রবিবার ২৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

ভয়ানক কৃষ্ণগহ্বরের কথা

দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক   |   শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০১৯

ভয়ানক কৃষ্ণগহ্বরের কথা

প্রথমবারের মতো কৃষ্ণগহ্বরের ছবি প্রকাশ করলো বিজ্ঞানীরা৷ এর মধ্য দিয়ে এ মহাবিশ্ব সম্পর্কিত প্রচলিত অনেক ধারণাই স্পষ্ট হবে বলে আশা করছেন তাঁরা৷

অসীম শক্তির কৃষ্ণগহ্বর: ১০০ বছর আগে জার্মান বিজ্ঞানী আলবার্ট আইনষ্টাইন কৃষ্ণগহ্বরের চতুরতা আর রহস্যের কথা বলেছিলেন৷ শত বছরের গবেষণায় তারই প্রমাণ হলো৷ এই মহাবিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কৃষ্ণগহ্বর অত্যন্ত চতুর, কেননা ক্ষণে ক্ষণে রূপ পালটায় তারা৷ কৃষ্ণগহ্বের অসীম শক্তির কাছে হার মানে সব কিছুই, এমনকি আলোও৷ আর যে কারণে, কৃষ্ণগহ্বরের আবস্থান আন্দাজ করতে পারলেও, এর ছবি তোলা সম্ভব হচ্ছিল না জ্যোতির্বিদদের পক্ষে৷

তাহলে উপায়?

প্রায় শত বছর চেষ্টার পরে একটি উপায় খুঁজে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা৷ আর তা হচ্ছে, কৃষ্ণগহ্বরের উপরে নয়, টেলিস্কোপ ফেলতে হবে গহ্বরের চারপাশের ছায়ার উপর৷ আর সেটিই করেছেন তাঁরা৷ আটটি শক্তিশালী রেডিও টেলিস্কোপ ব্যবহার করে কৃষ্ণগহ্বরের চারপাশের ছায়ার ইমেজ ধারণ করেন তাঁরা৷ আর তখনই ধরা পড়ে উজ্জ্বল এ ছায়ার মাঝখানে কালো বৃত্তটি৷ তবে বৃত্ত নয়, এটিই হলো অন্ধকার, অসীম আর শক্তিধর কৃষ্ণগহ্বর৷

কোথায় এটি?

যে কৃষ্ণগহ্বরটির ছবি বিজ্ঞানীরা তুলতে পেরেছেন সেটি হলো সুপারম্যাসিভ কৃষ্ণগহ্বর৷ এক রকম অগণিত দূরত্বেই কৃষ্ণগহ্বরটির অবস্থান৷ বিজ্ঞানীরা বলছেন, পৃথিবী থেকে ক্ষুধার্ত এ গহ্বরটি ৫৩ মিলিয়ন আলোকবর্ষ দূরে এম৮৭ নামে এক ছায়াপথে৷ আর এক আলোকবর্ষ সমান ৯.৫ ট্রিলিয়ন কিলোমিটার৷ সে হিসেবে, পৃথিবী থেকে সুপারম্যাসিভ এ কৃষ্ণগহ্বরটির দূরত্ব মাপা আমাদের অনেকের পক্ষেই সম্ভব নয়৷

কী হবে এখন?

কৃষ্ণগহ্বরের রয়েছে ধারণার অতীত মধ্যাকর্ষণ শক্তি৷ যে কারণে, যে কোন জিনিস এমনকি আমাদের প্রিয় পৃথিবীর মতো কয়েক শত বা হাজার গ্রহকে সে দুমড়ে মুচড়ে গিলে ফেলতে পারে৷ তবে ধারণাতীত এ রহস্যের উন্মোচন করা গেলে বর্তমানে প্রচলিত মহাবিশ্ব সম্পর্কিত সকল ধারণাই পালটে ফেলতে হবে বলে জানিয়েছিলেন বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিন্স৷

কত খরচ হলো?

আন্তর্জাতিক ইভেন্ট হরিজন টেলিস্কোপ প্রকল্পের আওতায় কৃষ্ণগহ্বরকে সরাসরি পর্যবেক্ষণ করতে ২০১২ সাল থেকে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন বিজ্ঞানীরা৷ আর এ প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছিল ৫০ থেকে ৬০ মিলিয়ন ডলার৷ সূত্র: ডয়েচে ভেলে।

Comments

comments

Posted ১০:৪৬ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com