• শিরোনাম

    সরেজমিন

    শান্তিপূর্ণ ভোট মহেশখালী-কুতুবদিয়া দ্বীপে

    দেশবিদেশ রিপোর্ট | ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১২:৪৯ পূর্বাহ্ণ

    শান্তিপূর্ণ ভোট মহেশখালী-কুতুবদিয়া দ্বীপে

    কক্সবাজারের সন্ত্রাসের জনপদ হিসাবে পরিচিত মহেশখালী-কুতুবদিয়া দ্বীপে গতকাল রবিবারের শান্তিপূর্ণ নির্বাচন নিয়ে দ্বীপবাসী মহাখুশি। গতকালের নির্বাচনে দ্বীপ দু’টির ১০৫ টি ভোট কেন্দ্রে কোন ‘টু শব্দটি’ও হয়নি। কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) আসনের ভোট কেন্দ্রগুলো সরেজমিন পরিদর্শন কালে দেখা গেছে, প্রতিটি কেন্দ্রেই বিপুল সংখ্যক ভোটারের উপস্থিতি। গতকাল কক্সবাজার জেলার ৪ টি সংসদীয় আসনের মধ্যে দ্বীপাঞ্চলের এ আসনটিতেই সবচেয়ে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্টিত হয়েছে।
    দ্বীপ দু’টির বাসিন্দাদের মতে এবারই সবচেয়ে নিরাপদ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্টিত হয়েছে। মহেশখালী দ্বীপের অতীত নির্বাচনের পরিবেশ-পরিস্থিতির বর্ণনা দিয়ে দ্বীপের বড় মহেশখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান অনোয়ার পাশা চৌধুরী জানান-‘ এক সময় ছিল আমাদের মহেশখালী দ্বীপে নির্বাচন মানেই খুনাখুনি। দ্বীপে কোন নির্বাচনই হয়নি রক্তপাতের ঘটনা ছাড়া। এমনকি সর্বশেষ গেল উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও ঘটেছিল অনেক রক্তপাতের ঘটনা।’
    তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন, ২০১৪ সালের সংসদ নির্বাচনেও বিএনপি-জামায়াত কম সহিংসতা করেনি। সেবারও সহিংসতায় রক্তপাতের ঘটনা ঘটেছিল। তবে সবচেয়ে বেশী রক্তপাত হয়েছিল কুতুবদিয়া দ্বীপে। কিন্তু গতকাল রবিবারের নির্বাচন অনুষ্টিত হয়েছে একদম শান্তিপূর্ণভাবে। মুন্সির ডেইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা অধ্যাপক এহেসান আলী জানান, কেন্দ্রটিতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে পেরেছেন ভোটারগন। কেন্দ্রে প্রায় প্রতিটি দলীয় প্রার্থীর নিয়োজিত এজেন্টও পাওয়া গেছে। ধানের শীষের এজেন্ট আলম শরীফ জানিয়েছেন, কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ নিয়ে তার কোন অভিযোগ নেই। এসময় কেন্দ্রে মোমবাতি প্রতীকের এজেন্ট এনামুল হক, চেয়ার প্রতীকের আমিনুল করিম, হাতপাখার আবদুল মাবুদ, ছালামতুল্লাহ এবং নৌকা প্রতীকের এজেন্ট আবদুস শুকুর সহ সবাই এক বাক্যে বলেছেন ভোট নিয়ে তাদের কোন ওজর-আপত্তি নেই।
    মহেশখালী দ্বীপের রাখাইন পাড়া, গোরকঘাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ফকিরাঘোনা, ফকিরাকাটা ও মুন্সিরডেইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র গুলোতে গতকাল সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে বিপুল সংখ্যক ভোটারের উপস্থিতি। মুন্সিরডেইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোটার এবং কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা জানান-‘মহেশখালী দ্বীপের নির্বাচনের ইতিহাসই রক্তে রঞ্জিত। কিন্তু গতকালের নির্বাচন এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম।’ তিনি বলেন, মহেশখালী-কুতুবদিয়া দ্বীপ ছিল দীর্ঘদিনের উন্নয়ন বঞ্চিত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলেই দ্বীপ দু’টি দেখছে উন্নয়নের ছোঁয়া।
    মহেশখালী পৌর এলাকার রাখাইন পাড়া এবং গোরকঘাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনে গিযে গতকাল সবচেয়ে বেশী নারী-পুরুষ ভোটারের দেখা মিলেছে। মহেশখালী পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ মকছুদ মিয়া জানিয়েছেন-‘মহেশখালী দ্বীপের আগের চেহারা বদলে গেছে। দ্বীপে উন্নয়নের হাওয়া বইছে। দ্বীপের মানুষগুলোর মনেও পরিবর্তনের ছোঁয়া লেগেছে। এ কারনেই দ্বীপের ভোটারগণ এখন নৌকামুখি।’
    বড় মহেশখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শরীফ বাদশাহ বলেন,দ্বীপের মানুষ এখন উন্নয়নমুখি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বদান্যতায় দ্বীপে ৫টি তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প ও এলএনজি টার্মিনাল সহ যেসব মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে এসব নিয়ে দ্বীপবাসী বেশ খুশি। এ কারনেই মানুষ শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট কেন্দ্রে অবস্থান নিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।
    কক্সবাজার-২ আসনের এমপি আশেক উল্লাহ রফিক বলেন-‘ আমি এমপি নির্বাচিত হয়ে গত ৫ বছরে মহেশখালী ও কুতুবদিয়া দ্বীপ দু’টির উন্নয়ন অনেক এগিয়ে নিয়েছি। সেই সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মহেশখালীর মাতারবাড়ী দ্বীপে একের পর এক তাপ বিদ্যুৎ প্রকল্প থেকে শুরু করে পুরো দ্বীপজুড়ে মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে এগিয়ে যাওয়ায় দ্বীপবাসী নৌকা প্রতীকের দিকে ঝুঁকে পড়েছেন।’ আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুর রহমান বলেন, মহেশখালী ও কুতুবদিয়া দ্বীপে ভোটারের সংখ্যা ২ লাখ ৯৬ হাজার। দ্বীপবাসী দীর্ঘকাল ধরে উন্নয়ন বঞ্চিত হয়ে এবার উন্নয়নের পথকেই বেছে নিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে।
    মহেশখালী দ্বীপ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর এবং দ্বীপ কুতুবদিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিদারুল ফেরদৌস জানান, স্বাধীনতা পরবর্তি প্রতিটি নির্বাচনেই দ্বীপ দু’টিতে সহিংসতা ঘটেছে। তবে এবারই সবচেয়ে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্টিত হয়েছে। #####

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ