শনিবার ১০ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৭শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

মহেশখালীতে স্ত্রীর সাথে অভিমান করে স্বামীর রহস্যজনক আত্মহত্যা

মোহাম্মদ শাহাব উদ্দীন, মহেশখালী :   |   শনিবার, ১১ এপ্রিল ২০২০

মহেশখালীতে স্ত্রীর সাথে অভিমান করে স্বামীর রহস্যজনক আত্মহত্যা

মহেশখালীতে স্ত্রীর সাথে অভিমান করে আলতাজ মিয়া(৪০)নামে এক স্বামীর রহস্যজনক আত্মহত্যা করার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড চরপাড়া এলাকায় ১১ এপ্রিল সকাল ৯ টায়। আলতাজ মিয়া (৪০) একই উপজেলার কুতুবজোমের ইউনিয়নের নুরু মিয়ার ছেলে। কিন্তু গোরকঘাটা চরপাড়া এলাকার সেকান্তর মাঝির মেয়ে নয়ারা বেগম কে বিয়ে করার সুবাধে সে শাশুর বাড়ী চরপাড়া এলাকায় বাড়ী করে বসবাস করে আসছিল। নিহতের তার ২ মেয়ে এক ছেলে রয়েছে। মহেশখালী থানার এস আই খোকনের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থাল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রতিবেশী সুত্রে জানাযায়, স্ত্রীর পরকীয় নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিষয়ে স্থানীয় ভাবে কয়েকবার বিচার সালিশও হয়েছে। তারপরও স্ত্রীর পরকীয়ায় লিপ্ত থাকায় পারিকারিক কলহের জের ধরে বাড়ির ভিতরে গামছা দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করতে পারেন বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছে স্থানীয়রা। এছাড়াও সেকান্তর মাঝির ছেলেমেয়েরা প্রায় সময় মারধর ও নির্যাতন করত। তা সহ্য করতে না পেরে একসময় সে মালয়েশিয়া চলে গিয়েছিলো ।
সম্প্রতি মালয়েশিয়া হতে দেশে এসে নিজে ঘর করে বসবাস করলেও তার উপর শারিরীক ও মানসিক নির্যাতনের মাত্রা কোন অবস্থাতেই থামেনি। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ হলে তার স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বাপের বাড়ীতে চলে যায়।

নিকট প্রতিবেশী ও গনমাধ্যমকর্মী আ ন ম হাসান জানান নিহতের স্ত্রীর সাথে “ঝ” অক্ষরের ব্যাক্তির সাথে সেই লেভেলের পরকীয়া তো আছে। যা এলাকায় মুখরোচক কথা হিসেবে জমিয়ে মজা করে লোকজন। নিজের ব্যার্থতা, মা বাবাকে নির্যাতনের অপমান, বউ ও শশুরপক্ষের নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে বেচারা আত্মহত্যার মতো পথে বেঁচে নিলো ! বলে মন্তব্য করেন।
এদিকে নিহতরে স্ত্রী নয়রা বেগম স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্য থাকার কথা স্বীকার করলেও কেন আত্মহত্যা করতে পারে তা তিনি জানেন না বলেও জানান।

মহেশখালী থানার পরিদর্শক(তদন্ত) বাবুল আজাদ বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে তদন্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Comments

comments

Posted ৭:৪৮ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১১ এপ্রিল ২০২০

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com