বৃহস্পতিবার ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

বিজিবি ফেরত পাঠিয়েছে ৭ জন রোহিঙ্গা

রাতের আঁধারে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ

জাকারিয়া আলফাজ,টেকনাফ   |   শনিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

রাতের আঁধারে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ

টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে গভীর রাতে আকস্মিকভাবে অনুপ্রবেশ করেছে মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের একটি দল। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের পর এসব রোহিঙ্গা নাফ নদের ঘোলার চর দিয়ে অনুপ্রবেশ করেছিল।
টেকনাফস্থ ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটলিয়ন (বিজিবি) নাফ নদের শূণ্য রেখা অতিক্রম করে বাংলাদশে ঢুকার চেষ্টাকালে ৭ রোহিঙ্গাকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন এবং আটকৃতদের নিয়ম মোতাবেক স্বদেশ ফেরত পাঠানো হয়েছে বলে জানান।
সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে কিছু সংখ্যক রোহিঙ্গা নাফ নদের ঘোলার চর পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশ করে শাহপরীর দ্বীপ লোকালয়ে ঢুকে পড়ে। এদের অনেকে রাতের আঁধারে পালিয়ে যেতে সক্ষম হন। শাহপরীর দ্বীপের বেশ কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দা রাতের আঁধারে রোহিঙ্গাদের অন্যত্র পালিয়ে যেতে দেখেছেন বলেও জানিয়েছেন।
শাহপরীর দ্বীপ মিস্ত্রি পাড়ার বাসিন্দা হোসন আহমদ জানান, ‘আমাদের বাড়ির সামনে দিয়ে ৮/৯ জন মতো রোহিঙ্গা চলে যেতে দেখেছি। তবে তাদের সাথে আরও ছিল কিনা তা বলতে পারিনা।’
নাফ নদের কিনারায় বসবাসকারী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শাহপরীর দ্বীপ মিস্ত্রি পাড়ার আরেক বাসিন্দা বলেন, ‘প্রায় ২৫/৩০ জন মতো রোহিঙ্গা এলাকায় ঢুকে পড়েছিল। গ্রামে রোহিঙ্গা ঢুকে পড়ার খবর পেয়ে স্থানীয় বিজিবি আশে পাশের কয়েকটি বাড়িতে অভিযানও চালিয়েছে।’
স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে অনুমেয়, অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গারা সংখ্যায় অন্তত ৩০ জনের কম ছিলনা। তবে তাদের মধ্যে বিজিবি ৭ জনকে আটক করতে সক্ষম হন। বাকিরা কৌশলে বা স্থানীয় দালালদের সহযোগিতায় নিরাপদ স্থানে পালিয়ে যান।
সাবরাং ইউপির ৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য ফজলুল হক আজকের দেশবিদেশকে জানান, ‘কিছু রোহিঙ্গা নাফ নদ দিয়ে শাহপরীর দ্বীপে ঢুকেছেন বলে শুনেছি। তবে যতদূর জানি, ঢুকে পড়া রোহিঙ্গারা বিজিবির হাতে আটক হয়েছেন এবং বিজিবি তাদের ফেরতও পাঠিয়েছেন। এছাড়া আর কোন রোহিঙ্গা অনত্র পালিয়ে গেছেন কিনা তা আমার জানা নেই।’
নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের আকিয়াব এলাকার। তবে আটকের পর থেকে ফেরতের আগ পর্যন্ত তারা বিজিবি হেফাজতে ছিলেন এবং কি কারণে তারা দেশ ছেড়ে চলে আসছেন, এ বিষয়ে তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এদিকে রোহিঙ্গাদের আবারও এদেশে নিয়ে আসতে সক্রিয় হয়ে ওঠেছে স্থানীয় একাধিক দালাল চক্র। এসব দালাল চক্রের হোতারা রোহিঙ্গাদের প্রবাসে অবস্থানরত আত্মীয় স্বজনদের মাধ্যমে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে সীমান্ত পার করে দেওয়ারও কন্টাক্ট নিচ্ছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

Comments

comments

Posted ১:২১ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com