বৃহস্পতিবার ২১শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সাতক্ষিরা থেকে উদ্ধার ৭

দেশের বিভিন্ন জায়গায় আশ্রয় নিচ্ছে রোহিঙ্গারা

রফিক উদ্দিন বাবুল, উখিয়া   |   শনিবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৮

দেশের বিভিন্ন জায়গায় আশ্রয় নিচ্ছে রোহিঙ্গারা

মিয়ানমার সামরিক জান্তা ও উগ্রপহ্নি রাখাইন দুর্বৃত্তের হাতে সর্বস্ব হারিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা চাহিদার অধিক ত্রান সামগ্রী পাচ্ছে। এসব ত্রান সামগ্রী তারা খোলা বাজারে বিক্রি করে এক প্রকার সাবলম্ভী হয়ে উঠার কারনে উন্নত জীবন যাপনের জন্য এসব রোহিঙ্গারা ক্যাম্প থেকে পালিয়ে দেশের আনাছে কানাছে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আশ্রয় নিচ্ছে। অনেকেই ভ’ঁয়া জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করে সড়ক পথে গন্তব্য স্থলে পৌছে যাচ্ছে। সম্প্রতি সাতক্ষিরা পুলিশ ৭ জন নারী পুরুষ শিশুকে আটক করে বৃহস্পতিবার উখিয়া থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করেছে।
সাতক্ষিরা পুলিশের হাতে আটককৃত রোহিঙ্গারা হচ্ছে হাসিনা বেগম(২৫), নুর বেগম (২৭), স্বামী মোঃ সেলিম (৩৫), রশিদা বেগম (৫), জান্নাত আরা (৪), মোঃ সাকের (৭) ও হোছন বানু(৩৫)। উখিয়া থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে এসব রোহিঙ্গাদের রেজিষ্ট্রাট ক্যাম্পে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানিয়েছেন। উদ্ধারকৃত রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলে জানতে চাওয়া হলে তারা একেক সময় একেক কথা বলেন। যার কোন সত্যতার যুক্তি নেই। হাসিনা বেগম (২৫) জানান, তারা ২১ আগষ্ট মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসার সময় এদেশে রোহিঙ্গা অবস্থানের ঠিকানা খুজে পায়নি। যে কারনে তারা সাতক্ষিরা চলেগেছে। তার স্বামী মোঃ সেলিম জানান, স্থানীয় একজন দালাল তাদেরকে মালেশিয়া পৌছে দেওয়ার কথা বলে সাতক্ষিরা নিয়ে যায়। সে খানে এক হোটেলে দুই দিন অবস্থান করার পর ওই দালাল তাদের সমস্ত টাকা পয়সা হাতিয়ে নিয়ে ছটকে পড়ে। পরে অনেকদিন ধরে তারা সেখানে বাড়ীর কাজ ও ভিক্ষা করে ছেলে মেয়ে নিয়ে কোন রকম দিন যাপন করে। খবর পেয়ে সাতক্ষিরা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে।
এদিকে উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক গড়ে উঠা অসংখ্য কম্পিউটার অপরাটারের দোকানে ভ’ঁয়া জাতীয় সনদ পত্র থেকে শুরু করে চেয়ারম্যান সার্টিফিকেট সহ ত্রানের কার্ড পর্যন্ত জাল করে সরবরাহ করার অভিযোগ উঠেছে। মিয়ানমারের নাগরিক এসব কম্পিউটার অপারাটারের বানানো জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করে শতশত রোহিঙ্গা ক্যাম্প ছেড়ে সড়ক পথে দেশের বিভিন্ন স্থানে চলে যাচ্ছে বলে ক্যাম্পের দায়িত্বরত মাঝিরা স্বীকার করেছে। তাজনিমারখোলা ক্যাম্পের কালু মাঝি জানান, বিভিন্ন এনজিও সংস্থা তাদের পছন্দের রোহিঙ্গা যুবকদের নিজের কাজ করার জন্য আইডি কার্ড দিয়েছে। এসব আইডি কার্ড নিয়েও তারা বেপরোয়া চলাচল করছে। সুযোগ বুঝে স্বপরিবারে দেশের বিভিন্ন স্থানে চলে যাচ্ছে। মাছকারিয়া এলাকার প্রত্যক্ষদর্শী গ্রামবাসী মোঃ আলী, আনু মিয়া, শহর আলী সহ একাধিক লোকজন জানান, ভোর রাত থেকে দলে দলে রোহিঙ্গারা ক্যাম্প ত্যাগ করে গ্রামীন জনপদ দিয়ে দক্ষিন দিকে চলে যেতে দেখা যায়। তারা জানান, সড়ক পথে সেনা বাহিনী ও পুলিশের চেকপোষ্ট থাকার কারনে তারা পাহাড়ী পথ ধরে গন্তব্য স্থানে চলে যাচ্ছে। উখিয়ার সহকারী কমিশনার ভুমি একরামুল ছিদ্দিক জানান, ভূঁয়া আইডি কার্ড ব্যবহার করে সড়ক পথে চলে যাওয়ার সময় পুলিশ চেকপোষ্টে আটক হওয়া ৩জন রোহিঙ্গা যথাক্রমে হামিদ হোসেন (২২), নুরুল কবির (২৫) ও এরশাদ উল্লাহ (২৮) কে এক বছর করে সাজা দিয়ে কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান জানান, রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক অবৈধ ভাবে গড়ে উঠা কম্পিউটার ও ইলেকট্রনি´ পার্টসের দোকান গুলোতে ভ্রাম্যমান অভিযান চালানো হবে।

Comments

comments

Posted ১:৪২ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৮

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com