মঙ্গলবার ১৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১লা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

‘মায়েরাই পারেন সন্তানদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে’

দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক   |   শনিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

‘মায়েরাই পারেন সন্তানদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে’

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, মায়েরাই পারেন সন্তানদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে। মায়ের আদর্শে পরিচালিত করে সন্তানদের মাধ্যমে আদর্শ সমাজ, সমৃদ্ধশালী দেশ গড়ে তুলতে পারেন।

শনিবার বিকালে রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) ঢাকা কেন্দ্র এবং দি ইঞ্জিনিয়ার্স ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘দি ইঞ্জিনিয়ার্স-রত্মগর্ভা মা ২০১৯’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। আইইবি’র অডিটরিয়ামে এর আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের সহযোগিতায় ছিল বসুন্ধরা সিমেন্ট।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী মো. শাহাদাৎ হোসেন (শীবলু)। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন আইইবি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. নুরুজ্জামান, সম্মানী সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মনজুর মোর্শেদ, বসুন্ধরা সিমেন্টের চিফ মার্কেটিং অফিসার খন্দকার কিংশুক হোসেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান মো. ওয়ালিউল্লাহ সিকদার। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দি ইঞ্জিনিয়ার্স ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ তাজুল ইসলাম তুহিন।

প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা আরও বলেন, আজকের শিশুরাই আগামীকাল রাষ্ট্র পরিচালনা করবে। শিশুদের গড়ে তুলতে মায়েরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। একজন মা শুধু মা’ই নন তিনি শিশুর প্রথম ও প্রধান শিক্ষক। সন্তানই মায়ের সঙ্গে সব থেকে বেশি সময় কাটায়। সবশিশুর শিক্ষার হাতে খড়ি মায়েদের হাতেই। মায়েরা যত আদর, ভালবাসা দিয়ে সন্তান পরিচর্যা করেন অন্যদের পক্ষে তা অসম্ভব। নারীদের অধিকার রক্ষায় বঙ্গবন্ধু সবথেকে বেশি কাজ করেছেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে কথা হয় ঠাকুুরগাও জেলার রত্মগর্ভা মা মোছা: রওশন আরা’র সঙ্গে। কঠোর পরিশ্রম ও অদম্য ইচ্ছাশক্তির ফলে তার সব ছেলেমেয়ে সুশিক্ষিত ও প্রতিষ্ঠিত। তিন ছেলে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করে সরকারি চাকরিতে উচ্চপদে কর্মরত। তার প্রথম ছেলে এবিএম গোলাম রব্বানী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, দ্বিতীয় ছেলে প্রকৌশলী মো. রুহুল আমিন বরিশাল সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ। তৃতীয় ছেলে মো. আব্দুর রাজ্জাক রংপুর সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী অধ্যাপক। চতুর্থ ছেলে ড. একেএম জিলানী রাব্বী পোস্ট ডক্টরাল ফেলো ও দক্ষিণ কোরিয়ার সূনচন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা। পঞ্চম ছেলে ড. এবিএম রুবাইয়াত বোস্তামী গাজীপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক। এছাড়া তার মেয়ে রাশিদা বেগম পঞ্চগড়ে তেতুলিয়ায় কামাতপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

অনুষ্ঠানে ৬০ জন রত্মগর্ভা মা’কে সম্মাননা দেওয়া হয়। রত্মগর্ভাদের উত্তরীয় পরিয়ে তাদের হাতে মেডেল, ক্রেস্ট, সার্টিফিকেট ও সুভিন্যিয়র তুলে দেন অতিথিরা। অনুষ্ঠান শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

Comments

comments

Posted ১০:২৯ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com