• শিরোনাম

    শিক্ষামূলক বক্তব্য দিলেন ওবায়দুল কাদের

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২১ জানুয়ারি ২০২০ | ১১:৫১ অপরাহ্ণ

    শিক্ষামূলক বক্তব্য দিলেন ওবায়দুল কাদের

    ওবায়দুল কাদেরকে এদেশের মানুষের কাছে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কোন প্রয়োজন নেই। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার অনেক আগে থেকেই তিনি জাতীয় নেতা। মহান মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাÐ পরবর্তী এদেশের রাজপথে ছিলেন অত্যন্ত সক্রিয়। এমন একজন নেতার হঠাৎ করে মৃত্যুর পদধ্বনি তাই কেউ সহজভাবে মেনে নিতে পারেননি।

    সারাদেশের মানুষের চেয়েও এক্ষেত্রে কক্সবাজারের মানুষের আবেগ একটু বেশিই ছিলো। কক্সবাজারের মানুষ না হলেও দীর্ঘদিন ধরেই তিনি কক্সবাজারবাসীর অতি আপনজন। অত্যন্ত প্রভাবশালী রাজনীতিক হওয়া সত্তে¡ও অন্যান্য স্থানের চেয়ে কক্সবাজার জেলা তাঁর একটু বেশিই প্রিয়। যে কারণে তাঁর অসুস্থতার খবর কক্সবাজারবাসীকে অত্যন্ত কষ্ট দিয়েছে। সবাই সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করেছেন তিনি যেন সুস্থ হয়ে মানুষের মাঝে ফিরে আসেন। বিধাতা মানুষের অন্তরের কথা শুনেছেন। ওবায়দুল কাদের ফিরে পেয়েছেন প্রায় নতুন একটি জীবন।

    ওবায়দুল কাদেরকে এই জেলার মানুষের ভালোবাসার অন্যতম কারণে সময় পেলেই তিনি ছুটে আসেন পর্যটন নগরে। অত্যন্ত অমায়িক ব্যবহারের কারণেও তিনি সবার পছন্দের। গতকাল পাবলিক লাইব্রেরির কর্মীসভায় যা আবারো প্রমাণ দিলেন।
    ঘড়ির কাঁটা থেকে মাত্র বিশ সেকেণ্ড তুলে নিলেই পাক্কা আধা ঘণ্টা বক্তব্য রেখেছেন ওবায়দুল কাদের। বক্তব্যের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পুরোটাই ছিলো অত্যন্ত গোছানো। তিনি এতোই পরিষ্কার ভাষায় বক্তব্য রেখেছেন, পত্রিকার সাংবাদিকদেরও তাঁর ভাষাকে লেখ্য ভাষায় রূপান্তর করতে হয়নি। বক্তব্যের কোন স্থানেই তিনি ব্যবহার করেননি কোন অশ্লীল শব্দ। এমনকি কাউকে ব্যক্তিগত আক্রমণও করেননি।

    বিএনপিকে রাজনৈতিক ভাষায় আক্রমণ করলেও খালেদা জিয়া এবং তারেক জিয়ার নামও উচ্চারণ করেননি তিনি। নেতা-কর্মীদের দিয়েছেন উপদেশ। যাতে তাঁরা বিনয়ী হয়। ক্ষমতা যে চিরস্থায়ী নয় সেই বিষয়টি পরোক্ষভাবে স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেছেন, ক্ষমতার অহংকার যেন পতনের কারণ না হয়। জ্যেষ্ঠদের প্রতি শ্রদ্ধা রাখা, অসচ্ছল নেতা-কর্মীদের সহায়তা করার উপরই গুরুত্ব দিয়েছেন তিনি। এটিও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন, আজ যদি তাঁরা এই কাজ না করেন। ভবিষ্যৎ প্রজন্মও তাঁদের সেভাবেই মূল্যায়ন করবে।
    ওবায়দুল কাদেরের এমন শিক্ষামূলক বক্তব্য আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা অনুসরণ করুক। তাহলেই রাজনীতি এবং রাজনৈতিক কর্মীদের প্রতি মানুষের শ্রদ্ধা বাড়বে। সমাজ থেকে দূর হবে অরাজকতা।

    দেশবিদেশ/নেছার

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ