বুধবার ২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

টেকনাফ পৌরসভা নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ

টেকনাফ প্রতিনিধি   |   মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১

টেকনাফ পৌরসভা নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ

টেকনাফ পৌরসভার নির্বাচন রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) সম্পন্ন হয়েছে। পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ডে ১৫ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৩ প্লাটুন বিজিবি, র‍্যাব ও পুলিশের ৫ টি টীম মাঠে কাজ করেন। নির্বাচনের দিন পৌরসভার কোথাও সহিংসতার ঘটনা না ঘটলেও ভোট গ্রহণকারী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কেন্দ্রে অনিয়ম, পক্ষপাতসহ বিশেষ প্রার্থীদের সুবিধা পাইয়ে দেয়ার অভিযোগ করছেন পরাজিত প্রার্থীরা।

কক্সবাজার জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও পৌরসভা নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা এসএম শাহাদাত হোসেন দাবি করেন, পৌরসভায় প্রথম বার ইভিএমে এযাবতকালের সুষ্ঠু, প্রভাবমুক্ত ও সহিংসতাবিহীন নির্বাচন হয়েছে। এক্ষেত্রে জেলা প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। এছাড়া তিনি একই দিন অনুষ্ঠিত উপজেলার সেন্টমার্টিন ও বাহারছড়া ইউনিয়নের নির্বাচনও সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান।

পৌরসভার স্থানীয় ভোটারদের দাবি, পৌরসভায় বিরল ভোট হয়েছে। মাঠে কোন সহিংসতা নেই, প্রভাব নেই, হানাহানি ও সংঘাতের কোন ঘটনা ঘটেনি। মাঠ প্রশাসন কোন প্রভাবশালী মহলকে সুযোগই দেয়নি। তবে যা অনিয়ম হয়েছে ভোট কেন্দ্রে হয়েছে ভোট গ্রহণকারী কর্মকর্তাদের কারণে। তারা বিভিন্ন প্রায় কেন্দ্রে পছন্দের প্রার্থী দ্বারা প্রভাবিত হয়ে বিশেষ সুবিধা দিয়েছেন। তাতে প্রতিদ্বন্দী অন্য প্রার্থীরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। যার কারণে প্রশাসনের সর্বোচ্চ চেষ্টার সুষ্ঠু ও বিরল ভোটও প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে।

এদিকে পৌরসভার নির্বাচনে ভোট গ্রহণ ও ফলাফলে কারচুপির অভিযোগ করেছেন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ ইসমাইল, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের চার প্রতিদ্বন্দী কাউন্সিলর প্রার্থী যথাক্রমে সৈয়দ আলম, এ কে এম মঞ্জুরুল করিম সোহাগ, নুরুল হোছাইন, সৈয়দুল ইসলাম শহিদ ও ৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রতিদ্বন্দী কাউন্সিলর প্রার্থী মোহাম্মদ হাসান। তাদের মধ্যে ভোট চুরি ও ফলাফল ঘোষনায় কারচুপির অভিযোগ এনে পৃথক সংবাদ সম্মেলন করেছেন ৫ নম্বর ওয়ার্ডের চারজন কাউন্সিলর প্রার্থী ও ৪ নম্বর ওয়ার্ডের  কাউন্সিলর প্রার্থী।

গতকাল সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় সম্মেলন কক্ষে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলন করে ভোট গ্রহণকারী কর্মকতার্দের বিরুদ্ধে ভোটচুরি, অনিয়ম ও ফলাফল ঘোষণায় কারচুপির অভিযোগ করেছেন পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থী সৈয়দ আলম, এ,কে, এম মঞ্জুরুল করিম সোহাগ, নুরুল হোসাইন ও সৈয় ইসলাম শহীদ। এসময় প্রার্থীদের পক্ষে লিখত বক্তব্য পাঠ করেন মঞ্জুরুল করিম সোহাগ।

লিখিত বক্তব্যে তারা দাবি করেন, গত ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্টিত টেকনাফ পৌরসভা নির্বাচনে ৫ নম্বর ওয়ার্ডে টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে কাউন্সিলর নির্বাচন শেষে গণনার পূর্বে ৪ টি বুথের সংগৃহীত মোট ভোটের সংখ্যাটা প্রার্থীর এজেন্টদের জানানোর পর ইভিএম মেশিন থেকে মেমোরী কার্ড খুলে দ্বিতীয় তলায় গণনা করার জন্য নিয়ে যায়। এসময় দ্বিতীয় তলায় ওই কেন্দ্রে নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তারা প্রার্থীদের কোন এজেন্টকে উপস্থিত থাকতে দেইনি। পরবর্তীতে দেড় ঘন্টা পর কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা কম্পিউটার প্রিন্টের পরিবর্তে হাতে লিখিত একটি কাগজ পড়ে ফলাফল ঘোষনা কালে প্রার্থীর এজেন্টরা প্রতিবাদ করেন। কিছুক্ষন পর পূনঃরায় প্রিসাইডিং অফিসার পোলিং এজেন্টদের তার কক্ষে ডেকে খালি ফলাফল ফরমে স্বাক্ষর দিতে নির্দেশ দেন। এতে এজন্টরা সম্মত্ত না হলে তিনি তাদের উপর ক্ষুব্ধ হন।

তারা আরো বলেন, এসব অনিয়মের মাধ্যমে অপর প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী ইয়াবা মামলায় আটক হয়ে ২ বছর পর জেল ফেরত রেজাউল করিম মানিককে অনিয়মের মাধ্যমে জয়ী ঘোষণা করতে নির্বাচনী কর্মকর্তারা অসাংবিধানিক আচরণ করেছেন যা বর্তমান সরকারের সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। জনগণের ন্যায্য ভোটাধিকার রক্ষার স্বার্থে বুয়েটের ইভিএম বিশেষজ্ঞ দল দ্বারা টেকনাফ হাইস্কুল কেন্দ্রের ৪টি ইভিএম মেশিন পরীক্ষার মাধ্যমে সত্য উন্মোচন করে ওই কেন্দ্রে দায়িত্বকালীন নির্বাচন কর্মকর্তাদের তদন্তের আওতায় আনার দাবী জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে টেকনাফ পৌরসভার সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এম বেদারুল ইসলাম জানান, পৌরসভা নির্বাচন অত্যন্ত সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য হয়েছে। ইভিএমে আসলে কারচুপির সুযোগ নেই। এরপরও যদি কোন পরাজিত প্রার্থী ফলাফলে সন্তুুষ্ট না হয় তাহলে গেজেট প্রকাশের ৩০ দিনের মধ্যে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করে প্রতিকার চাইতে পারে।

Comments

comments

Posted ১:০৭ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com