সোমবার ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

তরমুজের পর এবার গলা কাটছে লিচু ব্যবসায়ীরা

তারেকুর রহমান   |   মঙ্গলবার, ২৫ মে ২০২১

তরমুজের পর এবার গলা কাটছে লিচু ব্যবসায়ীরা

কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন বাজারে উঠেছে দেশি জাতের লিচু। তবে মৌসুমের নতুন ফল হিসেবে দাম চড়া। রমজানে তরমুজ ব্যবসায়ীরা যেমন ক্রেতাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত দাম হাঁকিয়েছেন ঠিক মৌসুমের নতুন ফল হিসেবে লিচু ব্যবসায়ীরাও সেই পথে হাঁটছেন। প্রতি ১০০ পিস লিচু ব্যবসায়ীরা সাড়ে তিনশো থেকে সাড়ে তিনশো টাকা দরে বিক্রি করছেন।

সোমবার (২৪ মে) শহরের ঘুনগাছ তলা ও পানবাজার সড়কে কয়েকজন ব্যবসায়ীকে এই লিচু বিক্রি করতে দেখা গেছে। লিচুর আঁটি হাতে নিয়ে চিৎকার দিয়ে ক্রেতা ডাকছেন আর বেশি দরে ক্রেতার হাতে লিচু ধরিয়ে দিচ্ছেন।

ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, এখন দুই জাতের লিচু বাজারে এসেছে। রাজশাহীর বোম্বাই আর আটি। অন্য জাতের লিচুগুলো আর কয়েকদিন পর বাজারে আসবে। এবার লিচুর উৎপাদন কম। তাই মৌসুমজুড়েই লিচুর দাম বেশি থাকতে পারে বলেও জানিয়েছেন তাঁরা।

ঘুনগাছ তলা পুলিশ বক্সের পাশে ঝুঁড়িতে লিচু সাজিয়ে রেখেছিলেন ব্যবসায়ী পলাশ শর্মা। তিনি জানান, চট্টগ্রামের কেরানী হাট থেকে লিচু কিনে আনেন তিনি। ১০০ লিচুর পেছনে ২০ টাকা করে লাভ করেন। একজন পেশাদার ব্যবসায়ী হিসেবে শতে ২০ টাকার বেশি লাভ করেন না তিনি।

ইসমাইল নামের আরেক ব্যবসায়ী পাইকারী লিচু কিনে থরে থরে সাজিয়ে রেখেছেন। তিনি জানান, পাইকাররা বিভিন্ন জায়গা থেকে লিচু এনে আমাদের বিক্রি করেন। আমরা তাদের কাছ থেকে বেশি করে কিনে খুচরা হিসেবে বিক্রি করি। বেশি দামে ক্রয় করে কম দামে বিক্রি করার সুযোগ নেই তাই অল্প লাভ করে লিচু ছেড়ে দিচ্ছি বাজারে। তিনি বলেন, ‘লাভ করতে হলে বেশি দামেই বিক্রি করতে হবে। তা না হলে ক্ষতির মুখে পড়বো।’

লিচু কিনতে আসা সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘নতুন ফল লিচু বাজারে আসলো। এ সুযোগে ব্যবসায়ীরা আকাশছোঁয়া দাম চাচ্ছেন। তিনি বলেন, আমার বাচ্চাটা গাড়ির উপর থেকে লিচু দেখে কান্না করতেছে লিচুর জন্য। লিচু তার খুব পছন্দের ফল। তাই লিচু কিনতে গাড়ি থেকে নামলাম। কিন্তু দাম দেখে অবাক হলাম।’

আরেক ক্রেতা জানান, ‘রমজানে নতুন ফল বলে তরমুজ ব্যবসায়ীরা গলাকাটা ব্যবসা করেছে। একটি মাঝারি সাইজের তরমুজ চার-পাঁচশো টাকার উপরে দাম নিয়েছে। এবারও নতুন ফল বলে ব্যবসায়ীরা লিচুর দাম বেশি নিচ্ছে। ব্যবসায়ীরা হয়তো সিন্ডিকেট করে এভাবে দাম হাকাচ্ছেন। সংশ্লিষ্টদের এ বিষয় খতিয়ে দেখতে হবে।’

বাজারের নতুন কৃষিজপণ্যের দামের বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের নজরদারী ও খতিয়ে দেখার জন্য ক্রেতা ও সচেতন মহলের আহ্বান রয়েছে। নতুন ফল কিংবা কৃষিজপণ্য বাজারে এনে ব্যবসায়ীদের এমন মনগড়া দামের বিষয়টি সংশ্লিষ্টরা বিবেচনায় না নিলে বাজার ব্যবস্থা নাজুকের আশংঙ্কা করছেন তারা।

 

আদেবি/তারেকুর রহমান

 

Comments

comments

Posted ৮:২২ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৫ মে ২০২১

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

(333 বার পঠিত)

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com