• শিরোনাম

    প্রথম দিনে সেন্টমার্টিন গেলো ৫০৭ যাত্রী

    পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু

    জাকারিয়া আলফাজ, টেকনাফ | ২৭ অক্টোবর ২০১৮ | ১২:৩৩ পূর্বাহ্ণ

    পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু

    পর্যটন মৌসুমের শুরুতে প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে। শুক্রবার (২৬ অক্টোবর) প্রথম দিন টেকনাফ দমদমিয়া জাহাজ ঘাট থেকে কেয়ারী ক্রুজ এন্ড ডাইন ও বে-ক্রুজ নামের দুটি পর্যটকবাহী জাহাজ সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন।
    জানা যায়, জেলা প্রশাসন থেকে কেয়ারী ক্রুজ এন্ড ডাইন, কেয়ারী সিন্দাবাদ ও বে-ক্রুজ এ তিনটি জাহাজকে প্রাথমিক পর্যায়ে পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিন যাত্রার অনুমতি প্রদান করা হয়। এতে পর্যাপ্ত যাত্রী না হওয়ায় কেয়ারী সিন্দাবাদ যাত্রা স্থগিত করলেও কেয়ারী ক্রুজ এন্ড ডাইন ২৭২ জন ও বে-ক্রুজ ২৩৫ জন যাত্রী নিয়ে দুপুর ১২ টায় নিরাপদে সেন্টমার্টিন পৌঁছে। এসময় দ্বীপের বাসিন্দারা পর্যটকদের স্বাগত জানায়।
    সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, সেন্টমার্টিনে পর্যটন জাহাজ চালু হওয়ায় বেকার হয়ে পড়া এলাকার লোকজন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে তাই আমরা দ্বীপবাসী আনন্দিত।
    ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান বলেন,দীর্ঘদিন পর হলেও সেন্টমার্টিনে পর্যটন জাহাজ চালু হওয়ায় এলাকাবাসী আনন্দিত। পর্যটকদের আগমনের ফলে মানুষের জীবিকায়নের কার্যক্রম শুরু হওয়ায় সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
    সেন্টমার্টিন ডাক বাংলোর ইজারাদার সোনা আলী বলেন, সেন্টমার্টিন জাহাজ চলাচল শুরু হওয়ায় আমরা যারা হোটেল ও রেস্টুরেন্ট ব্যবসার সাথে জড়িত তাদের পাশাপাশি দ্বীপের সাধারণ মানুষও খুবই উৎফুল্ল।
    এদিকে দীর্ঘদিন পর প্রবাল দ্বীপে পর্যটকদের পদচারণা এবং স্থানীয়দের উল্লাসে উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে।
    পর্যটকবাহী জাহাজ কেয়ারী ক্রুজ এন্ড ডাইন এর ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ শাহ আলম বলেন, ‘পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিনের যেতে তিনটি জাহাজকে অনুমতি দেয়া হয়েছে। প্রথম দিনে আমাদের জাহাজটি ২৭২ জন যাত্রী নিয়ে যাত্রা শুরু করে। এরমধ্যে পর্যটক ছাড়া স্থানীয় লোকজনও ছিল। পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে এখন থেকে নিয়মিত সেন্টমার্টিন যাতায়ত করবে আমাদের জাহাজটি।’
    কুড়িগ্রাম থেকে বেড়াতে আসা সোহেল আহমদ কালেরকন্ঠকে বলেন, ‘পরিবার পরিজন নিয়ে কক্সবাজার ঘুরতে এসেছিলাম, রাতে জানতে পারি সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে জাহাজ চলাচল শুরু হচ্ছে। তাই ভোরে আর বিলম্ব না করে জাহাজ ঘাটে ছুটে আসা। প্রথম বারের মতো প্রবাল দ্বীপে যাত্রায় পরিবারের সবাই খুশি।’
    টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রবিউল হাসান বলেন, আজ সেন্টমার্টিনের উদেশ্যে পর্যটকবাহী কেয়ারী ক্রুজ এন্ড ডাইন ও বে-ক্রুজ যাত্রা করেছে। পর্যটকদের নিরাপত্তার পাপশাপাশি জাহাজে অতিরিক্ত যাত্রী যাতে নিতে না পারে সে দিকে নজর রাখা হচ্ছে।
    সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, হাওয়ায় বৈরিতা না থাকলে পর্যটকবাহী জাহাজ গুলো সেন্টামার্টিন যাত্রা নিয়মিত অব্যাহত থাকবে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ