• শিরোনাম

    লন্ডনে শুরু হচ্ছে মৌনী মুক্তার মাসব্যাপী একক চিত্রকর্ম প্রদর্শনী

    দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক | ৩১ অক্টোবর ২০১৯ | ২:১৮ পূর্বাহ্ণ

    লন্ডনে শুরু হচ্ছে মৌনী মুক্তার মাসব্যাপী একক চিত্রকর্ম প্রদর্শনী

    ১ নভেম্বর থেকে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে চিত্রশিল্পী মৌনী মুক্তা চক্রবর্তীর একক চিত্রকর্ম প্রর্দশনী ‘Tribeni: The Rhytham of water’ শুরু হচ্ছে।  লন্ডন বারা অব টাওয়ার হ্যামলেট এবং কুইনমেরি বিশ্ববিদ্যালয়ের তত্ত্বাবধানে এ সিজন অব বাংলা ড্রামার অংশ হিসেবে আয়োজিত এই প্রদর্শনীতে থাকছে চিত্রশিল্পী মৌনী মুক্তা চক্রবর্তীর চল্লিশটি চিত্র কর্ম। ১ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই প্রদর্শনী শেষ হবে ২৪ নভেম্বর।

    সেই সঙ্গে আগামী ১৭ নভেম্বর রবিবার বিকাল ৫টায় থাকছে Tribeni: The Rhytham of Water, live blend of music and arts শিরোনামে লাইভ আর্ট এবং প্রাচ্য এবং পাশ্চাত্যের সংগীত পরিবেশনা। নদীভিত্তিক শিল্প ও সাহিত্য বিষয়কে উপজীব্য করে  অসীম চক্রবর্তীর রচনা এবং পরিচালনায় লাইভ আর্ট এন্ড মিউজিক এক্সপেরিমেন্টাল শো-এর মঞ্চায়নে সঞ্চালনা করবেন নাজিম অর্বাচীন, লাইভ আর্ট করবেন মৌনি মুক্তা চক্রবর্তী এবং সঙ্গীত পরিবেশন করবেন তৃষা ভট্টাচার্য এবং গ্যারি কাফলান। অনুষ্ঠানটির শিল্প-পরিকল্পনায় ছিলেন সুদীপ চক্রবর্তী এবং সার্বিক তত্ত্বাবধানে সত্যব্রত দাশ স্বপন।

    সংস্কৃত শব্দ ত্রিবেণী অর্থ হচ্ছে তিনটি নদীর মিলনস্থল। মৌনী মুক্তা চক্রবর্তীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায় এই প্রদর্শনীতে তিন একটি ম্যাজিক্যাল সংখ্যা। কারণ এই প্রদর্শনীতে শিল্পী তিন ধরনের রং তিন ধরনের মাধ্যমে ব্যবহার করেছেন।  অর্থাৎ  জলরং, এক্রেলিক কালার এবং অয়েল কালার ব্যবহার করেছেন উডেন ক্যানভাস, পেপার এবং কাপড়ের ক্যানভাসে। সেই সঙ্গে তিন ধরনের বিষয় অর্থাৎ পোট্রেইট, ল্যান্ডস্কেপ এবং এবস্ট্রাক্ট বিষয়ের উপরে ছবিগুলো এঁকেছেন।

    মৌনী মুক্তা চক্রবর্তীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায় একজন শিল্পী হিসেবে তিনি সকল বাধা, বৈষম্য এবং নানা ধরনের ইজমের ঊর্ধ্বে উঠে একটি মানবিকতা বোধ সম্পন্ন মুক্তবুদ্ধির পৃথিবীর স্বপ্ন দেখেন। নানা সময়ে নানা বৈরিতায় তার ক্যানভাস বিদ্রোহ করেছে।  তিনি শিশু শ্রমের বিরুদ্ধে যেমন ছবি এঁকেছেন তেমনি নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধেও তার ক্যানভাস জ্বলে উঠেছে।

    বাংলাদেশে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের উপর নানা নির্যাতনের বিরুদ্ধে সংহতি জানাতে আঁকেন রূপবান নামের একটি চিত্র কর্ম।  শিল্পীর কথায় জানা যায় বৃষ্টির জল যেমন খাল বিল নদী সাগর মহাসাগরে মিশে মানব সৃষ্ট সীমান্তের কাঁটাতার পেরিয়ে ঘুরে বেড়ায় দেশ দেশান্তর। তেমনি যেকোনও শিল্পেরও কোনও সীমানা নেই। একমাত্র শিল্পই পারে সীমান্তের কাঁটাতার বিহীন একটি বিশ্ব তৈরি করতে।
    উল্লেখ্য, চিত্রশিল্পী মৌনী মুক্তা চক্রবর্তী ২০১২ সালে শান্ত মরিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি থেকে ফাইন আর্টসে গ্রেডুয়েশন এবং মাস্টার্স শেষ করে একই ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষকতা শুরু করেন। ২০১৩ সালে স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য লন্ডনের উদ্দেশে যাত্রা করেন এবং ধীরে ধীরে সেখানে ফ্রি ল্যান্স আর্টিস্ট হিসাবে কাজ শুরু করেন।

    এ যাবৎ পর্যন্ত মৌনী মুক্তা চক্রবর্তী বেশ বেশ ক’জন আন্তর্জাতিক শিল্পীর সঙ্গে কাজ করেছেন এবং তার আঁকা চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে বাংলাদেশের বহু প্রদর্শনীতে। তবে লন্ডনে এটাই তার প্রথম প্রদর্শনী।

    দেশবিদেশ/নেছার

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    শেকড় থেকে শিকড়ে

    ০৩ অক্টোবর ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ