• শিরোনাম

    কথায় আর কাজে মিল নেই মিয়ানমারের

    মিয়ানমার সীমান্তরক্ষীর গুলিতে রোহিঙ্গা শিশু আহত

    শফিক আজাদ,উখিয়া | ২৮ জুন ২০১৮ | ১১:২৫ অপরাহ্ণ

    মিয়ানমার সীমান্তরক্ষীর গুলিতে রোহিঙ্গা শিশু আহত

    নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু সীমান্তের কোনারপাড়া শূণ্যরেখায় আশ্রিত রোহিঙ্গা শিশু মোহাম্মদ আবছার (১৩)কে গুলি করে গুরুতর আহত করেছে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বিজিপি’র সদস্যরা। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে। আহত আবছারকে উখিয়ার কুতুপালং এমএসএফ পরিচালিত হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সে শূণ্যরেখা ক্যাম্পের জমির উদ্দিনের ছেলে বলে জানা গেছে। ঠিক ওই সময় মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী (বিজিপি)’র বাংলাদেশ বর্ডার গাড বিজিবি মধ্যে আঞ্চলিক কমান্ডার পর্যায়ের পতাকা বৈঠক চলছিল কক্সবাজার বিজিবি’র ব্যাটলিয়ানে। বৈঠক শেষে বিকালে উপস্থিত সাংবাদিকদের ব্রিফিং করে কক্সবাজারে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের আঞ্চলিক কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম রাকিবুল্লাহ জানান, ‘কোনারপাড়ায় জিরো পয়েন্টে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে মাইকিং ও সীমান্তে সেনা মোতায়েনের বিষয়েও কড়াভাবে তাদের সতর্ক করা হয়েছে।

    এই বিষয়টি তারা গুরুত্ব সহকারে দেখবেন বলে আশ্বাস করলেও মূলত কথায় আর কাছে মিল নেই মিয়ানমারের। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে ৯ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের কক্সবাজার আঞ্চলিক কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম রাকিবুল্লাহ। আর মিয়ানমারের পক্ষে ১২ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন বর্ডার গার্ড পুলিশের মংডু আঞ্চলিক কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাঈন ত্যুইয়ে। এদিকে কোনারপাড়া শূণ্যরেখার রোহিঙ্গা নেতা প্রত্যক্ষদর্শী দিল মোহাম্মদ জানান, মোহাম্মদ আবছার শূণ্যরেখাস্থ কাটা তারের বেড়া সংলগ্ন এলাকায় জ¦ালানীর জন্য লাকড়ি কুড়াচ্ছিল। এসময় বিজিপি’র সদস্যরা আবছারকে লক্ষ্য করে গুলি করলে সে গুরুতর আহত। তিনি আরো বলেন, মিয়ানমার কুটকৌশলের আশ্রয় নিয়ে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে তা আদৌ বাস্তবায়ন হবে কিনা সন্দেহ রয়েছে।

    শূণ্যরেখার আরেক রোহিঙ্গা নেতা মৌলভী আরফাত জানান, রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে মিয়ানমার কর্মকান্ড করে যাচ্ছে আসলে তা শুধুমাত্র কালক্ষেপন। প্রকৃতপক্ষে রোহিঙ্গাদের যদি মিয়ানমার ফিরিয়ে নিয়ে যায়, তাহলে পতাকা বৈঠক চলাকালীন সময়ে শূণ্যরেখার রোহিঙ্গাদের উপর গুলি করতো না মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিপি)। এতেই প্রমাণ হয়, এগুলো তাদের আইওয়াচ। ঘুমধুম পুলিশ ফাড়ির পরিদর্শক ইমন চৌধুরী বলেন, কোনার পাড়ায় আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণের ঘটনা তিনি স্থানীয়দের মাধ্যমে জেনেছেন।

    গুলিবিদ্ধ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করে উখিয়াস্থ কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে তিনি জানান। কক্সবাজার ৩৪ বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্ণেল মনজুরুল হাছান খাঁন কোনারপাড়া শূণ্যরেখা ক্যাম্পে আশ্রিত রোহিঙ্গা শিশু মোহাম্মদ আবছার গুলিবিদ্ধ হওয়ার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সীমান্ত কাটাতারের সন্নিকটে ওই রোহিঙ্গা ছেলেটি লাকড়ি সংগ্রহ করতে গেলে মিয়ানমারের বিজিপি’র সদস্যরা তাকে গুলে করে। তবে সীমান্ত পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তিনি এও বলেন, বিজিপি প্রতিনিধিদল পতাকা বৈঠকে শূণ্যরেখার রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে আশ^স্থ করেছেন।

    দেশবিদেশ/ ২৮ জুন ২০১৮/ নেছার

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ