন ২০১৮ | ১:৫৬ পূর্বাহ্ণ

    টেকনাফে ঢাকা ব্যাংকের নৈশ প্রহরীকে ছুরিকাঘাত, আটক-১

    টেকনাফে ঢাকা ব্যাংকের দুই নৈশ প্রহরী কর্তব্যকালীন সময়ে মোবাইল চার্জ দেওয়াকে কেন্দ্র করে নিজেদের মধ্যে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে একজনকে ছুরিকাঘাত করেছে। এতে গুরুত্বর আহত মোসলেম উদ্দিন (২২) নামে এক নৈশ প্রহরীকে কক্সবাজারের একটি বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সে কক্সবাজারের ইদগাহ পালাকাটা এলাকার নুরুল কবিরের ছেলে। ছুরিকাঘাতের অভিযোগে মং ছিন ওয়ে (২৪) নামে অপর নৈশ প্রহরীকে আটক করেছে পুলিশ।

    সে বান্দরবান জেলার নাইক্ষংছড়ি মসজিদ ঘোনা এলাকায় শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করলেও তার নিজ বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলায়। বৃহস্পতিবার দিনগত রাত পৌনে ১২টার দিকে টেকনাফ বাজারের ফরিদ শপিং কমপ্লেক্সের ঢাকা ব্যাংকের শাখায় এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুই নৈশ প্রহরী রাত ১০টা থেকে ব্যাংকের ফটকের বাহিরে দায়িত্বপালন করছিল। এসময় লোডশেডিংয়ের পর বিদ্যুৎ আসলে একই চার্জারে দুইজনের মোবাইল কে আগে চার্জ দেবে তা নিয়ে তর্ক বিতর্ক ও হাতাহাতি শুরু হয়।

    একপর্যায়ে মং ছিন ওয়ে ব্যাংকের পাশেই তাদের থাকার রুম থেকে ছুরি এনে মোসলেমকে আঘাত করে। এসময় ছুরিকাহত মুসলিম বাঁচাও বাঁচাও বলে শোর চিৎকার শুরু করলে আশেপাশের লোকজন ও দোকান কর্মচারীরা হামলাকারী মংছিনকে নিবৃত্ত করে আটকে রাখে। অপরদিকে আহত প্রহরীকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসার পর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় রাতেই তাকে কক্সবাজারে প্রেরন করা হয়। পরে খবর পেয়ে টেকনাফ থানা পুলিশের একটি দল হামলাকারীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

    টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রনজিত কুমার বড়–য়া জানান, আটক নৈশ প্রহরীর বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে। ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপক খোরশেদ আলম জানান, সিকিউরেক্স নামে একটি সংস্থার সরবরাহকৃত উক্ত দুই নৈশ প্রহরী সহ ৫জন নিরাপত্তা প্রহরী টেকনাফ শাখায় নিরাপত্তায় নিয়োজিত রয়েছে। দুই মাস আগে বদলী হয়ে তারা টেকনাফ শাখায় যোগদান করে। নিরাপত্তা প্রহরীদের দায়িত্ব সিকিউরেক্স এর বলে জানান তিনি।

    সিকিওরেক্স এর কর্মকর্তা মফিজুর রহমান (০১৭৮৭-৬৫০৮৩৯) জানান, আহত ও আটক দুই নৈশ প্রহরী সিকিউরেক্স এর বলে স্বীকার করলেও তাদের ব্যাপারে বিস্তারিত জানাতে পারেননি, হেড অফিস জানবে বলে জানান। উক্ত দুই প্রহরীর সাথে একই ভবনের একটি কক্ষে বাস করা মোবাইল মেকানিক মনিরুল ইসলাম জানান, ৪ বছর ধরে তিনি ব্যাংকের পাশের ওই কক্ষে ভাড়া থাকেন। দেড় মাস আগে উক্ত দুই নিরাপত্তা প্রহরীকে তার সাথে সাবলেট নেন। তাদের মধ্যে পূর্বে কোন বিষয় নিয়ে পূর্ব মনোমানিল্য হতে তিনি দেখেননি বলে জানান।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ