• শিরোনাম

    শালবাগান ক্যাম্পে সক্রিয় দুইটি সশস্ত্র গ্রুপ-র‌্যাব

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৩ মার্চ ২০২০ | ১:৪৪ পূর্বাহ্ণ

    শালবাগান ক্যাম্পে সক্রিয় দুইটি সশস্ত্র গ্রুপ-র‌্যাব

    টেকনাফ শালবাগান ক্যাম্পে সক্রিয় রয়েছে দুইটি রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রæপ। জকির এবং সালমান শাহ্ যে গ্রæপ দুইট নিয়ন্ত্রণ করে। গতকাল ২ মার্চ র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধকালে জকির উপস্থিত ছিলো। কিন্তু র‌্যাবের হামলা তীব্রতর করার পর সে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। ইতঃপূর্বে ডাকাত হাকিম আলীর বাহিনী সক্রিয় থাকলেও বর্তমানে এই বাহিনীর অধিকাংশ সদস্যই নিষ্ক্রিয়। র‌্যাব-১৫ সূত্রে এই তথ্য পাওয়া গেছে।
    গতকাল সন্ধ্যা সোয়া সাতটায় র‌্যাব-১৫ কার্যালয়ে ব্রিফিংকালে কমান্ডিং অফিসার উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ বলেন, নুরে আলম এবং ছলিমের পর ডাকাত হিসেবে জকিরের উত্থান হয়। দুই যুগের বেশি সময় আগে মায়ানমার থেকে কক্সবাজারে আসা ডাকাত জকিরের বাহিনীতে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয় ডাকাতরাও রয়েছে।
    দুইটি বাহিনীর সদস্যরা ডাকাতি এবং মাদক ব্যবসায় জড়িত। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাঁদাবাজির সাথেও জড়িত জকির। ফলে সে এবং তার বাহিনীর সদস্যদের হাতে রয়েছে বিপুল পরিমাণ টাকা। যে টাকা দিয়ে তারা স্থানীয়দের সহায়তায় ্অস্ত্র কিনে থাকে। এসব অবৈধ অস্ত্রের কাছে জিম্মি সাধারণ রোহিঙ্গারা।
    ইতঃপূর্বে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত রোহিঙ্গা ডাকাত নুর মোহাম্মদের শালবাগান রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৫টি আস্তানা রয়েছে। দীর্ঘ সময় ধরে জকির এবং তার বাহিনীর সদস্যরা এসব আস্তানায় বসবাস করছে। সাম্প্রতিক সময়ে মালয়েশিয়া নিয়ে যাওয়ার কথা বলে মানব পাচারের ঘটনা বেড়ে যাওয়ারও অন্যতম কারণ এই দুইটি বাহিনী। বাহিনী সদস্যরা বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে মানুষ সংগ্রহ করে টেকনাফের বাহারছড়া নিয়ে যায়। এরপর শামলাপুর সংলগ্ন বঙ্গোপসাগেরর অংশে নৌকায় তুলে দেয় বলেও জানান উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ