• শিরোনাম

    থাইল্যান্ডের অভিযানে চীনা রোবট, ব্রিটিশ ডুবুরি, অস্ট্রেলীয় চিকিৎসক, মার্কিন সেনা

    | ০৮ জুলাই ২০১৮ | ১১:৩৬ অপরাহ্ণ

    থাইল্যান্ডের অভিযানে চীনা রোবট, ব্রিটিশ ডুবুরি, অস্ট্রেলীয় চিকিৎসক, মার্কিন সেনা

    ১২ শিশুকে গুহা থেকে উদ্ধারের জন্য থাইল্যান্ডের প্রতি সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। দেশটিতে এখন কাজ করছে বিভিন্ন দেশের বিশেষজ্ঞরা। একদিকে যেমন রয়েছেন গুহার ভেতর সাঁতারে বিশেষ পারদর্শী অস্ট্রেলীয় চিকিৎসক তেমনি রয়েছেন পানির নিচে কাজ করতে পারা রোবট সঙ্গে আনা চীনা উদ্ধারকর্মীরা। সেখানে উপস্থিত হয়েছেন ব্রিটিশ ডুবুরি ও মার্কিন বিমান বাহিনীর সদস্যরাও। থাইল্যান্ডে কাজ করা একজন বেলজিয়ান নাগরিকও এক পর্যায়ে থাই উদ্ধার কর্মীদের সঙ্গী হয়েছিলেন।

    যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইটার বার্তায় জানিয়েছেন, আটকে পড়া ১২ শিশ ও তাদের কোচকে গুহা থেকে বের করে আনতে যে উদ্ধার তৎপরতা চলছে তাতে যুক্তরাষ্ট্র সহায়তা করছে। ট্রাম্প তার টুইটে উল্লেখ করেছেন, যুক্তরাষ্ট্র থাইল্যান্ড সরকারের সঙ্গে অত্যন্ত গভীরভাবে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। সিঙ্গাপুরভিত্তিক সংবাদমাধ্যম স্ত্রেইট টাইমস লিখেছে, ওই উদ্ধার অভিযানে যুক্তরাষ্ট্রের ৩০ জন সেনা সদস্য যুক্ত হয়েছেন। জাপানের ওকিনাওয়া দ্বীপে মোতায়েন থাকা মার্কিন বিমান বাহিনীর ১৭ জন উদ্ধারকারী সদস্যকে থাইল্যান্ডে পাঠানো হয়েছে। তারা ২৮ জুন সেখানে উপস্থিত হয়েছেন।

    গুহায় আটকে পড়া ১২ ফুটবল খেলোয়াড় শিশু ও তাদের কোচকে উদ্ধারে বিদেশি সহায়তা প্রেরণের কথা উল্লেখ করে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও যুক্তরাজ্য, চীন, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, লাওস ও মিয়ানমার সরকার থাইল্যান্ডকে সহায়তা করেছে। তাছাড়া অনেক বেসরকারি বিদেশি প্রতিষ্ঠান যন্ত্রপাতি দিয়ে সহায়তা করতে চেয়েছে উদ্ধারকারীদের।

    অস্ট্রেলিয়ার পক্ষ থেকে গুহার ভেতর সাঁতারে দক্ষ একজন চিকিৎসককে পাঠানোর কথা উল্লেখ করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলিয়া বিশপ। রিচার্ড হ্যারিস নামের ওই চিকিৎসকই শিশুদের কাছে পৌঁছে তাদের স্বাস্থ্যের বিষয় দেখভাল করেছেন।

    ব্রিটিশ ডুবুরি জন ভোলানথেন ও রিক স্ট্যান্টন থাইল্যান্ড সরকার ও ব্রিটিশ গুহা বিশেষজ্ঞ রবার্ট হারপারের অনুরোধে তারা উদ্ধার তৎপরতায় যুক্ত হয়েছেন। এই দুইজন ২০১০ সালে ফ্রান্সের একটি গুহায় চালানো উদ্ধার তৎপরতায় অংশ নিয়েছিলেন। বিবিসি জানিয়েছে, স্ট্যান্টন ২০০৪ সালেও এরকম এক উদ্ধার তৎপরতায় অংশ নিয়েছিলেন। ওই ঘটনায় মেক্সিকোর এক গুহা থেকে ১৩ ব্রিটিশ নাগরিককে উদ্ধার করা হয়।

    আর জুন মাসের ২৯ তারিখে চীনা বিশেষজ্ঞদের দলটি উপস্থিত হয়েছে থাইল্যান্ডে। ৬ জনের চীনা দলটি তাদের সঙ্গে নিয়ে এসেছে উদ্ধার তৎপরতায় ব্যবহৃত রোবট ও উচ্চ প্রযুক্তির ত্রিমাত্রিক চিত্র তৈরির যন্ত্রপাতি।

    থাইল্যান্ডে সাঁতারের স্কুল চালান এমন একজন বেলজিয়ান নাগরিক বেন রেমেন্যান্ট জানিয়েছেন, তিনি ২ জুলাই ৮ ঘণ্টা গুহার পানিতে উদ্ধার তৎপরতায় ছিলেন। দেশবিদেশ/ ০৮ জুলাই ২০১৮/নেছার

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ