শুক্রবার ২৮শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

বিলাসিতার জন্য নয় শিক্ষার্থীদের করোনার ভ্যাকসিন দিতে এসি বসালেন চেয়ারম্যান

মোহাম্মদ শাহাবউদ্দীন, মহেশখালী   |   মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারি ২০২২

বিলাসিতার জন্য নয় শিক্ষার্থীদের করোনার ভ্যাকসিন দিতে এসি বসালেন চেয়ারম্যান

মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়ন পরিষদে বিলাসিতার জন্য নয় শিক্ষার্থীদের করোনার ভ্যাকসিন দিতে এসি বসালেন চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক চৌধুরী। সম্প্রতি সরকার ১২-১৮ বছরের ছাত্রছাত্রীদের করোনার ভ্যাকসিন নিতে নির্দেশনা প্রদান করে। উক্ত নির্দেশের ফলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কতৃপক্ষ সরকার থেকে বরাদ্ধ পাওয়া টিকা অতিউন্নত ও এসি গাড়ীতে পরিবহন ও এসি রুমে টিকা শরীরে প্রদান করতে হয়। শাপলাপুর, কুতুবজোম, ছোট মহেশখালী, বড় মহেশখালী, ধলঘাটায় এসি রুম বা কক্ষ পাওয়া না যাওয়ায় টিকা প্রদানের সিডিউল ঠিক করে। এ

তে বড় মহেশখালী, ছোট মহেশখালী, কুতুবজোম ও শাপলাপুরকে উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে, ধলঘাটা কে মাতারবাড়ীতে টিকা প্রদানের স্থান নির্ধারণ করে পত্র ও গন বিজ্ঞপ্তি জারি। একপর্ষায়ে বড় মহেশখালী, ছোট মহেশখালীর ছাত্রছাত্রীদের ঠিকা প্রদান শুরু হয়েছে। আগামী ১৩ ও ১৫ জানুয়ারী শাপলাপুর ইউনিয়নের শাপলাপুর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় ৬০৬ জন, যাইটমাৱা দাখিল মাদ্রাসা ৩২৮ জন, কায়দাবাদ ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা ১২০জন, শাপলাপুর নিম্ন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় ৬০ জন, যাইটমার রেসিডেনসিয়াল নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৫০ জন, বারিয়া পাড়া মডেল একাডেমি ৭০ জন, আলহাজ্ব মাষ্টার আবদুল গণি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪০ জন, শাপলাপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ১৩৪৭ জন, জেমঘাট নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৮৩৫ জন। মোট ৩ হাজার ৪৫৬ জন ছাত্রীকে উপজেলা পরিষদে এসে টিকা নেওয়ার কথা ছিল। দীর্ঘ ২০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে উপজেলা পরিষদে এসে টিকা দিতে যাতায়েতে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা ব্যায়। এবং সন্তানদের জন্য চিস্তিত হয়ে পড়ে অভিভাবকরা। ছাত্রছাত্রীদের উৎকন্ঠার কথা চিন্তা করে নিজ খরচে লাখ টাকা ব্যায়ে ইউনিয়ন পরিষদে ১১ জানুয়ারি রাত পর্ষন্ত কাজ করে এসি স্থাপন করেন।

পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে অবগত করলে তিনি শাপলাপুরে গিয়ে এসি রুম পাওয়া সাপেক্ষে করোনা ভ্যাকসিন প্রদানের সিদ্ধান্ত জানান। উক্ত সিদ্ধান্ত জানার পর থেকে অভিভাবক ও ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে।

শাপলাপুর ইউনিয়েরর চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক চৌধুরী জানান, বিলানিতার জন্য এসি স্থাপন করি নাই, একমাত্র ছাত্রছাত্রীদের কথা চিন্তা করে নিজে লাখ টাকা করে এসি স্থাপন করেছি। এর ফলে ছাত্রছাত্রীদের প্রায় ৪ লক্ষ টাকা বাচানো এবং দুরের যাত্রা ও নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে দ্রুত এসি বসানো হয়েছে। এখন উপজেলায় নই শাপলাপুরের ছাত্রছাত্রীরা ইউনিয়ন পরিষদের এসি রুমেই টিকা গ্রহণ করবে।

মহেশখালী হাসপাতালের প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা ডাঃ মাহফুজুল হক বলেন, শাপলাপুরের চেয়ারম্যানের অক্লান্ত পরিশ্রমে পরিষদে এসি স্থাপন করা হয়েছে ফলে শাপলাপুরের ছাত্রছাত্রীদের টিকা ১৩ ও ১৫ জানুৃযারী শাপলাপুর পরিষদে দেওয়া হবে।

Comments

comments

Posted ৮:৪৫ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারি ২০২২

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com