• শিরোনাম

    শতবর্ষী নর-সুন্দর সূর্য কুমার নিরথদের চাহিদা এখনো ফুরায়নি

    এম.আর মাহবুব | ১২ জানুয়ারি ২০১৯ | ১২:৩৯ পূর্বাহ্ণ

    শতবর্ষী নর-সুন্দর সূর্য কুমার নিরথদের চাহিদা এখনো ফুরায়নি

    নিজেদের বসার জন্য এক টুকরো ইট,আর নিত্য-দিনের কাস্টমারদের বসার জন্য ছোট্ট একটি পিঁড়ি। খোলা আকাশে ঝড়, বৃষ্টি, শীত, গরম, রোদ মাথায় নিয়ে এ পেশায় সত্তর বছর পার করছে শতবর্ষী নর সুন্দর সূর্য কুমার ও নিরথ শর্মা। এখনো নর সুন্দর সূর্য কুমারদের দেখা মিলে গ্রামের হাট বাজারের অপাংতেয় কোন জায়গায়, যেখানে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান নিয়ে মোবাইল সেলুন কর্ম চালিয়ে যাচ্ছে বয়োবৃদ্ধ নর সুন্দররা। বংশ পরম্পরায় চলে আসা এই পেশায় ক্লান্তিহীন ভাবে ছুটে চলা নর সুন্দর সূর্য কুমার-নিরথদের কোন অবসর নেই। অভাবের সংসারের ঘানি টানতে নিজেদের সম্বল একটি মান্দাতা আমলের ক্ষুর, পিতলের পুরনো কাঁচি, অপরিচ্ছন্ন চাদর ও ছোট্ট পানির ডিব্বি নিয়ে হাট-বাজারের পরিচিত জায়গায় নির্দিষ্ট সময়ে সেলুন দোকান খুলে বসে তারা। কাস্টমারদের বেশির ভাগই তাদের পূর্ব পরিচিত, বয়স্ক এবং হতদরিদ্র। কেননা হাল আমলের মডার্ণ সেলুনের মত এখানে চুল, দাঁড়ি কাটায় বাহারী ডিজাইন নেই। কাস্টমারদের চাহিদায় নেই জেল, ফোম সেভের কোন আবদার। এখানে কাজ সারতে শত টাকা গুণতে হয় না। সূর্য, নিরথদের ঐতিহ্যবাহি আদি সেলুনে চুল কাটার রেট ২০ থেকে সর্বোচ্চ ২৫ টাকা। আর সেভ, দাঁড়ি কাটা মাত্র ১০ টাকা।
    কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজার খরুলিয়ার হিন্দু পাড়ার শতবর্ষী নর সুন্দর সূর্য কুমার এখনো নিয়মিত বসেন বাংলাবাজার, লিংকরোড়, খরুলিয়া ও কলঘর বাজারে। কাজের প্রতিযোগিতা থাকলেও তার সাথে ভালই ভাব পিএমখালি ইউনিয়নের পাতলি গ্রামের বাসিন্দা ৯০ উর্ধŸ নর সুন্দর নিরথ শর্মার। প্রতি সপ্তাহে দু’জনের বিচরণ এসব বাজারে। বয়সের ভারে ন্যুজ নর সুন্দর নিরথ জানান- এই পেশায় একনাগাড়ে ৬০ বছর। সময় আধুনিক, এখন আগের মতো কাস্টমার পাইনা। তবুও এই পেশার যত সামান্য আয় দিয়ে খেয়ে না খেয়ে অভাবের সংসারে কোন রকম বেঁচে আছি। হয়তো আর বেশি দিন পারবনা, শ্মশান ঘাট ডাকছে আমায়।
    বাংলাবাজারে নিয়মিত আদি সেলুনের নর সুন্দর, এক’শ বছর বয়সী সূর্য কুমার জানান-যুগ পাল্টেছে। সবাই এসি সেলুনে যায়। তরুণরা আমাদের দেখে হাসে। আমাদের মতো বুড়ো-গরিবরাই আমাদের কাস্টমার। তিনি ক্ষোভের সাথে জানান- এই পেশায় ৬০-৭০ বছর কাটিয়ে আসছি। কেউ আমাদের খবর রাখে না। আমরা অবহেলিত-বাজারের কোথাও ভাল জায়গায় বসার ব্যবস্থা নেই। এখন মরলেই বাঁচি। বয়োবৃদ্ধ সূর্য কুমার- নিরথরা অবহেলা-বঞ্চণাকে সাথী করে এই পেশায় এখনো টিকে আছেন, হয়তো আরও কিছুদিন টিকে থাকবেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ