শুক্রবার ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম
দুর্ভোগে পৌরবাসী

পৌরশহর জুড়ে রাস্তার উপর দোকান আর দোকান

দীপক শর্মা দীপু   |   সোমবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পৌরশহর জুড়ে রাস্তার উপর দোকান আর দোকান

পৌরশহর জুড়ে রাস্তার উপর বসানো হয়েছে দোকান আর দোকান। রাস্তার দুইপাশ দখল করে এসব দোকানের স্থাপনা গড়ে উঠায় নিয়মিত যানজট লেগেই রয়েছে। অন্যদিকে পথচারিদের চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। এতে ব্যাপক দুর্ভোগে পড়েছে পৌরবাসী। শহরের হাসপাতাল সড়ক, বাহারছড়া, টেকপাড়া, লালদিঘী পাড়, গোলদিঘী পাড়, কলাতলি, বড় বাজার, এন্ডারসন রোডসহ শহরের বিভিন্ন উপসড়কের উপর নির্মান করা হয়েছে দোকান। এমনিতে উপসড়কগুলো সরু। এর মধ্যে সড়কের দুই পাশ দখল করায় ভয়াবহ যানজট কবলে থাকে পুরোশহর। টেকপাড়ার বাসিন্দা সাইফুল ইসলাম জানান,সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে তার অসুন্থ’্য শিশুকে নেয়ার সময় ভয়াবহ যানজট সৃষ্টি হয়। তখন টমটম থেকে নেমে অসুস্থ্য শিশুটিকে কোলে করে হেটে যাওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। সড়কের মাঝখানে যানবাহনের যট আর রাস্তার দুই পাশে সারি সারি দোকান থাকায় হেটে যাওয়ার পথ বন্ধ হয়ে যায়। ঘোনারপাড়ার সাগর দে জানান, প্রতিদিন সকাল ৮ টার দিকে অফিসে যেতে ঘর থেকে বের হলেও অফিসে পৌঁছতে প্রায় সময় ৯ টা পার হয়ে যায়। এর একমাত্র কারন হচ্ছে সড়কের উপর দোকান নির্মানের ফলে যানজট। একইভাবে বাহারছড়া, বড় বাজার, এন্ডারসন রোডে দোকান নির্মান করার কারনে পথচারিদের দুভোর্গ পোহাতে হচ্ছে। প্রতিদিন যানজটসহ নানা দুর্ঘটনা ঘটছে। এ ব্যাপারে কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান জানান, রাস্তার উপর নির্মিত স্থায়ী, অস্থায়ী, ঝুঁপড়ি দোকান উচ্ছেদ করা হবে। খুব দ্রুত সময়ে এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে। শহরের শৃংখলা ফিরিয়ে আনতে এবং যানজট মুক্ত শহর করতে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments

comments

Posted ২:২১ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com