• শিরোনাম

    ট্রেড ইউনিয়নের শাখা কমিটি দেওয়ার নিয়ম নাই – শ্রমবিধি ২০০৬

    | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১০:৪২ অপরাহ্ণ

    ট্রেড ইউনিয়নের শাখা কমিটি দেওয়ার নিয়ম নাই – শ্রমবিধি ২০০৬

    শ্রমবিধি ২০০৬ মোতাবেক কোন শ্রমিক সংগঠনের শাখা কমিটির অনুমোদন দেওয়ার বিধান নাই। তারপর ও বিভিন্ন সংগঠন অবৈধ ভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন নামে শ্রমিক মালিকদের উপর প্রভাব বিস্তার করিয়া শ্রমিকের অধিকার মালিকদের সম্পদ নিয়ে তালবাহনা করায় দেশের বিভিন্ন স্থান হতে শ্রমিক ফেডারেশনের নিকট অভিযোগ আসিলে তা শ্রম মন্ত্রনালয়ে অবিহিত করা হয়।
    তা আমলে নিয়ে বিগত ২৯.৪.২০০৯ তারিখের শ্রম ওকর্মসংস্থান মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ২য় বৈঠকের কার্যবিবরনিতে আনা হয় । তা গুরত্বপূর্ণ বিষয় হিসাবে আমলে নিয়ে দেশের সকল ট্রেড ইউনিয়ন নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রতি আইনানুগ ব্যাবস্থা গহন করার জন্য বলা হয় । তাছাড়া সংসদদিয় স্থায়ী কমিটির ঐ সভায় দেশের কোন স্থানে কোন সংগঠনকে তার কর্ম এলাকার বাইরে কোন শাখা কমিটির নামে কোন চালকদের মালিকদের হয়রানীর খবর প্রকাশ করিলে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন কে স্ব প্রনোদিত হয়ে শাখা কমিটির কা্যক্রমের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দেওয়া হয় ।
    তার পর ও ককসবাজারে বিভিন্ন শাখা কমিটির নামে নিজেদের শাখা কমিটির নেতা পরিচয় দিয়ে স্থানীয় মালিক শ্রমিকের উপর মোহাম্মদ বাবুল পিতা হাজী আবুবককর রিয়াজ মোর্শেদ পিতা মৃত নুরুল হক ও এইচ এম নজরুল ইসলাম হয়রানীর করছে । দীর্ঘদিনের প্রতিষ্টিত মালিক সমিতি শ্রমিক সমিতির সদস্যদের মধ্যে বিভ্রান্তকর তথ্য প্রকাশ করে পুরো ককসবাজারে বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে শ্রমিক সমাজের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি করছে । এমতাবস্থায় নানা কর্মকান্ডের ফলে চকরিয়ায় পেকুয়া চৌপলন্ডি খুরুস্কুল ঈদগড সহ নানা সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষটি হয়েছে । তাই উল্লখিত ব্যাক্তি বর্গের সংগঠনকে তার কর্ম এলাকা কি ? তার মূল সংগঠন কি ?তার মূল সভাপতি সম্পাদক কে বা কারা তাদের ককসবাজারে সংগঠন করার অধিকার আছে কি না তা যাচাবাচাই করে দেখার জন্য সর্বসাধারণ দাবি তুলে ককসবাজারের মাননীয় জেলা প্রশাসক ,উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন জাননিয়েছেন ।তাছাডা কমিটির নামে টাকা নিয়ে তাদের কে হয়রানী করার কারনে ককসবাজার সদর থানা জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসন বরবরে ও বিচার প্রার্থনা করে অভিযোগ দাখিল করেছেন ।
    অভিযোগ কারীরা তাদের অভিযোগ পত্রের সাথে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সিদ্ধান্তের নতিপত্র সংযুক্ত করেন। সংসদিয় কমিটির সদস্যরা হলেন জনাব শাহজান খান এম পি ,বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান এম পি ,জনাব নাসিম ওসমান এম পি ,জনাব আব্দু সত্তার এম পি , জনাব শহীদুজ্জামান সরকার এম পি , জনাব মনোরঞ্জন শীল এম পি, জনাব ইস্রাফিল আলম এম পি ,জনাব ননী গোপাল মন্ডল এম পি, জনাব মোশাররফ হোসেন এম পি , সচিব শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয় , বাংলাদেশ সচিবালয় ঢাকা । কমিটির সচিব শ্রম ওকর্মসংস্থান মন্ত্রনালয় সম্পকিত স্থায়ী কমিটি ,জাতীয় সংসদ সচিবালয় ,ঢাকা।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ