• শিরোনাম

    খাল কেটে কুমির........!

    বেড়িবাঁধ কেটে বেড়িবাঁধ মেরামত

    লিটন কুতুবী, কুতুবদিয়া | ১৩ জুলাই ২০১৮ | ৯:৪৪ অপরাহ্ণ

    বেড়িবাঁধ কেটে বেড়িবাঁধ মেরামত

    জরুরী ভিত্তিতে বেড়িবাঁধ মেরামতের নাম ভাঙ্গিয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)কর্তৃপক্ষের নিয়োগ প্রাপ্ত ঠিকাদার বেড়িবাঁধ কেটে বেড়িবাঁধ মেরামত করছে। যা খাল কেটে কুমির ডোকাচ্ছে। পাউবোর ৭১ পোল্ডারের জরুরী ভিত্তিতে বেড়িবাঁধ মেরামত কাজে অনিয়মের কথা স্থানীয় জনগন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের নিকট তুলে ধরেন। এ অভিযোগের ভিত্তিতে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম নুরুল বশর চৌধূরী পাউবোর ৭১ পোল্ডারের কাহারপাড়া,কাজি পাড়া, তেলিপাড়া,বায়ুবিদ্যুৎ ,তাবলরচর এলাকা স্থানীয় সাংবাদিকদের নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন। সরেজমিনে কাহারপাড়া,তেলিপাড়া,কাজিপাড়া,তাবলরচর,কুমিরারছড়া,জেলে পাড়া

    এলাকায় গেলে দেখা যায়,বেড়িবাঁধ কেচে বেড়িবাঁধ মেরামত করা হচ্ছে। কাজি পাড়ার জায়দা বেগম (৫৫)বাশি মিয়া (৬০)জানান, বিভিন্ন সময়ে ঘূর্ণিঝড়,জ্বলোচ্ছাসে তাদের ঘরবাড়ি ভেঙ্গে নিয়ে যায়। বর্তমানে নিজ বসতভিটি বেড়িবাঁধের সাথে লাগোয়া। গত পূর্ণিমার জোয়ারে সিসি ব্লকের বেড়িবাঁধের উপর দিয়ে জোয়ারের পানি ডুকে লোকালয় তলিয়ে যায়। গত দুই সপ্তাহ ধরে বেড়িবাঁধ মেরামত করার জন্য মাটি কাটার গাড়ি দিয়ে বেড়িবাঁধ কেটে বাঁেধর উপর ভরাট করছে। চলতি বর্ষা মৌসুমে অতি বৃষ্টি পাতের ফলে বাঁধ থেকে বালি উত্তোলিত গর্তে পাশ্ববর্তী ঘর ভেঙ্গে পড়েছে। তার পাশাপাশি মেরামত করা বাঁধ ভেঙ্গে পূনরায় ভরাট হয়ে যাচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন শেষে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম নুরুল বশর চৌধূরী সাংবাদিকদের সমস্যাগুলো জানান।

    বাঁধ কেটে বাঁধ মেরামত করার কোন দরকার ছিল না। যেভাবে বাঁেধর পাশে গর্ত করা হয়েছে তা বৃষ্টিতে পূনরায় বাঁধ ভেঙ্গে ভরাট হয়ে যাচ্ছে। বাঁেধর পাশ্ববর্তী বসবাসরত লোকজন ও শিশুরা মারাতœক ঝুকিঁতে রয়েছে। এহেন অনিয়ম সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সরেজমিনে তদন্ত করার জন্য তিনি অনুরোধ জানান। এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল হাছানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, চলতি বর্ষা মৌসুমে ঝুকিপূর্ণ বাঁধ জরুরী ভিত্তিতে মেরামত করার জন্য পাউবোর ৭১ পোল্ডারের কাহারপাড়া,কাজিরপাড়া,তেলিপাড়া,বায়ুবিদ্যুৎ এলাকায় বাঁেধর উপর জিও ব্যাগ দ্বারা বালি ভর্তি করে রক্ষা বাঁেধর জন্য প্রায় দেড় কোটি টাকা বরাদ্দ দেয় পাউবো কর্তৃপক্ষ।

    বর্তমানে জরুরী মেরামতের কাজ চলমান। অনিয়মের কথা তিনি শুনেছেন। অতিসত্বর সরেজমিনে কাজ পরিদর্শনে যাবেন বলে জানান। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি জাহাঙ্গির আলম জানান,জোয়ারের পানি লোকালয়ে যাতে ডুকতে না পারে সে জন্য জরুরী ভিত্তিতে বাঁেধর পাশ থেকে বালি নিয়ে জিও ব্যাগ ভর্তি করে বাঁধ মেরামত করা হচ্ছে। সাগরের বালি দিয়ে খননকৃত গর্তগুলো পূনরায় ভরাট করা হবে বলে নিশ্চিত করেন।

    কুতুবদিয়া পাউবোর শাখা কর্মকর্তা (এসও) এলটন চাকমার সাথে কথা হলে তিনি জানান, লোকালয় জোয়ারে প্লাবিত না হওয়ার জন্য জরুরী ভিত্তিতে বাঁেধর পাশ থেকে বালি নেয়া হয়েছে। নিয়োগপ্রাপ্ত ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান থেকে লিখিত নেয়া হয়েছে খননকৃত গর্তগুলো ভরাট করার জন্য। অতিসত্বর তা বাস্তবায়ন করা হবে। দেশবিদেশ /১৩ জুলাই ২০১৮/নেছার

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ