• শিরোনাম

    ভ্যাকসিন গ্রহীতা অসুস্থ, অক্সফোর্ডের ট্রায়াল স্থগিত

    দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক | ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৯:৩০ অপরাহ্ণ

    ভ্যাকসিন গ্রহীতা অসুস্থ, অক্সফোর্ডের ট্রায়াল স্থগিত

    বিশ্বব্যাপী আশার আলো ছড়ানো যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল স্থগিত করা হয়েছে। ভ্যাকসিন গ্রহীতা একজন অসুস্থ হয়ে পড়ায় এ সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।

    বিবিসির খবরে বলা হয়, আপাতত অসুস্থ হয়ে পড়া ওই ব্যক্তিতে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এই ভ্যাকসিন উৎপাদনে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্টনার অ্যাস্ট্রাজেনেকা আশা করছে, খুব শিগগিরই ফের ট্রায়ালটি শুরু করা যাবে।

    করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই এর ভ্যাকসিনের খোঁজে হন্যে হয়ে ঘুরছে বিশ্ব। বিশ্বের অনেক দেশেই শুরু হয়েছে ভ্যাকসিন নিয়ে গবেষণা। এরই মধ্যে বেশকিছু দেশে ভ্যাকসিন তৈরির কাজ অনেকটা এগিয়েও গিয়েছে। তথ্য বলছে, এর মধ্যে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই ভ্যাকসিনটিই সবচেয়ে এগিয়ে থাকা ভ্যাকসিনগুলোর মধ্যে অন্যতম।

    খবর বলা হয়, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকা’র করোনা ভ্যাকসিন নেওয়া একজন ব্যক্তির অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণে ট্রায়াল স্থগিত করতে হলেও একে ‘রুটিন’ কার্যক্রম হিসেবে অভিহিত করেছে অ্যাস্ট্রেজেনেকা। তারা বলছে, বড় বড় ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ক্ষেত্রে এমনটি হয়ে থাকে। তবে যে ব্যক্তিটি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন, তার অসুস্থতার ধরন সম্পর্কে কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি।
    অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন মুখপাত্র এ বিষয়ে বলেন, বড় বড় ট্রায়ালের ক্ষেত্রে কেউ কেউ এমনিতেই অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। তবে এরকম কোনো ঘটনা ঘটলে আলাদাভাবে তার সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হয়ে থাকে। জানার চেষ্টা করা হয়, তার অসুস্থতার পেছনে ভ্যাকসিনের কোনো ভূমিকা রয়েছে কি না।
    করোনার এই ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে ওই ব্যক্তির অসুস্থতা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানার আগ পর্যন্ত এর ট্রায়াল বন্ধ থাকবে সব জায়গায়। স্বতন্ত্রভাবে ওই ব্যক্তির শারীরিক অবস্থার তথ্য জানার পর ট্রায়াল শুরু করতে চাইলে নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমতি লাগবে।

    এ ক্ষেত্রে অসুস্থ ব্যক্তির শারীরিক অবস্থার তথ্য না মিললেও সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন, খুব শিগগিরই তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন এবং ট্রায়ালও শুরু করা যাবে।
    করোনার এই ভ্যাকসিনের এটি তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চলছে। এর আগে প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের ট্রায়াল সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছিল। তৃতীয় ধাপে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশের প্রায় ৩০ হাজার মানুষের ওপর প্রয়োগ করা হচ্ছে ভ্যাকসিনটি। এই ধাপে সাফল্য মিললেই বাজারজাত করার জন্য প্রস্তুত হয়ে উঠবে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন। অনেকেই আশা করছেন, এই সাফল্যের মাধ্যমে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনটিই হয়ে উঠবে বিশ্বের প্রথম বাণিজ্যিক করোনা ভ্যাকসিন।

    দেশবিদেশ/নেছার

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    মাতারবাড়ী ঘিরে মহাবন্দর

    ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ