• শিরোনাম

    মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মরত পেন্টার তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

    মোহাম্মদ শাহাবউদ্দীন,মহেশখালী | ২১ জুন ২০২০ | ১:৪১ অপরাহ্ণ

    মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মরত পেন্টার তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

    মহেশখালীর মাতারবাড়ীর কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মরত বাঙালী কর্মকর্তা শাহরিয়া ,ছালাউদ্দীন ও আনোয়ার চাকুরী করার সুবাদে মাতারবাড়ীর বাহিরের লোকজন নিয়ে একটি সিন্ডিকেট করে ঠিকাদারী কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

    এতে স্থানীয় সাব ঠিকাদাররা এসব কাজ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।স্থানীয় ঠিকাদাররা কাজ না পাওয়ায় তাদের অধীনে থাকা স্থানীয় শত শত রাজমিস্ত্রি সহ বিভিন্ন শ্রমিক বেকারত্বে জীবন -যাপন করতে হচ্ছে। জানা যায়,মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পে আন্তর্জাতিক মানের ১২ টি ঠিকাধারী প্রতিষ্টান কাজ করছেন।টেন্ডারে পাওয়া এসব কাজ খন্ড খন্ড করে আথবা বিভিন্ন প্যাকেজ করে স্থানীয় ঠিকাদারদের মাঝে টেন্ডার দেয়া হয়।স্থানীয় ঠিকদাররা তা নিয়ে এলাকার শ্রমিকদের দিয়ে এসব টেন্ডারের কাজ সম্পন্ন করতেন।কিন্তু বেশ কয়েক মাস ধরে অভিযোগ উঠছে পেন্টার কর্মকর্তা শাহারিয়া,ছালাউদ্দীন ও আনোয়ার এর নেতৃত্বে একটি সিন্ডিকেট করে এসব টেন্ডারের কাজ চুক্তি ভিত্তিক চকরিয়া ও চালিয়াতলীর একটি সিন্ডিকেটের কাছে দিয়ে দিচ্ছেন।ফলে স্থানীয় ঠিকাদাররা এ সব কাজ না পাওয়ায় কয়েকটি স্থানীয় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ইতিমধ্যেই তাদের কার্যক্রম গুটিয়ে ফেলেছে।পাশাপাশি এসব প্রতিষ্ঠানের অধীনে থাকা কয়েক শত দিনমজুর এখন বেকার হয়ে পড়েছে।মাতারবাড়ী বাসীর অভিযোগ স্থানীয় কয়েক জন ব্যক্তিকে সুবিধা দিয়ে চাকুরী করার পাশাপাশি এ তিন কর্মকর্তা প্রতি মাসে প্রকল্প থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।এমনকি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ঠিকাদার জানান,টেন্ডারের প্রতি কাজে সুবিধা দিয়ে শাহরিয়ার নেতৃত্বাধীন সিন্ডিকেট শতকরা ৩০% কর্তন করে নিচ্ছে।তাদের এ চাহিদা স্থানীয়রা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় বাহিরের ঠিকাদারদের এসব কাজ পাইয়ে দিচ্ছেন। এ ভাবে চলছে হরিলুঠ।বেকার হচ্ছে স্থানীয়রা।ভুত্তভোগী বাদশাহ,রমিজ ও আশেক সহ অনেকে জানান চাকরী,ঠিকাদারী ছাড়া ও এ তিন কর্মকর্তা শ্রমিক নিয়োগ বাণিজ্য করায় স্থানীয় শ্রমিকরা চাকুরিচ্যুত হচ্ছে। এর প্রেক্ষিতে মাতারবাড়ীর শ্রমিকরা গত ১৬ জুন প্রকল্প এলাকায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশও করে।
    এ বিষয়ে জানতে চাইলে,শাহরিয়া বলেন, তারা কোন ধরণের অনিয়ম করছেন না। তাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় কিছু লোক যড়যন্ত্র করছে।

    এ প্রসঙ্গে মাতারবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আবু হায়দার বলেন স্থানীয় শ্রমিকের চাকরিচ্যূত করাসহ ব্যবসা বাণিজ্য জড়িয়ে পড়া দুর্নীতিগ্রস্থ বাঙ্গালি অফিসারদের সরিয়ে দিতে হবে। তারা হয় চাকরি করবে নয়তো ব্যবসা করুক। এভাবে কমিশন বাণিজ্য কিছুতেই মেনে নেয়া যায়না। তিনি বিষয়টি সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ