শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

ফরিদুলের নেপথ্যে কারা ?

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ফরিদুলের নেপথ্যে কারা ?

সাংবাদিক পরিচয়ধারি ফরিদুল মোস্তফা খান কেবল চাঁদাবাজি করেই চলে না। চাঁদাবাজির মাধ্যমেই কেবল তিনি বিভিন্ন জনের চরিত্র হননে জড়িত নেই। তার নেপথ্যে ইন্ধনদাতাও রয়েছে। কারা সেই ইন্ধনদাতা ? কারা তাকে ব্যবহার করে বিভিন্ন অনলাইনে লেখালেখির মাধ্যমে সমাজের নানা শ্রেণী-পেশাজীবী সহ সরকারি পদস্থ কর্মকর্তাদের পর্যন্ত চরিত্র হনন করে চলেছে ?
একজন যুদ্ধাপরাধী ও রোহিঙ্গা জঙ্গি সংশ্লিষ্ট পরিবারের সন্তান হয়েও ফরিদুল মোস্তফা খান কিভাবে একটি দৈনিক পত্রিকার ডিক্লারেশন পর্যন্ত পেয়ে যান ? এসবের নেপথ্যেইবা কারা ভুমিকা পালন করে। রাজধানী ঢাকায় গত ক’দিন আগে গ্রেফতার হওয়্ াক্যাসিনো স¤্রাটদের কাহিনীতেই জানা গেছে-ওরা সবাই বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দল ফ্রিডম পার্টি থেকে সরকারি দল এবং সরকারি দল সমর্থিত লোকজনের আনুকুল্য পেয়ে আসছিলেন। তারাই সরকারের সর্বনাশ করে আসছে।
ফরিদুল মোস্তফা খানের বাসা থেকে অস্ত্রশস্ত্র ও মাদক উদ্ধারের পর দাবী উঠেছে সরকার বিরোধী কারা তাকে উস্কানি দিয়ে আসছে ? সেই সাথে সরকারি দলের ভিতর ঘাপটি মেরে থাকা ইয়াবা করবারিদেরও মুখোশ উন্মোচন করা দরকার-কারা তাকে মোটা অংকের টাকা দিয়ে এসব অপকর্মে তাকে সহযোগিতা দিয়ে আসছে ?
অনেকেই মনে করছেন, কক্সবাজারে বর্তমানে শান্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এরকম শান্ত পরিস্থিতিতে সরকারি-বেসরকারি কর্মকান্ডে গতি আসে। সেই গতি অনেকেরই কাছে অপছন্দ। তাই কৌশলে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের একজন শক্ত বিরুদ্ধাচারের দরকার। এতে স্থান হয়েছে চিহ্নিত এই ব্যক্তির। এ কারনেই তাকে নানাভাবে সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে স্বাধীনতা বিরোধী চক্র।
জানা গেছে, ফরিদুল মোস্তফা খান অনেকদিন আগে থেকেই এলাকার ভদ্র সমাজের নানা ব্যক্তিকে টার্গেট করে লেখালেখি করে আসছিল। বিশেষ করে বর্তমান সরকারকে যারা সমর্থন করে আসছেন সেইসব ব্যক্তিকেই তিনি টার্গেট করে থাকে। কয়েক বছর আগে কক্সবাজারের বিশিস্ট সাংবাদিক ও জাতীয় দৈনিক প্রথম আলো’র কক্সবাজার অফিস প্রধান আবদুল কুদ্দুসের বিরুদ্ধেও মানহানিকর লেখালেখি করেছিলেন গ্রেফতার হওয়া ফরিদুল।
এসব লেখার জন্য সাংবাদিক আবদুল কুদ্দুস রানা আদালতের শরনাপন্ন হয়ে মামলা করেছিলেন। আদালত ফরিদুলকে দোষী সাব্যস্থ করে ৬ মাসের কারাদন্ডাদেশ দিয়েছিলেন।
স্থানীয় মহল দাবি করেছে-গ্রেফতার হওয়া ফরিদুল মোস্তফা খানকে রিম্যান্ডে এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসা করা দরকার। কেননা তার নেপথ্যের সহযোগিতাকারিদের পরিচয় বের করা দরকার। ##

Comments

comments

Posted ১:২৯ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com