শনিবার ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

৯ অক্টোবরের মদ্যে প্রত্যাহার না করলে ব্যবস্থা

রেনিটিডিন প্রত্যাহারে গণবিজ্ঞপ্তি জারী

শহীদুল্লাহ্ কায়সার   |   শুক্রবার, ০৪ অক্টোবর ২০১৯

রেনিটিডিন প্রত্যাহারে গণবিজ্ঞপ্তি জারী

রেনিটিডিন বাজারজাতকরণ বন্ধ ও প্রত্যাহারে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করলো বাংলাদেশ ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। শুধু ট্যাবলেট নয়, সিরাপ এমনকি রেনিটিডিনের উপাদান থাকা ইন্জেকশনও রয়েছে এই তালিকায়। অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ মাহাবুবুর রহমান এই গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেন।
রেনিটিডিন জাতীয় সকল ডোজেস ফর্মের ওষুধ উৎপাদন, বিক্রয় এবং বিতরণ সাময়িকভাবে স্থগিত করতেই এই গণবিজ্ঞপ্তি। পাশাপাশি ৯ অক্টোবরের মধ্যে এসব ওষুধ বাজার থেকে প্রত্যাহার করে নেয়ারও নির্দেশ দেয়া হয় গণবিজ্ঞপ্তিটিতে।
গতকাল দুপুরে গণবিজ্ঞপ্তির কপি কক্সবাজারে পৌঁছানো হয়। জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে সম্পৃক্তরা ছাড়াও প্রশাসনের কাছেও এর কপি পাঠানো হয়। যাতে অদূর ভবিষ্যতে কক্সবাজারে ক্যান্সার সৃষ্টিকারি রেনিটিডিন বাজারজাতকরণ ও বিক্রি করা না হয়।
প্রাথমিকভাবে উৎপাদন, বিক্রয় ও বিতরণ স্থগিতের তালিকায় রয়েছে ৩৮টি কোম্পানির উৎপাদিত রেনিটিডিন। দেশের নামি প্রায় সব ওষুধ উৎপাদন কোম্পানিই রয়েছে এই তালিকায়। এসব কোম্পানির মধ্যে কক্সবাজার জেলার বাজারে বহুল প্রচলিত স্কয়ারের নিউট্যাক, বেক্রিমকো’র নিউসেপটিন-আর, অপসোনিন’র রেনিডিন, বায়োফার্মার এসিন, ইবনে সিনার ইনসিয়্যাক, এসিআই’র জেনটিড, একমি’র রেনিডিন, রেনাটা’র নরমা-এইচ, জেসন ফার্মা’র রেনিসন, এসেনসিয়াল ফার্মার রেনিটিডিন এবং পপুলার ফার্মাসিউটিক্যালস্ এর রেনিটর উল্লেখ যোগ্য।
উল্লিখিত কোম্পানিগুলো তাঁদের রেনিটিডিন জাতীয় ওষুধ প্রস্তুত করার জন্য ভারতের সারাকা ল্যাবরেটরিজ লিমিটেড এবং এস.এম.এস লাইফসায়েন্সের কাঁচামাল আমদানি করে। যে দুটি কোম্পানির রেনিটিডিন উৎপাদনের জন্য আনা কাঁচামাল পরীক্ষায় ক্যান্সারের উপাদান পাওয়া যায়।
উল্লেখ্য, মানুষের শরীরে ক্যান্সার সৃষ্টির উপাদান রয়েছে রেনিটিডিনে। পরীক্ষায় বিষয়টি প্রমাণিতও হয়। বিষয়টি জনসমক্ষে আসে চলতি বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর। বাংলাদেশ ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ মাহাবুবুর রহমান বিষয়টি জনসমক্ষে এনে বাংলাদেশের বিভিন্ন কোম্পানির উৎপাদিত রেনিটিডিন জাতীয় ওষুধ উৎপাদন, বাজারজাতকরণ এবং বিক্রির উপর স্থগিতাদেশের অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন। গণবিজ্ঞপ্তির পর যা সাময়িকভাবে কার্যকর হলো।

Comments

comments

Posted ১২:৪৯ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ০৪ অক্টোবর ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com