• শিরোনাম

    ৪র্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা-১৮

    ‘নাগরিক সেবায় প্রথম পুরস্কার কক্সবাজার পৌরসভার’

    বার্তা পরিবেশক | ০৭ অক্টোবর ২০১৮ | ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

    ‘নাগরিক সেবায় প্রথম পুরস্কার কক্সবাজার পৌরসভার’

    কক্সবাজারে বর্ণাঢ্য আয়োজনে অনুষ্ঠিত তিনদিন ব্যাপী ‘৪র্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলায়’ রেকর্ড সংখ্যক সর্বোচ্চ নাগরিক সেবা দিয়ে প্রথম পুরস্কার অর্জন করেছে কক্সবাজার পৌরসভা। শনিবার বাহারছড়া গোল চত্ত্বর মাঠে জেলা প্রশাসন আয়োজিত মেলার সমাপনি দিনে মেয়র মুজিবুর রহমানের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জাতীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল বেজা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান (সচিব) পবন চৌধুরী ও জেলা প্রশাসকসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।
    এবারের মেলায় ১২৪টি সরকারী প্রতিষ্ঠানের স্টলের মধ্যে ৩টি ক্যাটাগরিতে ৯টি পুরস্কার দেয় আয়োজকরা। এরমধ্যে নাগরিক সেবা অন্যতম। তাই আগেভাবে অফিস আদেশের মাধ্যমে সরকারী ছুটি বাতিল করে পৌর এলাকায় মাইকিংয়ের মাধ্যমে মেলার মাঠে নিজস্ব স্টলে সব ধরণের সেবা দেয়ার ঘোষনা দেন মেয়র মুজিবুর রহমান। দিয়েছেনও তাই। এবারের উন্নয়ন মেলায় রেকর্ড পরিমান সর্বোচ্চ নাগরিক সেবা দিয়ে বিচারকদের নজর কাড়ে মেলা মাঠের দৃষ্টিনন্দন মিনি পৌরসভাটি। যেখানে নিজে উপস্থিত থেকে টানা তিনদিন পৌরসভার সব ধরণের কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন মেয়র। সেবাগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো-৪ হাজার ১৩৩টি জনসচেতনতামুলক প্রচারপত্র বিতরণ, ৩৬২টি নাগরিক সনদ বিতরণ, ২৫টি ওয়ারিশ সনদ বিতরণ, ৩২৪টি প্রত্যয়নপত্র প্রদান, ১৩২টি মৃত্যু সনদ প্রদান, ২২১টি ট্রেড লাইসেন্স প্রদান, ৪৫৫টি জাতীয়তা সনদ ও প্রত্যয়নপত্র পাওয়ার আবেদন ফরম বিনামূল্যে বিতরণ, স্বাস্থ্য শাখার পক্ষ থেকে ৩৯৬জনকে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো, ২৬৭জনকে সচেতনতামূলক বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান, পানি শাখার পক্ষ থেকে ৭টি নতুন সংযোগ স্থাপনের বিষয়ে আলোচনা, পৌর এলাকার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ৩৯১টি সড়ক বাতি লাগানো এবং ৬টি হাসপাতাল ও ক্লিনিকের সাথে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত চুক্তি সম্পাদন হয় মেলার মাঠ থেকে।
    সন্তোষজনক এসব সেবার কারনে মেলার জেলা প্রশাসন কক্সবাজার পৌরসভাকে প্রথম পুরস্কার প্রদান করে জেলা প্রশাসন। একই ক্যাটাগরিতে ২য় পুরস্কার পেয়েছে কক্সবাজার বিআরটিএ এবং ৩য় হয়েছে কক্সবাজার জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ। এছাড়াও স্টল সৌন্দর্য ক্যাটাগরিতে যৌথভাবে প্রথমস্থান অর্জন করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও বিমান বাহিনী। যেখানে ২য় এবং ৩য় হয়েছে কক্সবাজার উন্নয়ন কতৃপক্ষ ও গণপূর্ত বিভাগ। উন্নয়ন প্রচার ক্যাটাগরিতে প্রথম হয়েছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর, ২য় এবং ৩য় হয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও ইষ্টার্ণ রিফাইনারী লিমিটেড। জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান, পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, কউক চেয়ারম্যান লে.কর্ণেল (অবঃ) ফোরকান আহমদ ও কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের। এছাড়া মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কাজি আবদুর রহমান। পরে কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়। এতে গান পরিবেশন করেন সোলস এবং প্রতীক হাসানসহ স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ